BDpress

সড়ক দুর্ঘটনায় শিশুসহ নিহত ২, আহত ৩০

জেলা প্রতিবেদক

অ+ অ-
সড়ক দুর্ঘটনায় শিশুসহ নিহত ২, আহত ৩০
নড়াইলে পৃথক দুটি সড়ক দুর্ঘটনায় শিশুসহ দুজন নিহত এবং ৩০ জন আহত হয়েছেন। আহতদেরকে নড়াইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১২ জানুয়ারী) দুপুরে মাত্র এ কিলোমিটার সড়কের ব্যবধানে দুর্ঘটনা দুটি ঘটে।

পুলিশ ও আহতরা জানান, দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মাগুরা জেলার গঙ্গারামপুর থেকে নড়াইলগামী একটি যাত্রীবাহী (মেট্রো-জ-১১-০৪৪০) বাস নড়াইল সদর উপজেলার ময়েনখোলা মোড়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশের পুকুরে পড়ে যায়। এসময় বাস যাত্রী লোহাগড়া উপজেলার নলদী ইউনিয়নের নালিয়া গ্রামের পঞ্চানন মজুমদার (৫০) ও মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলার কালিংশংকরপুর গ্রামের গ্রামের ৬ মাসের পুত্র সন্তান আরাফাত ঘটনাস্থলেই মারা যায়।  দুর্ঘটনার পর স্থানীয় লোকজন উদ্ধারকাজ শুরু করেন। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের সদস্য ও পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থলে ছুটে গিয়ে উদ্ধার কাজে অংশ নেন এবং আহত আনোয়ারা বেগম (৩৫), ফুলমিয়া (৫০), রিফাত (১১৮), আঞ্জুমানারা (১৮), আরিফ (২৮), সান্টু রহমান (৩০), তন্ময়সহ অন্য আহতদের নড়াইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে ।

এদিকে দুর্ঘটনাস্থলের এক কিলোমিটারের মধ্যে একটি নছিমন উল্টে অন্তত ৮ জন ছাত্র আহত হন। জানা গেছে, হবখালী ইউনিয়নের সিঙ্গিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ছাত্ররা ডিজিটাল মেলায় অংশগ্রহণের জন্য নড়াইলের যাচ্ছিলেন।

সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার আছাদুজ্জামান মুন্সী জানান,  দুটি দুর্ঘটনায় আহত হয়ে ২৭ জন সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। দুজনের মৃত্যু হয়েছে এবং একটি শিশু নিখোঁজ রয়েছে।

নড়াইল বাস-মিনিবাস শ্রমিক ইউনিয়নের সেক্রেটারি ছাদেক আহম্মেদ খান জানান, সড়কটিতে অসংখ্য খানা-খন্দকের সৃষ্টি হওয়ায় গাড়িটির স্প্রিংপাতি ভেঙ্গে দুর্ঘটনায় পতিত হয়েছে।

নড়াইল সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দেলোয়ার হোসেন জানান, বাসের চালক ও হেলপার পালিয়ে গেছে। এ ব্যাপারে নড়াইল সদর থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বিডিপ্রেস/আরজে

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

সড়ক দুর্ঘটনায় শিশুসহ নিহত ২, আহত ৩০


সড়ক দুর্ঘটনায় শিশুসহ নিহত ২, আহত ৩০

পুলিশ ও আহতরা জানান, দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মাগুরা জেলার গঙ্গারামপুর থেকে নড়াইলগামী একটি যাত্রীবাহী (মেট্রো-জ-১১-০৪৪০) বাস নড়াইল সদর উপজেলার ময়েনখোলা মোড়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশের পুকুরে পড়ে যায়। এসময় বাস যাত্রী লোহাগড়া উপজেলার নলদী ইউনিয়নের নালিয়া গ্রামের পঞ্চানন মজুমদার (৫০) ও মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলার কালিংশংকরপুর গ্রামের গ্রামের ৬ মাসের পুত্র সন্তান আরাফাত ঘটনাস্থলেই মারা যায়।  দুর্ঘটনার পর স্থানীয় লোকজন উদ্ধারকাজ শুরু করেন। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের সদস্য ও পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থলে ছুটে গিয়ে উদ্ধার কাজে অংশ নেন এবং আহত আনোয়ারা বেগম (৩৫), ফুলমিয়া (৫০), রিফাত (১১৮), আঞ্জুমানারা (১৮), আরিফ (২৮), সান্টু রহমান (৩০), তন্ময়সহ অন্য আহতদের নড়াইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে ।

এদিকে দুর্ঘটনাস্থলের এক কিলোমিটারের মধ্যে একটি নছিমন উল্টে অন্তত ৮ জন ছাত্র আহত হন। জানা গেছে, হবখালী ইউনিয়নের সিঙ্গিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ছাত্ররা ডিজিটাল মেলায় অংশগ্রহণের জন্য নড়াইলের যাচ্ছিলেন।

সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার আছাদুজ্জামান মুন্সী জানান,  দুটি দুর্ঘটনায় আহত হয়ে ২৭ জন সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। দুজনের মৃত্যু হয়েছে এবং একটি শিশু নিখোঁজ রয়েছে।

নড়াইল বাস-মিনিবাস শ্রমিক ইউনিয়নের সেক্রেটারি ছাদেক আহম্মেদ খান জানান, সড়কটিতে অসংখ্য খানা-খন্দকের সৃষ্টি হওয়ায় গাড়িটির স্প্রিংপাতি ভেঙ্গে দুর্ঘটনায় পতিত হয়েছে।

নড়াইল সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দেলোয়ার হোসেন জানান, বাসের চালক ও হেলপার পালিয়ে গেছে। এ ব্যাপারে নড়াইল সদর থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বিডিপ্রেস/আরজে

স্পটলাইট

দিনের আরো খবর