BDpress

উত্তরা থেকে মোনায়েম খানের নামফলক অপসারণ

জেলা প্রতিনিধি

অ+ অ-
উত্তরা থেকে মোনায়েম খানের নামফলক অপসারণ
নাটোরের উত্তরা গণভবন থেকে স্বাধীনতাবিরোধী মোনায়েম খানের নামফলক অপসারণ করা হয়েছে। জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড, মুক্তিযোদ্ধা এবং মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের আপামর জনগণের দাবির মুখে আজ শনিবার সকালে বিতর্কিত ওই নামফলকটি অপসারণ করা হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য শফিকুল ইসলাম শিমুল, সংসদ সদস্য অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস, ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক ড. আজাদুর রহমান, গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মশিউর রহমান, পৌর মেয়র ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড জেলা শাখার আহবায়ক উমা চৌধুরি জলি প্রমুখ।

উল্লেখ্য উত্তরা গণভবন থেকে কুখ্যাত মোনায়েম খানের নামফলক অপসারণের জন্য গত ২৯ জুন প্রধানমন্ত্রী কার্যালয় থেকে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ে এক চিঠি প্রেরণ করে।

ওই চিঠির আলোকেই গত ৪ জুলাই গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব সুরাইয়া বেগম স্বাক্ষরিত এক চিঠি গত ৫ জুলাই নাটোরের গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মশিউর রহমানের কাছে এসে পৌঁছায়।

চিঠিতে বলা হয়, নাটোর জেলার উত্তরা গণভবন হতে স্বাধীনতাবিরোধী কুখ্যাত রাজাকার মোনায়েম খানের নামফলক নাটোর জেলা প্রশাসনের সহায়তায় অপসারণ করে তা সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়কে অবহিত করার জন্য গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলীকে নির্দেশ দেয়া হয়।

নির্দেশের প্রেক্ষিতে গত ৯ জুলাই অপসারণের দিন ঠিক করা হলেও অজ্ঞাত কারণে তা অপসারন করা হয়নি। পরে আজ শনিবার সকালে কুখ্যাত স্বাধীনতাবিরোধী মোনায়েম খানের ওই নামফলকটি উত্তরা গণভবন থেকে অপসারণ করা হলো।

বিডিপ্রেস/আরজে

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

উত্তরা থেকে মোনায়েম খানের নামফলক অপসারণ


উত্তরা থেকে মোনায়েম খানের নামফলক অপসারণ

এ সময় উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য শফিকুল ইসলাম শিমুল, সংসদ সদস্য অধ্যাপক আব্দুল কুদ্দুস, ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক ড. আজাদুর রহমান, গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মশিউর রহমান, পৌর মেয়র ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড জেলা শাখার আহবায়ক উমা চৌধুরি জলি প্রমুখ।

উল্লেখ্য উত্তরা গণভবন থেকে কুখ্যাত মোনায়েম খানের নামফলক অপসারণের জন্য গত ২৯ জুন প্রধানমন্ত্রী কার্যালয় থেকে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ে এক চিঠি প্রেরণ করে।

ওই চিঠির আলোকেই গত ৪ জুলাই গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব সুরাইয়া বেগম স্বাক্ষরিত এক চিঠি গত ৫ জুলাই নাটোরের গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মশিউর রহমানের কাছে এসে পৌঁছায়।

চিঠিতে বলা হয়, নাটোর জেলার উত্তরা গণভবন হতে স্বাধীনতাবিরোধী কুখ্যাত রাজাকার মোনায়েম খানের নামফলক নাটোর জেলা প্রশাসনের সহায়তায় অপসারণ করে তা সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়কে অবহিত করার জন্য গণপূর্ত বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলীকে নির্দেশ দেয়া হয়।

নির্দেশের প্রেক্ষিতে গত ৯ জুলাই অপসারণের দিন ঠিক করা হলেও অজ্ঞাত কারণে তা অপসারন করা হয়নি। পরে আজ শনিবার সকালে কুখ্যাত স্বাধীনতাবিরোধী মোনায়েম খানের ওই নামফলকটি উত্তরা গণভবন থেকে অপসারণ করা হলো।

বিডিপ্রেস/আরজে

স্পটলাইট