BDpress

৮৬ বছরে মেসির মতো কেউ আসেনি

ক্রীড়া ডেস্ক

অ+ অ-
৮৬ বছরে মেসির মতো কেউ আসেনি
স্প্যানিশ লা লিগা প্রথম মাঠে গড়িয়েছিল ১৯২৯ সালে। সে হিসাবে বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় এই লিগের বয়স ৮৬। এত বছরে এতে খেলে গেছেন কত তারকা! ডিয়েগো ম্যারাডোনা, জিনেদিন জিদান, রোনালদিনহো, রোনালদো নাজারিও, ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো, ফিগো, বেকহাম—এমন কত নাম। কিন্তু এক গবেষণায় লিওনেল মেসি ছাড়িয়ে গেছেন আর সবাইকে। গবেষণাটি বলছে, স্প্যানিশ লিগে এযাবৎকালের সবচেয়ে সেরা ফুটবলার মেসিই।

রিসার্চ সেন্টার অব হিস্টোরি অ্যান্ড স্ট্যাটেসটিকস অব স্প্যানিশ ফুটবল নামে এই গবেষণা সংস্থাটি সেরা খেলোয়াড় বাছতে বেছে নিয়েছে বেশ কয়েকটি উপাদান। প্রতি মৌসুমে মোট খেলার সময়, পেনাল্টি গোল, ওপেন গোল, লাল কার্ড ইত্যাদি বিবেচনা করে গবেষণার ফল জানা গেছে।

গবেষণাটির ব্যাখ্যা দিয়েছেন অন্যতম গবেষণাকারী অ্যান্তনিয় ওর্তেগা, ‘প্রতি মৌসুমে খেলোয়াড়ের অবদান সহজ ও সুনির্দিষ্ট নির্ণায়কের বিপরীতে বিশ্লেষণ করা হয়েছে। প্রত্যেক খেলোয়াড়কে একই দাঁড়িপাল্লায় মাপতে এটি একটি কার্যকর প্রক্রিয়া।’ মোট ৯ হাজার ২৮০ জন খেলোয়াড়ের ওপর এই গবেষণা পরিচালিত হয়। এঁদের মধ্যে ছিলেন ৮৪৫ জন গোলরক্ষক।

স্প্যানিশ লিগের ইতিহাসে সর্বোচ্চ গোলদাতা মেসি। তাঁর গোলের সংখ্যা ৩৪৯। দ্বিতীয় স্থানে থাকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর গোল ২৮৫ আর তৃতীয় স্থানের তেলমো জারার ২৫১। মেসির সঙ্গে ব্যবধানটা অনেক বেশিই। প্রতিভা ও সামর্থ্য দিয়ে এই জায়গা আর্জেন্টাইন তারকা নিজের করে নিয়েছেন বলেই জানিয়েছে গবেষণা প্রতিষ্ঠানটি। সেরা খেলোয়াড়ের তালিকায় মেসির ঠিক পরেই আছের সাবেক রিয়াল মাদ্রিদ তারকা রাউল গঞ্জালেস। তৃতীয় ও চতুর্থ স্থানে আছেন যথাক্রমে সিজার রদ্রিগেজ ও তেলমো জারা। শীর্ষ দশে আছেন হুয়ান আরদা, কুইনি, আলফ্রেডো ডি স্টেফানো, পাকো বেনতো, কার্লোস আলোনসো ও গুইলারমো গরস্তিজা। ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো আছেন এই তালিকার ১৭ নম্বরে। তবে এখনো খেলে যাচ্ছেন, এমন খেলোয়াড়দের তালিকায় মেসির পরপরই আছেন রোনালদো। বর্তমান খেলোয়াড় তালিকায় ৩ নম্বরে আছেন আরিৎজ আদুরিজ।

সূত্র: মার্কা

বিডিপ্রেস/মিঠু

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

৮৬ বছরে মেসির মতো কেউ আসেনি


৮৬ বছরে মেসির মতো কেউ আসেনি

রিসার্চ সেন্টার অব হিস্টোরি অ্যান্ড স্ট্যাটেসটিকস অব স্প্যানিশ ফুটবল নামে এই গবেষণা সংস্থাটি সেরা খেলোয়াড় বাছতে বেছে নিয়েছে বেশ কয়েকটি উপাদান। প্রতি মৌসুমে মোট খেলার সময়, পেনাল্টি গোল, ওপেন গোল, লাল কার্ড ইত্যাদি বিবেচনা করে গবেষণার ফল জানা গেছে।

গবেষণাটির ব্যাখ্যা দিয়েছেন অন্যতম গবেষণাকারী অ্যান্তনিয় ওর্তেগা, ‘প্রতি মৌসুমে খেলোয়াড়ের অবদান সহজ ও সুনির্দিষ্ট নির্ণায়কের বিপরীতে বিশ্লেষণ করা হয়েছে। প্রত্যেক খেলোয়াড়কে একই দাঁড়িপাল্লায় মাপতে এটি একটি কার্যকর প্রক্রিয়া।’ মোট ৯ হাজার ২৮০ জন খেলোয়াড়ের ওপর এই গবেষণা পরিচালিত হয়। এঁদের মধ্যে ছিলেন ৮৪৫ জন গোলরক্ষক।

স্প্যানিশ লিগের ইতিহাসে সর্বোচ্চ গোলদাতা মেসি। তাঁর গোলের সংখ্যা ৩৪৯। দ্বিতীয় স্থানে থাকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর গোল ২৮৫ আর তৃতীয় স্থানের তেলমো জারার ২৫১। মেসির সঙ্গে ব্যবধানটা অনেক বেশিই। প্রতিভা ও সামর্থ্য দিয়ে এই জায়গা আর্জেন্টাইন তারকা নিজের করে নিয়েছেন বলেই জানিয়েছে গবেষণা প্রতিষ্ঠানটি। সেরা খেলোয়াড়ের তালিকায় মেসির ঠিক পরেই আছের সাবেক রিয়াল মাদ্রিদ তারকা রাউল গঞ্জালেস। তৃতীয় ও চতুর্থ স্থানে আছেন যথাক্রমে সিজার রদ্রিগেজ ও তেলমো জারা। শীর্ষ দশে আছেন হুয়ান আরদা, কুইনি, আলফ্রেডো ডি স্টেফানো, পাকো বেনতো, কার্লোস আলোনসো ও গুইলারমো গরস্তিজা। ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো আছেন এই তালিকার ১৭ নম্বরে। তবে এখনো খেলে যাচ্ছেন, এমন খেলোয়াড়দের তালিকায় মেসির পরপরই আছেন রোনালদো। বর্তমান খেলোয়াড় তালিকায় ৩ নম্বরে আছেন আরিৎজ আদুরিজ।

সূত্র: মার্কা

বিডিপ্রেস/মিঠু

স্পটলাইট