BDpress

ক্যান্ডি টেস্টে বিপাকে ভারত

ক্রীড়া ডেস্ক

অ+ অ-
ক্যান্ডি টেস্টে বিপাকে ভারত
গল, কলম্বোর পর এবার ক্যান্ডি। শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে সিরিজের তৃতীয় টেস্টেও জারি ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের দাপট। তবে মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় কিছুটা হলেও চাপে টিম ইন্ডিয়া। প্রথম দিন শেষে ভারতের রান ছ’উইকেটে ৩২৯। ক্রিজে রয়েছেন ঋদ্ধিমান সাহা (১৩) এবং হার্দিক পাণ্ডিয়া (১)।

পাল্লেকেলেতে টেস্ট জিতলে ইতিহাস গড়তে পারে ভারতীয় দল। শ্রীলঙ্কার মাটিতে এই প্রথমবার ভারতীয় দল সিরিজে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে। এর আগে ২০০৩-০৪ মৌশুমে অস্ট্রেলিয়া প্রথমবার শ্রীলঙ্কাকে তাদের মাটিতে ৩-০ ব্যবধানে হারিয়ে সিরিজ জিতেছিল। সেই ইতিহাস স্পর্শ করার সামনে দাঁড়িয়ে বিরাটবাহিনী। 

শুরুটাও সেভাবেই হয়েছিল। টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন বিরাট কোহলি। এদিন ভারতীয় দলের ব্যাটিংকে দু’টি পর্বে ভাগ করা যেতে পারে। প্রথমার্ধে যদি হয় দুই ওপেনার লোকেশ রাহুল এবং শিখর ধাওয়ানের, তাহলে দ্বিতীয়ার্ধে অবশ্যই টিম ইন্ডিয়ার ব্যাটসম্যানদের নিজেদের উইকেট ছুড়ে দিয়ে আসা।

এদিনও দুই ওপেনার রাহুল এবং ধাওয়ান ভারতের ইনিংসের শুরুটা দুর্দান্তভাবে করেন। প্রথম উইকেটে দু’জনে যোগ করেন ১৮৮ রান। তবে অল্পের জন্য নিজের শতরান মাঠে ফেলে আসেন লোকেশ রাহুল। আউট হন ৮৫ রানে। তবে এদিনও অর্ধ-শতরান করে নতুন রেকর্ড গড়লেন তিনি। এই নিয়ে টানা সাতটি টেস্ট ম্যাচে অর্ধ-শতরান করে ফেললেন রাহুল। তবে আরেক ওপেনার ধাওয়ানের সংগ্রহ ১১৯ রান। 

তবে দুই ওপেনার ফিরে যাওয়ার পরই খেলায় ফেরে শ্রীলঙ্কা। এদিন ব্যর্থ হন দলের সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান চেতেশ্বর পূজারা (৮) এবং অজিঙ্ক রাহানে (১৭)। তবে অধিনায়ক বিরাট কোহলি(৪২) এবং রবিচন্দ্রন অশ্বিন (৩১) শুরুটা ভাল করলেও, সেটিকে বড় রানে পরিণত করতে পারেনি। চা-পানের বিরতির পরই একের পর এক ভারতীয় ব্যাটসম্যান প্যাভিলিয়নে ফেরেন। দিনের শেষে ক্রিজে রয়েছেন ঋদ্ধিমান এবং হার্দিক। শ্রীলঙ্কান বোলারদের মধ্যে সবচেয়ে সফল পুষ্পাকুমারা। তিনি ৪০ রান দিয়ে ৩ উইকেট নিয়েছেন।
বিডিপ্রেস/আলী

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

ক্যান্ডি টেস্টে বিপাকে ভারত


ক্যান্ডি টেস্টে বিপাকে ভারত

পাল্লেকেলেতে টেস্ট জিতলে ইতিহাস গড়তে পারে ভারতীয় দল। শ্রীলঙ্কার মাটিতে এই প্রথমবার ভারতীয় দল সিরিজে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে। এর আগে ২০০৩-০৪ মৌশুমে অস্ট্রেলিয়া প্রথমবার শ্রীলঙ্কাকে তাদের মাটিতে ৩-০ ব্যবধানে হারিয়ে সিরিজ জিতেছিল। সেই ইতিহাস স্পর্শ করার সামনে দাঁড়িয়ে বিরাটবাহিনী। 

শুরুটাও সেভাবেই হয়েছিল। টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন বিরাট কোহলি। এদিন ভারতীয় দলের ব্যাটিংকে দু’টি পর্বে ভাগ করা যেতে পারে। প্রথমার্ধে যদি হয় দুই ওপেনার লোকেশ রাহুল এবং শিখর ধাওয়ানের, তাহলে দ্বিতীয়ার্ধে অবশ্যই টিম ইন্ডিয়ার ব্যাটসম্যানদের নিজেদের উইকেট ছুড়ে দিয়ে আসা।

এদিনও দুই ওপেনার রাহুল এবং ধাওয়ান ভারতের ইনিংসের শুরুটা দুর্দান্তভাবে করেন। প্রথম উইকেটে দু’জনে যোগ করেন ১৮৮ রান। তবে অল্পের জন্য নিজের শতরান মাঠে ফেলে আসেন লোকেশ রাহুল। আউট হন ৮৫ রানে। তবে এদিনও অর্ধ-শতরান করে নতুন রেকর্ড গড়লেন তিনি। এই নিয়ে টানা সাতটি টেস্ট ম্যাচে অর্ধ-শতরান করে ফেললেন রাহুল। তবে আরেক ওপেনার ধাওয়ানের সংগ্রহ ১১৯ রান। 

তবে দুই ওপেনার ফিরে যাওয়ার পরই খেলায় ফেরে শ্রীলঙ্কা। এদিন ব্যর্থ হন দলের সবচেয়ে নির্ভরযোগ্য ব্যাটসম্যান চেতেশ্বর পূজারা (৮) এবং অজিঙ্ক রাহানে (১৭)। তবে অধিনায়ক বিরাট কোহলি(৪২) এবং রবিচন্দ্রন অশ্বিন (৩১) শুরুটা ভাল করলেও, সেটিকে বড় রানে পরিণত করতে পারেনি। চা-পানের বিরতির পরই একের পর এক ভারতীয় ব্যাটসম্যান প্যাভিলিয়নে ফেরেন। দিনের শেষে ক্রিজে রয়েছেন ঋদ্ধিমান এবং হার্দিক। শ্রীলঙ্কান বোলারদের মধ্যে সবচেয়ে সফল পুষ্পাকুমারা। তিনি ৪০ রান দিয়ে ৩ উইকেট নিয়েছেন।
বিডিপ্রেস/আলী

স্পটলাইট