BDpress

রোহিঙ্গাদের না খেয়ে থাকতে হবে না: ওবায়দুল

নিজস্ব প্রতিবেদক

অ+ অ-
রোহিঙ্গাদের না খেয়ে থাকতে হবে না: ওবায়দুল
বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের না খেয়ে থাকতে হবে না বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেছেন, বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের না খেয়ে থাকতে হবে না। এটাই আওয়ামী লীগ সরকারের অঙ্গীকার। বুধবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালং শরণার্থী শিবির পরিদর্শন ও ত্রাণ বিতরণ অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, ২০দিন পর রোহিঙ্গাদের জন্য বিএনপির ত্রাণ বিতরণ নিছক মায়াকান্না ও প্রতারণা ছাড়া কিছু নয়।

এ সময় অন্যদের মধ্যে দলের সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামিম, উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, প্রশান্ত ভূষণ বড়ুয়া, সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক, কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে মঙ্গলবার উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রাখাইন রাজ্যে সহিংসতায় গত ২৫ আগস্ট থেকে এখন পর্যন্ত প্রায় ৩ লাখ ৭০ হাজার রোহিঙ্গা মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে ঠাঁই নিয়েছে।
মঙ্গলবার জাতিসংঘের শরণার্থীবিষয়ক সংস্থার মুখপাত্র জোসেফ ত্রিপুরা এ তথ্য জানিয়েছেন বলে এনডিটিভির খবরে বলা হয়।

জাতিসংঘের ভাষ্যমতে, পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের প্রকৃত সংখ্যা আরো বেশি হতে পারে। কেননা আরো অনেক রোহিঙ্গা এখনো চলন্তপথে রাস্তার পাশে অবস্থান করছে, যাদের এই মুহূর্তে হিসেবে আনা কষ্টসাধ্য। বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গার সংখ্যা সোমবার ৩ লাখ ১৩ হাজার বলার পর, রাতের মধ্যেই এই সংখ্যা বাড়লো।
বিডিপ্রেস/মিঠু

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

রোহিঙ্গাদের না খেয়ে থাকতে হবে না: ওবায়দুল


রোহিঙ্গাদের না খেয়ে থাকতে হবে না: ওবায়দুল

তিনি বলেন, ২০দিন পর রোহিঙ্গাদের জন্য বিএনপির ত্রাণ বিতরণ নিছক মায়াকান্না ও প্রতারণা ছাড়া কিছু নয়।

এ সময় অন্যদের মধ্যে দলের সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামিম, উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, প্রশান্ত ভূষণ বড়ুয়া, সংসদ সদস্য আশেক উল্লাহ রফিক, কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে মঙ্গলবার উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রাখাইন রাজ্যে সহিংসতায় গত ২৫ আগস্ট থেকে এখন পর্যন্ত প্রায় ৩ লাখ ৭০ হাজার রোহিঙ্গা মিয়ানমার থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে ঠাঁই নিয়েছে।
মঙ্গলবার জাতিসংঘের শরণার্থীবিষয়ক সংস্থার মুখপাত্র জোসেফ ত্রিপুরা এ তথ্য জানিয়েছেন বলে এনডিটিভির খবরে বলা হয়।

জাতিসংঘের ভাষ্যমতে, পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের প্রকৃত সংখ্যা আরো বেশি হতে পারে। কেননা আরো অনেক রোহিঙ্গা এখনো চলন্তপথে রাস্তার পাশে অবস্থান করছে, যাদের এই মুহূর্তে হিসেবে আনা কষ্টসাধ্য। বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গার সংখ্যা সোমবার ৩ লাখ ১৩ হাজার বলার পর, রাতের মধ্যেই এই সংখ্যা বাড়লো।
বিডিপ্রেস/মিঠু

স্পটলাইট