BDpress

কাঁচাবাজারে শীতের হাওয়া, সবজির দাম কমছে

নিজস্ব প্রতিবেদক

অ+ অ-
কাঁচাবাজারে শীতের হাওয়া, সবজির দাম কমছে
গত এক মাস ধরেই সবজির বাজার চড়া। কেজি প্রতি অধিকাংশ সবজির দামই ছাড়িয়ে গিয়েছিলো ১শ’ টাকার ঘর। ফলে দীর্ঘদিন ধরে সবজির বাজারে অস্বস্তি ছিলো ক্রেতাদের। তবে শীতের হাওয়া স্বস্তি নিয়ে এসেছে ক্রেতাদের জন্য। বাজারে কমতে শুরু করছে সবজির দাম। কেজিপ্রতি ১০ টাকা করে কমেছে অনেক সবজির দামই। সামনের দিনগুলোতে সবজির দাম আরো কমবে বলেও বিক্রেতারা জানিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর হাতিরপুল কাঁচাবাজার, পশ্চিম রাজাবাজার কাঁচাবাজার ও পূর্ব রাজাবাজারের কাঁচাবাজার ঘুরে এসব তথ্য জানা যায়।

সর্বশেষ সবজির খুচরা বাজারের তথ্য অনুযায়ী, প্রতিকেজি কাঁচামরিচ ২০০ টাকা থেকে ১২০ টাকায়, বেগুন ৭০ টাকা থেকে ৬০ টাকায়, পেঁপে ৩০ টাকা থেকে ২৫ টাকায়, ধনিয়াপাতা ২০০ টাকা থেকে ১৫০ টাকায়, সিম ১৬০ টাকা থেকে ১৪০ টাকায়, চিচিঙ্গা ৬০ টাকা থেকে ৫০ টাকায়, পটল ৬০ টাকা থেকে ৫০ টাকায় নেমে এসেছে। এছাড়া গত সপ্তাহের মতোই আলু বিক্রি হচ্ছে ২৫ টাকা করে, শসা ৫০ টাকা করে। কিন্তু কেজিপ্রতি ২০ টাকা দাম বেড়ে বরবটি বিক্রি হচ্ছে ১০০ টাকায়।

সবজির দাম কমার কারণ হিসেবে বিক্রেতারা বলছেন, শীতের হাওয়া সবজির বাজারে লেগেছে। ফলে বাজারে প্রচুর সবজি আসছে, তাই দাম কমছে।

সামনে দিনগুলোতে দাম কমার আরও সম্ভাবনা আছে বলেও তারা জানান।

হাতিরপুল কাঁচাবাজারের খুচরা সবজি বিক্রেতা রাহাত আলী বলেন, বন্যা ও বৃষ্টিপাতের ধাক্কা ধীরে ধীরে কাটিয়ে উঠছে সবজির বাজার। যোগানে এখন কোনো ঘাটতি নেই। ফলে দামও কমছে।

পশ্চিম রাজাবাজার কাঁচাবাজারের খুচরা সবজি বিক্রেতা জসিম  বলেন, শীতে সবজির উৎপাদন বেশি হয় বলেই প্রতিবছরই এ সময় দাম কমে।

সবজির বাজার স্থিতিশীলতার দিকে এগোলেও অস্থিতিশীল রয়েছে পেঁয়াজ ও আদার বাজার। প্রতিকেজি দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকায়। আমদানি করা পেঁয়াজের কেজিপ্রতি দাম ৬০ টাকা। আদা বিক্রি হচ্ছে কেজিপ্রতি ১৫০ টাকা দরে।

সব চালের দাম বাজারে মোটামুটি স্থিতিশীল রয়েছে বলে বিক্রেতারা জানিয়েছেন। প্রতিকেজি নাজিরশাইল চাল বিক্রি হচ্ছে ৭০ টাকা করে। প্রতিকজি মিনিকেট ৬০ টাকা,  বিআর-২৮ কেজিপ্রতি ৫০-৫৫ টাকা এবং স্বর্ণা ও পারিজা।

বিডিপ্রেস/মিঠু


এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

কাঁচাবাজারে শীতের হাওয়া, সবজির দাম কমছে


কাঁচাবাজারে শীতের হাওয়া, সবজির দাম কমছে

বৃহস্পতিবার রাজধানীর হাতিরপুল কাঁচাবাজার, পশ্চিম রাজাবাজার কাঁচাবাজার ও পূর্ব রাজাবাজারের কাঁচাবাজার ঘুরে এসব তথ্য জানা যায়।

সর্বশেষ সবজির খুচরা বাজারের তথ্য অনুযায়ী, প্রতিকেজি কাঁচামরিচ ২০০ টাকা থেকে ১২০ টাকায়, বেগুন ৭০ টাকা থেকে ৬০ টাকায়, পেঁপে ৩০ টাকা থেকে ২৫ টাকায়, ধনিয়াপাতা ২০০ টাকা থেকে ১৫০ টাকায়, সিম ১৬০ টাকা থেকে ১৪০ টাকায়, চিচিঙ্গা ৬০ টাকা থেকে ৫০ টাকায়, পটল ৬০ টাকা থেকে ৫০ টাকায় নেমে এসেছে। এছাড়া গত সপ্তাহের মতোই আলু বিক্রি হচ্ছে ২৫ টাকা করে, শসা ৫০ টাকা করে। কিন্তু কেজিপ্রতি ২০ টাকা দাম বেড়ে বরবটি বিক্রি হচ্ছে ১০০ টাকায়।

সবজির দাম কমার কারণ হিসেবে বিক্রেতারা বলছেন, শীতের হাওয়া সবজির বাজারে লেগেছে। ফলে বাজারে প্রচুর সবজি আসছে, তাই দাম কমছে।

সামনে দিনগুলোতে দাম কমার আরও সম্ভাবনা আছে বলেও তারা জানান।

হাতিরপুল কাঁচাবাজারের খুচরা সবজি বিক্রেতা রাহাত আলী বলেন, বন্যা ও বৃষ্টিপাতের ধাক্কা ধীরে ধীরে কাটিয়ে উঠছে সবজির বাজার। যোগানে এখন কোনো ঘাটতি নেই। ফলে দামও কমছে।

পশ্চিম রাজাবাজার কাঁচাবাজারের খুচরা সবজি বিক্রেতা জসিম  বলেন, শীতে সবজির উৎপাদন বেশি হয় বলেই প্রতিবছরই এ সময় দাম কমে।

সবজির বাজার স্থিতিশীলতার দিকে এগোলেও অস্থিতিশীল রয়েছে পেঁয়াজ ও আদার বাজার। প্রতিকেজি দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৮০ টাকায়। আমদানি করা পেঁয়াজের কেজিপ্রতি দাম ৬০ টাকা। আদা বিক্রি হচ্ছে কেজিপ্রতি ১৫০ টাকা দরে।

সব চালের দাম বাজারে মোটামুটি স্থিতিশীল রয়েছে বলে বিক্রেতারা জানিয়েছেন। প্রতিকেজি নাজিরশাইল চাল বিক্রি হচ্ছে ৭০ টাকা করে। প্রতিকজি মিনিকেট ৬০ টাকা,  বিআর-২৮ কেজিপ্রতি ৫০-৫৫ টাকা এবং স্বর্ণা ও পারিজা।

বিডিপ্রেস/মিঠু


স্পটলাইট