BDpress

পেঁয়াজের দাম কমতে শুরু করেছে

নিজস্ব প্রতিবেদক

অ+ অ-
পেঁয়াজের দাম কমতে শুরু করেছে
পাইকারিতে পেঁয়াজের দাম কমতে শুরু করেছে। তবে খুচরা বাজারে এখনও এর প্রভাব পড়েনি। বিক্রেতারা বলছেন, পাইকারিতে দাম কমলে দু-চার দিনে খুচরায়ও কমবে। গত দু'দিনের ব্যবধানে পাইকারিতে কেজিতে ৫ থেকে ১২ টাকা পর্যন্ত কমেছে।মাসখানেকের মধ্যে পেঁয়াজের দাম প্রায় তিন গুণ বৃদ্ধি পেয়েছিল।

দেশের সবচেয়ে বড় পেঁয়াজ বিক্রির আড়ত শ্যামবাজারের পাশাপাশি কারওয়ান বাজার, যাত্রাবাড়ীসহ অন্যান্য আড়তে ভারতীয় পেঁয়াজের দাম পাইকারিতে কমেছে কেজিতে ৮ থেকে ১২ টাকা ও দেশি পেঁয়াজ ৫ থেকে ৭ টাকা।

শ্যামবাজারে বুধবার প্রতি কেজি দেশি পেঁয়াজ ৬৫ থেকে ৭০ টাকা ও ভারতীয় পেঁয়াজ ৪৮ থেকে ৫০ টাকায় বিক্রি হয়। দু'দিন আগেও দেশি পেঁয়াজ ৭২ থেকে ৭৫ টাকা ও ভারতীয় পেঁয়াজ ৬০ থেকে ৬২ টাকা ছিল।শ্যামবাজারের তুলনায় অন্যান্য পাইকারি আড়তে কিছুটা বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে।

পেঁয়াজ আমদানিকারক ও শ্যামবাজারের পপুলার বাণিজ্যালয়ের পাইকারি আড়তদার ব্যবসায়ী রতন সাহা বলেন, ভারতে নতুন মৌসুমের পেঁয়াজ উঠেছে। ফলে দেশটিতে দাম কমেছে। এর প্রভাব আমাদের বাজারেও পড়তে শুরু করেছে। দু'দিন ধরে পাইকারি দাম কমে এখন ৫০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। খুচরা পর্যায়ে দাম কমাতে মন্ত্রণালয়ের মনিটরিং জোরদার করা উচিত বলে মনে করেন তিনি।

কারওয়ান বাজারের পাইকারি ব্যবসায়ী ইউনুস মণ্ডল বলেন, নতুন পেঁয়াজ বাজারে আসছে। ভারতীয় পেঁয়াজের দাম কমার পাশাপাশি নতুন পেঁয়াজ আসায় দামও কমতে শুরু করেছে। বুধবার প্রতি কেজি দেশি পেঁয়াজ ৭২ থেকে ৭৫ টাকায় বিক্রি করেছেন। দু'দিন আগেও প্রতি কেজি দেশি পেঁয়াজ ৭৮ থেকে ৮০ টাকায় বিক্রি হয়েছিল।

তিনি বলেন, একদিকে দাম বৃদ্ধির কারণে বাজারে সরবরাহ বেড়েছে, অন্যদিকে বিক্রি কমেছে। ফলে ক্রেতা কম থাকায় লোকসানের আশঙ্কা করছেন অনেক ব্যবসায়ী। এ কারণে কিছুটা কম দামে হলেও মৌসুমের আগে হাতে থাকা পেঁয়াজ দ্রুত বিক্রি করতে চান।

দেশি মুড়িকাটা আগাম জাতের পেঁয়াজ আরও দুই সপ্তাহ পরে পুরোপুরি আসবে। তবে এখন ভালো দামের আশায় কিছুটা অপরিপকস্ফ পেঁয়াজ নিয়ে কারওয়ান বাজারে এসেছেন কৃষক মমিন সরকার।

তিনি বলেন, এবার বৃষ্টিতে পেঁয়াজ কিছুটা নষ্ট হয়েছে। তবে বৃষ্টির পর আবাদ বেড়েছে। এতে পেঁয়াজের উৎপাদন ভালো হবে।

বুধবার রাজধানীর খুচরা বাজার মোহাম্মদপুর টাউনহল ও মিরপুর শাহআলী বাজার ঘুরে দেখা গেছে, খুচরায় কিছু দোকানি এখনও চড়া দামেই বিক্রি করছেন। দেশি পেঁয়াজ ৮৫ থেকে ৯০ টাকা ও ভারতীয় পেঁয়াজ ৬৫ থেকে ৭০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। খুচরায় পেঁয়াজের দাম আগামী সপ্তাহে কমতে পারে বলে জানান বিক্রেতারা।

বিডিপ্রেস/মিঠু

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

পেঁয়াজের দাম কমতে শুরু করেছে


পেঁয়াজের দাম কমতে শুরু করেছে

দেশের সবচেয়ে বড় পেঁয়াজ বিক্রির আড়ত শ্যামবাজারের পাশাপাশি কারওয়ান বাজার, যাত্রাবাড়ীসহ অন্যান্য আড়তে ভারতীয় পেঁয়াজের দাম পাইকারিতে কমেছে কেজিতে ৮ থেকে ১২ টাকা ও দেশি পেঁয়াজ ৫ থেকে ৭ টাকা।

শ্যামবাজারে বুধবার প্রতি কেজি দেশি পেঁয়াজ ৬৫ থেকে ৭০ টাকা ও ভারতীয় পেঁয়াজ ৪৮ থেকে ৫০ টাকায় বিক্রি হয়। দু'দিন আগেও দেশি পেঁয়াজ ৭২ থেকে ৭৫ টাকা ও ভারতীয় পেঁয়াজ ৬০ থেকে ৬২ টাকা ছিল।শ্যামবাজারের তুলনায় অন্যান্য পাইকারি আড়তে কিছুটা বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে।

পেঁয়াজ আমদানিকারক ও শ্যামবাজারের পপুলার বাণিজ্যালয়ের পাইকারি আড়তদার ব্যবসায়ী রতন সাহা বলেন, ভারতে নতুন মৌসুমের পেঁয়াজ উঠেছে। ফলে দেশটিতে দাম কমেছে। এর প্রভাব আমাদের বাজারেও পড়তে শুরু করেছে। দু'দিন ধরে পাইকারি দাম কমে এখন ৫০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। খুচরা পর্যায়ে দাম কমাতে মন্ত্রণালয়ের মনিটরিং জোরদার করা উচিত বলে মনে করেন তিনি।

কারওয়ান বাজারের পাইকারি ব্যবসায়ী ইউনুস মণ্ডল বলেন, নতুন পেঁয়াজ বাজারে আসছে। ভারতীয় পেঁয়াজের দাম কমার পাশাপাশি নতুন পেঁয়াজ আসায় দামও কমতে শুরু করেছে। বুধবার প্রতি কেজি দেশি পেঁয়াজ ৭২ থেকে ৭৫ টাকায় বিক্রি করেছেন। দু'দিন আগেও প্রতি কেজি দেশি পেঁয়াজ ৭৮ থেকে ৮০ টাকায় বিক্রি হয়েছিল।

তিনি বলেন, একদিকে দাম বৃদ্ধির কারণে বাজারে সরবরাহ বেড়েছে, অন্যদিকে বিক্রি কমেছে। ফলে ক্রেতা কম থাকায় লোকসানের আশঙ্কা করছেন অনেক ব্যবসায়ী। এ কারণে কিছুটা কম দামে হলেও মৌসুমের আগে হাতে থাকা পেঁয়াজ দ্রুত বিক্রি করতে চান।

দেশি মুড়িকাটা আগাম জাতের পেঁয়াজ আরও দুই সপ্তাহ পরে পুরোপুরি আসবে। তবে এখন ভালো দামের আশায় কিছুটা অপরিপকস্ফ পেঁয়াজ নিয়ে কারওয়ান বাজারে এসেছেন কৃষক মমিন সরকার।

তিনি বলেন, এবার বৃষ্টিতে পেঁয়াজ কিছুটা নষ্ট হয়েছে। তবে বৃষ্টির পর আবাদ বেড়েছে। এতে পেঁয়াজের উৎপাদন ভালো হবে।

বুধবার রাজধানীর খুচরা বাজার মোহাম্মদপুর টাউনহল ও মিরপুর শাহআলী বাজার ঘুরে দেখা গেছে, খুচরায় কিছু দোকানি এখনও চড়া দামেই বিক্রি করছেন। দেশি পেঁয়াজ ৮৫ থেকে ৯০ টাকা ও ভারতীয় পেঁয়াজ ৬৫ থেকে ৭০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। খুচরায় পেঁয়াজের দাম আগামী সপ্তাহে কমতে পারে বলে জানান বিক্রেতারা।

বিডিপ্রেস/মিঠু

স্পটলাইট