BDpress

অন্তর্বর্তীকালীন কোচের দৌড়ে এগিয়ে সুজন

ক্রীড়া ডেস্ক

অ+ অ-
অন্তর্বর্তীকালীন কোচের দৌড়ে এগিয়ে সুজন
চন্ডিকা হাথুরুসিংহের প্রধান কোচের পদ থেকে পদত্যাগ করার পর থেকেই গুঞ্জন বাংলাদেশ দলের অন্তর্বর্তীকালীন কোচ হতে যাচ্ছেন সাবেক অধিনায়ক খালেদ মাহমুদ সুজন। আর সংবাদ সম্মেলনে অনেকবারই এ পদের জন্য নিজেও তৈরি আছেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

এবার সে গুঞ্জনের আগুনে ফুলকি জ্বালালেন খোদ বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনও। অন্তর্বর্তীকালীন কোচের দৌড়ে সুজনই এগিয়ে আছেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সোমবার হাথুরুসিংহের সর্বশেষ অবস্থান নিয়ে কথা বলেন পাপন। জানালেন হাথুরুর জন্য আর অপেক্ষা করছেন না তারা। তাই খুব শিগগিরি একজন অন্তর্বর্তীকালীন কোচ নিয়োগ দেওয়া হবে বলে জানান তিনি, ‘হাথুরুসিংহের জন্য আমরা অপেক্ষা করছি না। অপেক্ষা করছি তার রিপোর্টের জন্য। শ্রীলঙ্কা সিরিজ শুরু হওয়ার আগে আমরা যদি বাইরের কোচ না আনি তাহলে অবশ্যই আমাদের স্থানীয় কোচ হবে। আমাদের খালেদ মাহমুদ সুজন আছে। তার সম্ভাবনাই সবচেয়ে বেশি।’

তবে হুট করে দায়িত্ব ছাড়ার কোন কারণ এখনও জানাননি হাথুরু। পদত্যাগপত্র জমা দেওয়ার পর থেকেই তার অপেক্ষায় আছে বিসিবি। তবে জোর করে তাকে ধরে রাখবেন না বলে আরও একবার জানালেন পাপন, ‘আমি আগেও বলেছি কেউ যদি থাকতে না চায়, তাকে আমরা জোড় করে রাখতে চাই না। আমি ব্যক্তিগত ভাবে তাই মনে করি। সেটা করা উচিত হবে না। আমরা সেদিকে যাইনি। তবে তার কাছ থেকে কিছু জিনিস জানা দরকার। একজন পেশাদার কোচ হিসেবে সে সব সময় যা করে, পুরো সিরিজের রিপোর্ট এবং পদত্যাগের কারন জানা দরকার। এখন সে যদি মনে করে কোন কারন ছাড়া শ্রীলঙ্কা দলের কোচের দায়িত্ব পালন করবেন, সেটা ভিন্ন ইস্যু। সেটা তার মুখ থেকে জানা দরকার।’

এদিকে হাথুরুর সঙ্গে কথা হয়েছে প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন সুজনের সঙ্গে। তার সঙ্গে কিছু কথা বলেছেন তিনি। বাংলাদেশে আসবেন বলেও প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তিনি। এখনও তার পদত্যাগের কারণ জানার অপেক্ষায় রয়েছেন বলেই জানালেন পাপন, ‘একদম পরিষ্কার কিছু বলেছে সেটা নয়, এইজন্যই আমরা তার আসার অপেক্ষা করছিলাম। সে বলুক, কেন সে এই সিদ্ধান্তটা নিয়েছে। ২-১ দিনের মধ্যেই তার আসার কথা ছিল। সিইওর সঙ্গে কথা হয়েছে, সে জানিয়েছে কয়েকদিন পরে আসবে।’

এদিকে সিনিয়র খেলোয়াড়দের সঙ্গে দ্বন্দ্বের কারণে হাথুরু পদত্যাগ জোর গুঞ্জন। তবে সে গুঞ্জনও উড়িয়ে দিলেন পাপন, ‘সমস্যা আছে এটা মিডিয়াতেই বেশি আসতো। আমাকে জিজ্ঞেস করলে আমি বলবো, গত কয়েক বছরে আমি কোন সমস্যাই দেখিনি। সিনিয়র খেলোয়াড় বলতে আমরা পাঁচজনকে ধরি। এখানে মাশরাফি-তামিম-সাকিব কাছে কখনোই শুনিনি সমস্যা আছে। রিয়াদের তো কার সঙ্গেই কোন সমস্যা নেই। একটা থাকতে পারে, যেহেতু মুশফিকের কয়েকটা স্টেটমেন্ট কিছু কথা হয়েছে। এই সিরিজেও হয়েছে। তারপরও আমার মনে হয় কোন সমস্যা থাকার কথা নয়।’

বিডিপ্রেস/আরজে

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

অন্তর্বর্তীকালীন কোচের দৌড়ে এগিয়ে সুজন


অন্তর্বর্তীকালীন কোচের দৌড়ে এগিয়ে সুজন

এবার সে গুঞ্জনের আগুনে ফুলকি জ্বালালেন খোদ বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনও। অন্তর্বর্তীকালীন কোচের দৌড়ে সুজনই এগিয়ে আছেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সোমবার হাথুরুসিংহের সর্বশেষ অবস্থান নিয়ে কথা বলেন পাপন। জানালেন হাথুরুর জন্য আর অপেক্ষা করছেন না তারা। তাই খুব শিগগিরি একজন অন্তর্বর্তীকালীন কোচ নিয়োগ দেওয়া হবে বলে জানান তিনি, ‘হাথুরুসিংহের জন্য আমরা অপেক্ষা করছি না। অপেক্ষা করছি তার রিপোর্টের জন্য। শ্রীলঙ্কা সিরিজ শুরু হওয়ার আগে আমরা যদি বাইরের কোচ না আনি তাহলে অবশ্যই আমাদের স্থানীয় কোচ হবে। আমাদের খালেদ মাহমুদ সুজন আছে। তার সম্ভাবনাই সবচেয়ে বেশি।’

তবে হুট করে দায়িত্ব ছাড়ার কোন কারণ এখনও জানাননি হাথুরু। পদত্যাগপত্র জমা দেওয়ার পর থেকেই তার অপেক্ষায় আছে বিসিবি। তবে জোর করে তাকে ধরে রাখবেন না বলে আরও একবার জানালেন পাপন, ‘আমি আগেও বলেছি কেউ যদি থাকতে না চায়, তাকে আমরা জোড় করে রাখতে চাই না। আমি ব্যক্তিগত ভাবে তাই মনে করি। সেটা করা উচিত হবে না। আমরা সেদিকে যাইনি। তবে তার কাছ থেকে কিছু জিনিস জানা দরকার। একজন পেশাদার কোচ হিসেবে সে সব সময় যা করে, পুরো সিরিজের রিপোর্ট এবং পদত্যাগের কারন জানা দরকার। এখন সে যদি মনে করে কোন কারন ছাড়া শ্রীলঙ্কা দলের কোচের দায়িত্ব পালন করবেন, সেটা ভিন্ন ইস্যু। সেটা তার মুখ থেকে জানা দরকার।’

এদিকে হাথুরুর সঙ্গে কথা হয়েছে প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন সুজনের সঙ্গে। তার সঙ্গে কিছু কথা বলেছেন তিনি। বাংলাদেশে আসবেন বলেও প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তিনি। এখনও তার পদত্যাগের কারণ জানার অপেক্ষায় রয়েছেন বলেই জানালেন পাপন, ‘একদম পরিষ্কার কিছু বলেছে সেটা নয়, এইজন্যই আমরা তার আসার অপেক্ষা করছিলাম। সে বলুক, কেন সে এই সিদ্ধান্তটা নিয়েছে। ২-১ দিনের মধ্যেই তার আসার কথা ছিল। সিইওর সঙ্গে কথা হয়েছে, সে জানিয়েছে কয়েকদিন পরে আসবে।’

এদিকে সিনিয়র খেলোয়াড়দের সঙ্গে দ্বন্দ্বের কারণে হাথুরু পদত্যাগ জোর গুঞ্জন। তবে সে গুঞ্জনও উড়িয়ে দিলেন পাপন, ‘সমস্যা আছে এটা মিডিয়াতেই বেশি আসতো। আমাকে জিজ্ঞেস করলে আমি বলবো, গত কয়েক বছরে আমি কোন সমস্যাই দেখিনি। সিনিয়র খেলোয়াড় বলতে আমরা পাঁচজনকে ধরি। এখানে মাশরাফি-তামিম-সাকিব কাছে কখনোই শুনিনি সমস্যা আছে। রিয়াদের তো কার সঙ্গেই কোন সমস্যা নেই। একটা থাকতে পারে, যেহেতু মুশফিকের কয়েকটা স্টেটমেন্ট কিছু কথা হয়েছে। এই সিরিজেও হয়েছে। তারপরও আমার মনে হয় কোন সমস্যা থাকার কথা নয়।’

বিডিপ্রেস/আরজে