BDpress

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের উৎক্ষেপণ পেছাল

নিজস্ব প্রতিবেদক

অ+ অ-
বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের উৎক্ষেপণ পেছাল
‘বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১’ এর উৎক্ষেপণের সময় পেছাল। আগে বাংলাদেশের প্রথম এ স্যাটেলাইটের উৎক্ষেপণ সময় নির্ধারণ করা হয়েছিল ১৬ ডিসেম্বর। কিন্তু বুধবার বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ রেগুলেটরি কমিশনের (বিটিআরসি) চেয়ারম্যান শাহজাহান মাহমুদ জানিয়েছেন, মার্চ মাসের কোনো এক সময় স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করা হবে।

অপরদিকে একই দিন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম জানিয়েছেন, সুনির্দিষ্ট হওয়ার আগে তিনি উৎক্ষেপণের তারিখ জানাতে রাজি নন।

বুধবার বিটিআরসি কার্যালয়ে টেলিকম খাত কাভার করা সাংবাদিকদের সংগঠন টিআরএনবির (টেলিকম রিপোর্টার্স নেটওয়ার্ক বাংলাদেশ) নবগঠিত কমিটির সঙ্গে মতবিনিময়ের সময় বিটিআরসি’র চেয়ারম্যান বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের নির্মাণ কাজ পুরোপুরি শেষ হয়েছে। এখন উৎক্ষেপণের অপেক্ষা। মার্চের কোনো এক সময় উৎক্ষেপণ করা হবে বলে আমরা আশা করছি।’

আগামী ১৬ ডিসেম্বর যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের কেপ ক্যানাভেরাল থেকে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করার কথা ছিল। উৎক্ষেপণের দায়িত্বে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের বেসরকারি মহাকাশ অনুসন্ধান ও প্রযুক্তি কোম্পানি ‘স্পেসএক্স’। কিন্তু হারিকেন ‘ইরমা’র কারণে উৎক্ষেপণ কেন্দ্র ক্ষতিগ্রস্ত হয়। অন্যান্য দেশের স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণও বন্ধ হয়ে যায়।

অপরদিকে বুধবার সচিবালয়ে ফোর-জি নিয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের বিষয়ে জানতে চাইলে ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমরা প্রস্তুত হয়ে বসে আছি। ফ্লোরিডায় ইরমা ঝড়ের কারণে সিডিউলের একটু সমস্যা হয়েছে। আমাদের আগের যে স্যাটেলাইটগুলো উৎক্ষেপণের কথা ছিল সেগুলোও ডিলে (বিলম্ব) হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের স্যাটেলাইটের নির্মাণ কাজ শতভাগ সম্পন্ন ও হস্তান্তরও হয়ে গেছে। শিপমেন্ট শুরু হয়ে গেছে। অর্থাৎ এটি এখন লঞ্চিং প্যাডে চলে যাবে।’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘ঘূর্ণিঝড়ের কারণে অন্যগুলো পিছিয়ে গেছে, তারা ১৫ দিন পর পর উৎক্ষেপণের চেষ্টা করছে। বিটিআরসি চেয়ারম্যান মহোদয় বলেছেন মার্চে, আমি মনে করি এ বিষয়টি আমাদের আরেকটু বিশ্লেষণ করে...আমি চাই একেবারে সঠিক মাসটি যেন আপনাদের বলতে পারি। সেই ক্ষেত্রে আমাদের আগের যে লঞ্চিং সেটি হলে আমরা সাতদিনের স্লট পেয়ে যাবো। সেই স্লট পেলে আপনাদের জানাবো।

তারানা হালিম বলেন, ‘(উৎক্ষেপণের জন্য) ওয়ান মান্থের একটা উইন্ডো দেয়, ফেব্রুয়ারি টু মার্চ তারা একটা উইন্ডো দিয়েছে আমাদের। আমরা আরো নির্দিষ্ট করে দিতে চাই, দোয়া করবেন যেন আর যেন ঘড়-ঝঞ্জা না হয়।’

বিডিপ্রেস/আরজে

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের উৎক্ষেপণ পেছাল


বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের উৎক্ষেপণ পেছাল

অপরদিকে একই দিন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম জানিয়েছেন, সুনির্দিষ্ট হওয়ার আগে তিনি উৎক্ষেপণের তারিখ জানাতে রাজি নন।

বুধবার বিটিআরসি কার্যালয়ে টেলিকম খাত কাভার করা সাংবাদিকদের সংগঠন টিআরএনবির (টেলিকম রিপোর্টার্স নেটওয়ার্ক বাংলাদেশ) নবগঠিত কমিটির সঙ্গে মতবিনিময়ের সময় বিটিআরসি’র চেয়ারম্যান বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের নির্মাণ কাজ পুরোপুরি শেষ হয়েছে। এখন উৎক্ষেপণের অপেক্ষা। মার্চের কোনো এক সময় উৎক্ষেপণ করা হবে বলে আমরা আশা করছি।’

আগামী ১৬ ডিসেম্বর যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের কেপ ক্যানাভেরাল থেকে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করার কথা ছিল। উৎক্ষেপণের দায়িত্বে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের বেসরকারি মহাকাশ অনুসন্ধান ও প্রযুক্তি কোম্পানি ‘স্পেসএক্স’। কিন্তু হারিকেন ‘ইরমা’র কারণে উৎক্ষেপণ কেন্দ্র ক্ষতিগ্রস্ত হয়। অন্যান্য দেশের স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণও বন্ধ হয়ে যায়।

অপরদিকে বুধবার সচিবালয়ে ফোর-জি নিয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের বিষয়ে জানতে চাইলে ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমরা প্রস্তুত হয়ে বসে আছি। ফ্লোরিডায় ইরমা ঝড়ের কারণে সিডিউলের একটু সমস্যা হয়েছে। আমাদের আগের যে স্যাটেলাইটগুলো উৎক্ষেপণের কথা ছিল সেগুলোও ডিলে (বিলম্ব) হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের স্যাটেলাইটের নির্মাণ কাজ শতভাগ সম্পন্ন ও হস্তান্তরও হয়ে গেছে। শিপমেন্ট শুরু হয়ে গেছে। অর্থাৎ এটি এখন লঞ্চিং প্যাডে চলে যাবে।’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘ঘূর্ণিঝড়ের কারণে অন্যগুলো পিছিয়ে গেছে, তারা ১৫ দিন পর পর উৎক্ষেপণের চেষ্টা করছে। বিটিআরসি চেয়ারম্যান মহোদয় বলেছেন মার্চে, আমি মনে করি এ বিষয়টি আমাদের আরেকটু বিশ্লেষণ করে...আমি চাই একেবারে সঠিক মাসটি যেন আপনাদের বলতে পারি। সেই ক্ষেত্রে আমাদের আগের যে লঞ্চিং সেটি হলে আমরা সাতদিনের স্লট পেয়ে যাবো। সেই স্লট পেলে আপনাদের জানাবো।

তারানা হালিম বলেন, ‘(উৎক্ষেপণের জন্য) ওয়ান মান্থের একটা উইন্ডো দেয়, ফেব্রুয়ারি টু মার্চ তারা একটা উইন্ডো দিয়েছে আমাদের। আমরা আরো নির্দিষ্ট করে দিতে চাই, দোয়া করবেন যেন আর যেন ঘড়-ঝঞ্জা না হয়।’

বিডিপ্রেস/আরজে