BDpress

শাজনীন হত্যার আসামি শহীদুলের ফাঁসি রাতে

নিজস্ব প্রতিবেদক

অ+ অ-
শাজনীন হত্যার আসামি শহীদুলের ফাঁসি রাতে
ট্রান্সকম গ্রুপের চেয়ারম্যান লতিফুর রহমানের মেয়ে শাজনীন তাসনিম রহমান হত্যা মামলায় গৃহকর্মী শহীদুল ইসলাম শহীদের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হবে বুধবার রাতে। কাশিমপুর কারাগারের জেলার মিজানুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।এরআগে গত ৫ মার্চ ট্রান্সকম গ্রুপের চেয়ারম্যান লতিফুর রহমানের মেয়ে শাজনীনকে ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় গৃহকর্মী শহীদুলের মৃত্যুদণ্ডের রায় পুনর্বিবেচনার (রিভিউ) আবেদন খারিজ করে দেন আপিল বিভাগ।

গত ২ আগস্ট আসামিদের মধ্যে শহীদুলের ফাঁসির রায় বহাল রেখে আদেশ দেন আপিল বিভাগ। বাকি চারজনকে খালাস দেওয়া হয়।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ১৯৯৮ সালের ২৩ এপ্রিল রাতে গুলশানে নিজ বাড়িতে খুন হন শাজনীন। পরদিন শাজনীনের বাবা লতিফুর রহমান গুলশান থানায় দণ্ডবিধির ৩০২ ধারায় একটি হত্যা মামলা করেন। একই বছরের ৪ সেপ্টেম্বর ওই ঘটনায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি ধর্ষণ ও হত্যা মামলা করে সিআইডি।

তদন্ত শেষে প্রথম মামলায় ঢাকার অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ আদালত-১ এবং দ্বিতীয় মামলায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ। দুটি মামলাতেই আদালত অভিযোগ গঠন করেন।

পরে ২০০৩ সালের ২ সেপ্টেম্বর ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতের বিচারক কাজী রহমতউল্লাহ মামলাটির রায় ঘোষণা করেন। রায়ে শাজনীনকে ধর্ষণ ও খুনের পরিকল্পনা এবং সহযোগিতার দায়ে ছয় আসামির ফাঁসির আদেশ দেন আদালত।

বিচারিক আদালতের রায়ের পর মৃত্যুদণ্ড অনুমোদনের (ডেথ রেফারেন্স) জন্য মামলাটি হাইকোর্টে যায়। একই সঙ্গে আসামিরাও আপিল করেন। ২০০৬ সালের ১০ জুলাই হাইকোর্ট পাঁচ আসামি হাসান, শহীদ, বাদল, মিনু ও পারভীনের ফাঁসির আদেশ বহাল রাখেন।

এরপর হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে আপিলের অনুমতি চেয়ে আবেদন (লিভ টু আপিল) করেন চার আসামি- হাসান, বাদল, মিনু ও পারভীন। আপিলে তারা খালাস পান। 

বিডিপ্রেস/আরজে

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

শাজনীন হত্যার আসামি শহীদুলের ফাঁসি রাতে


শাজনীন হত্যার আসামি শহীদুলের ফাঁসি রাতে

গত ২ আগস্ট আসামিদের মধ্যে শহীদুলের ফাঁসির রায় বহাল রেখে আদেশ দেন আপিল বিভাগ। বাকি চারজনকে খালাস দেওয়া হয়।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ১৯৯৮ সালের ২৩ এপ্রিল রাতে গুলশানে নিজ বাড়িতে খুন হন শাজনীন। পরদিন শাজনীনের বাবা লতিফুর রহমান গুলশান থানায় দণ্ডবিধির ৩০২ ধারায় একটি হত্যা মামলা করেন। একই বছরের ৪ সেপ্টেম্বর ওই ঘটনায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি ধর্ষণ ও হত্যা মামলা করে সিআইডি।

তদন্ত শেষে প্রথম মামলায় ঢাকার অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ আদালত-১ এবং দ্বিতীয় মামলায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ। দুটি মামলাতেই আদালত অভিযোগ গঠন করেন।

পরে ২০০৩ সালের ২ সেপ্টেম্বর ঢাকার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতের বিচারক কাজী রহমতউল্লাহ মামলাটির রায় ঘোষণা করেন। রায়ে শাজনীনকে ধর্ষণ ও খুনের পরিকল্পনা এবং সহযোগিতার দায়ে ছয় আসামির ফাঁসির আদেশ দেন আদালত।

বিচারিক আদালতের রায়ের পর মৃত্যুদণ্ড অনুমোদনের (ডেথ রেফারেন্স) জন্য মামলাটি হাইকোর্টে যায়। একই সঙ্গে আসামিরাও আপিল করেন। ২০০৬ সালের ১০ জুলাই হাইকোর্ট পাঁচ আসামি হাসান, শহীদ, বাদল, মিনু ও পারভীনের ফাঁসির আদেশ বহাল রাখেন।

এরপর হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে আপিলের অনুমতি চেয়ে আবেদন (লিভ টু আপিল) করেন চার আসামি- হাসান, বাদল, মিনু ও পারভীন। আপিলে তারা খালাস পান। 

বিডিপ্রেস/আরজে

প্রত্নতত্ত্ব অধিদফতরের আয় সরকারকে না দেয়ার সুপারিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক

অ+ অ-
প্রত্নতত্ত্ব অধিদফতরের আয় সরকারকে না দেয়ার সুপারিশ
প্রত্নতত্ত্ব অধিদফতরের আয় সরকারের কোষাগারে জমা না করার সুপারিশ করেছে সংসদীয় কমিটি। এ আয়ের একটি অংশ সংস্থাটির নিজস্ব উন্নয়ন ও সংস্কার কাজে ব্যয় করার জন্য অর্থ ব্যয়ের খসড়া তৈরি করে অর্থ মন্ত্রণালয়ে পাঠানোর কথা সুপারিশে বলা হয়েছে।

বুধবার জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির ২৫ ও ২৬তম বৈঠকে এই সুপারিশ করা হয়। কমিটির সভাপতি সিমিন হোসেনের (রিমি) সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, মনোরঞ্জন শীল গোপাল, পংকজ নাথ এবং পিনু খান বৈঠকে অংশ নেন।

বৈঠকে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১৯৭১ সালের ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্য হিসেবে ইউনেস্কোর মেমোরি অফ দ্য ওয়ার্ল্ড ইন্টারন্যাশনাল রেজিস্ট্রারে যুক্ত হওয়ায় বঙ্গবন্ধুর প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা ও ইউনেস্কোকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করা হয়।

বিডিপ্রেস/আরজে

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

প্রত্নতত্ত্ব অধিদফতরের আয় সরকারকে না দেয়ার সুপারিশ


প্রত্নতত্ত্ব অধিদফতরের আয় সরকারকে না দেয়ার সুপারিশ

বুধবার জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির ২৫ ও ২৬তম বৈঠকে এই সুপারিশ করা হয়। কমিটির সভাপতি সিমিন হোসেনের (রিমি) সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটির সদস্য সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, মনোরঞ্জন শীল গোপাল, পংকজ নাথ এবং পিনু খান বৈঠকে অংশ নেন।

বৈঠকে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ১৯৭১ সালের ৭ মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণ বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্য হিসেবে ইউনেস্কোর মেমোরি অফ দ্য ওয়ার্ল্ড ইন্টারন্যাশনাল রেজিস্ট্রারে যুক্ত হওয়ায় বঙ্গবন্ধুর প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা ও ইউনেস্কোকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করা হয়।

বিডিপ্রেস/আরজে