BDpress

‘বিশ্ববিদ্যালয়গুলো অর্থ বরাদ্দ চায়নি তাই পায়নি’

জেলা প্রতিবেদক

অ+ অ-
‘বিশ্ববিদ্যালয়গুলো অর্থ বরাদ্দ চায়নি তাই পায়নি’
বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের (ইউজিসি) চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান বলেছেন, দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর উন্নয়ন খাতে সরকার গত আট বছরে প্রায় আট হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ রেখেছে। কিন্তু সত্যিকার অর্থে বলতে গেলে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো এর কানাকড়িও পায়নি। বরাদ্দ না পাওয়ার কারণ বিশ্ববিদ্যালয়গুলো বরাদ্দ চায়নি, তাই তারা বরাদ্দ পায়নি। টাকা না চাইলে কেউ তো আর নিজ থেকে টাকা দেবে না।

শনিবার বেলা ১১টায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসাববিজ্ঞান ও তথ্য ব্যবস্থা বিভাগের দু’দিনব্যাপী অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের প্রথম পুনর্মিলনীর আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) কাজী নজরুল ইসলাম মিলনায়তনে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

অধ্যাপক আবদুল মান্নান বলেন, সরকার আপনাকে নিজের ইচ্ছাতে টাকা দেবে বেতন দেয়ার জন্য, ফার্নিচার তৈরি জন্য। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয়ের বিল্ডিং বানানোর জন্য টাকা তো আপনাকেই চাইতে হবে।

সাবেক শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে অধ্যাপক আবদুল মান্নান বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের ভালো-মন্দ আপনাদের ওপর নির্ভর করছে। নিজ নিজ অবস্থান থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কল্যাণের জন্য সর্বোচ্চটুকু দেয়ার চেষ্টা করবেন।

হিসাব বিজ্ঞান ও তথ্য ব্যবস্থা বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক সালমা বানুর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা, রাজশাহী-৩ আসনের সাংসদ আয়েন উদ্দীন প্রমুখ।

এর আগে সকাল ৯ টায় শহীদ ড. শামসুজ্জোহার সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় দিনের কর্মসূচি শুরু হয়।

সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজী নজরুল ইসলাম মিলনায়তন চত্বরে পতাকা উত্তোলন ও স্মারক ফেস্টুন উড়িয়ে কর্মসূচির উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান ও বিশেষ অতিথি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান।

সকাল সাড়ে ১০টায় মিলনায়ন থেকে বিভাগের প্রাক্তন ও বর্তমান শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের নিয়ে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি ক্যাম্পাসের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে একই স্থানে গিয়ে আলোচনা সভায় মিলিত হয়।

আলোচনা সভা শেষে দুপুর দেড়টায় একই স্থানে অনুষ্ঠিত হয় অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়শেন সাধারণ সভা। বিকেল ৩টায় অনুষ্ঠিত হয় প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের নিয়ে স্মৃতিচারণ ও র্যাফেল ড্র। পরে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

বিডিপ্রেস/আরজে

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

‘বিশ্ববিদ্যালয়গুলো অর্থ বরাদ্দ চায়নি তাই পায়নি’


‘বিশ্ববিদ্যালয়গুলো অর্থ বরাদ্দ চায়নি তাই পায়নি’

শনিবার বেলা ১১টায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসাববিজ্ঞান ও তথ্য ব্যবস্থা বিভাগের দু’দিনব্যাপী অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের প্রথম পুনর্মিলনীর আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) কাজী নজরুল ইসলাম মিলনায়তনে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

অধ্যাপক আবদুল মান্নান বলেন, সরকার আপনাকে নিজের ইচ্ছাতে টাকা দেবে বেতন দেয়ার জন্য, ফার্নিচার তৈরি জন্য। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয়ের বিল্ডিং বানানোর জন্য টাকা তো আপনাকেই চাইতে হবে।

সাবেক শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে অধ্যাপক আবদুল মান্নান বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের ভালো-মন্দ আপনাদের ওপর নির্ভর করছে। নিজ নিজ অবস্থান থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কল্যাণের জন্য সর্বোচ্চটুকু দেয়ার চেষ্টা করবেন।

হিসাব বিজ্ঞান ও তথ্য ব্যবস্থা বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক সালমা বানুর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা, রাজশাহী-৩ আসনের সাংসদ আয়েন উদ্দীন প্রমুখ।

এর আগে সকাল ৯ টায় শহীদ ড. শামসুজ্জোহার সমাধিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় দিনের কর্মসূচি শুরু হয়।

সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজী নজরুল ইসলাম মিলনায়তন চত্বরে পতাকা উত্তোলন ও স্মারক ফেস্টুন উড়িয়ে কর্মসূচির উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান ও বিশেষ অতিথি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান।

সকাল সাড়ে ১০টায় মিলনায়ন থেকে বিভাগের প্রাক্তন ও বর্তমান শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের নিয়ে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি ক্যাম্পাসের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে একই স্থানে গিয়ে আলোচনা সভায় মিলিত হয়।

আলোচনা সভা শেষে দুপুর দেড়টায় একই স্থানে অনুষ্ঠিত হয় অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়শেন সাধারণ সভা। বিকেল ৩টায় অনুষ্ঠিত হয় প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের নিয়ে স্মৃতিচারণ ও র্যাফেল ড্র। পরে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

বিডিপ্রেস/আরজে