BDpress

ক্যান্সার আক্রান্ত সতীর্থের ভিডিও দেখতে চাননি মেসি

ক্রীড়া ডেস্ক

অ+ অ-
ক্যান্সার আক্রান্ত সতীর্থের ভিডিও দেখতে চাননি মেসি
বার্সেলোনা ডিফেন্ডার এরিক আবিদালের শরীরে ক্যান্সার ধরা পড়েছিল। হাসপাতালের বিছানায় শুয়েও ক্লাব, সতীর্থদের নিয়ে চিন্তা করতেন। তাদের উজ্জীবিত করতে ভিডিও তৈরি করে পাঠাতেন।

কিন্তু সেসব দেখতে চাননি বার্সেলোনারই আরেক খেলোয়াড় লিওনেল মেসি। তিনি আবিদালকে এসব ভিডিও পাঠাতেও নিষেধ করে দেন। কারণ হিসেবে মেসি বলেন, এসব দেখলে বার্সেলোনার খেলোয়াড়রা অনেক বেশি হতাশ হয়।

২০১১ সালে আবিদালের লিভারে ক্যান্সার ধরা পড়ে। সম্প্রতি দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ফ্রান্সের পেশাদার এ ফুটবলার জীবন কঠিন সময়গুলো নিয়ে কথা বলেছেন।

ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই নিয়ে তিনি বলেন, 'এ যন্ত্রণা আমি সারা জীবন মনে রাখবো। একবার আগে আমি খুব রোগা হয়ে যাই। আমি একটি ভিডিও তৈরি করি এবং খেলোয়াড়দের উদ্ধুদ্ধ করতে তাদের পাঠিয়ে দিই। শুনবেন মেসি আমাকে কী বলেছিল? সে বলেছে আর এরকম কিছু পাঠিও না। এগুলো দেখলে আমরা কষ্ট পাই। কিন্তু আমি বিষয়টিকে সেভাবে দেখি না। তাদের উৎসাহিত করতেই এটা করেছিলাম। কিন্তু তারা নাকি এতে হতাশ হয়েছে।' সূত্র : মার্কা

বিডিপ্রেস/আলী

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

ক্যান্সার আক্রান্ত সতীর্থের ভিডিও দেখতে চাননি মেসি


ক্যান্সার আক্রান্ত সতীর্থের ভিডিও দেখতে চাননি মেসি

কিন্তু সেসব দেখতে চাননি বার্সেলোনারই আরেক খেলোয়াড় লিওনেল মেসি। তিনি আবিদালকে এসব ভিডিও পাঠাতেও নিষেধ করে দেন। কারণ হিসেবে মেসি বলেন, এসব দেখলে বার্সেলোনার খেলোয়াড়রা অনেক বেশি হতাশ হয়।

২০১১ সালে আবিদালের লিভারে ক্যান্সার ধরা পড়ে। সম্প্রতি দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ফ্রান্সের পেশাদার এ ফুটবলার জীবন কঠিন সময়গুলো নিয়ে কথা বলেছেন।

ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াই নিয়ে তিনি বলেন, 'এ যন্ত্রণা আমি সারা জীবন মনে রাখবো। একবার আগে আমি খুব রোগা হয়ে যাই। আমি একটি ভিডিও তৈরি করি এবং খেলোয়াড়দের উদ্ধুদ্ধ করতে তাদের পাঠিয়ে দিই। শুনবেন মেসি আমাকে কী বলেছিল? সে বলেছে আর এরকম কিছু পাঠিও না। এগুলো দেখলে আমরা কষ্ট পাই। কিন্তু আমি বিষয়টিকে সেভাবে দেখি না। তাদের উৎসাহিত করতেই এটা করেছিলাম। কিন্তু তারা নাকি এতে হতাশ হয়েছে।' সূত্র : মার্কা

বিডিপ্রেস/আলী