BDpress

বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের দাম উর্দ্ধমূখী

নিজস্ব প্রতিবেদক

অ+ অ-
বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের দাম উর্দ্ধমূখী
বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের দাম বেড়ে প্রতি ব্যারেল ৬৫ ডলার ছুঁয়েছে। তবে বাজার বিশ্লেষকরা জানিয়েছেন আগামী পাঁচ বছরে যুক্তরাষ্ট্র জ্বালানি তেলের উৎপাদন আরও বাড়াবে; ফলে সামগ্রিকভাবে জ্বালানি তেলের বাজার নিম্নমুখীই থাকবে।

সোমবার আন্তর্জাতিক বাজারে বেঞ্চমার্ক অশোধিত ব্রেন্ট তেলের দাম ০.৬ শতাংশ বেড়ে প্রতি ব্যারেল হয় ৬৪.৭৩ ডলার। অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্রের ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েট তেলের দাম ০.৭ শতাংশ বেড়ে প্রতি ব্যারেল বিক্রি হয় ৬১.৬৭ ডলার।
এদিকে সোমবার আন্তর্জাতিক জ্বালানি সংস্থার (আইইএ) পূর্বাভাসে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের জ্বালানি তেল উৎপাদন ব্যাপকভাবে বাড়ছে। ২০২৩ সাল নাগাদ দেশটি দৈনিক প্রায় ১৭ মিলিয়ন ব্যারেল তেল উৎপাদন করবে। যেখানে গত বছর দৈনিক গড় উৎপাদন ছিল ১৩.২ মিলিয়ন ব্যারেল।
তারা আরও জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র, ব্রাজিল, কানাডা এবং নরওয়ে থেকে বিশ্ববাজারে তেল সরবরাহ বাড়বে। ২০২০ সাল নাগাদ এ তেল বিশ্ব চাহিদাকে ছাড়িয়ে যাবে। এতে করে ২০২৩ সাল পর্যন্ত বিশ্বে জ্বালানি তেল উৎপাদনে প্রবৃদ্ধি হবে ১.১ শতাংশ করে। এ ক্ষেত্রে ওপেক তাদের উৎপাদন বাড়াতে ব্যর্থ হবে।
উল্লেখ্য বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্র প্রতিদিন ১০.৬০ মিলিয়ন ব্যারেল অশোধিত তেল উৎপাদন করছে। যা বিশ্বের শীর্ষ তেল রফতানিকারক দেশ সৌদি আরবের চেয়েও বেশি। সৌদি আরব বর্তমানে দৈনিক ১০.২৮ মিলিয়ন ব্যারেল তেল উৎপাদন করে।

খবর রয়টার্স

বিডিপ্রেস/জিএম

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের দাম উর্দ্ধমূখী


বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের দাম উর্দ্ধমূখী

সোমবার আন্তর্জাতিক বাজারে বেঞ্চমার্ক অশোধিত ব্রেন্ট তেলের দাম ০.৬ শতাংশ বেড়ে প্রতি ব্যারেল হয় ৬৪.৭৩ ডলার। অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্রের ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েট তেলের দাম ০.৭ শতাংশ বেড়ে প্রতি ব্যারেল বিক্রি হয় ৬১.৬৭ ডলার।
এদিকে সোমবার আন্তর্জাতিক জ্বালানি সংস্থার (আইইএ) পূর্বাভাসে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের জ্বালানি তেল উৎপাদন ব্যাপকভাবে বাড়ছে। ২০২৩ সাল নাগাদ দেশটি দৈনিক প্রায় ১৭ মিলিয়ন ব্যারেল তেল উৎপাদন করবে। যেখানে গত বছর দৈনিক গড় উৎপাদন ছিল ১৩.২ মিলিয়ন ব্যারেল।
তারা আরও জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র, ব্রাজিল, কানাডা এবং নরওয়ে থেকে বিশ্ববাজারে তেল সরবরাহ বাড়বে। ২০২০ সাল নাগাদ এ তেল বিশ্ব চাহিদাকে ছাড়িয়ে যাবে। এতে করে ২০২৩ সাল পর্যন্ত বিশ্বে জ্বালানি তেল উৎপাদনে প্রবৃদ্ধি হবে ১.১ শতাংশ করে। এ ক্ষেত্রে ওপেক তাদের উৎপাদন বাড়াতে ব্যর্থ হবে।
উল্লেখ্য বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্র প্রতিদিন ১০.৬০ মিলিয়ন ব্যারেল অশোধিত তেল উৎপাদন করছে। যা বিশ্বের শীর্ষ তেল রফতানিকারক দেশ সৌদি আরবের চেয়েও বেশি। সৌদি আরব বর্তমানে দৈনিক ১০.২৮ মিলিয়ন ব্যারেল তেল উৎপাদন করে।

খবর রয়টার্স

বিডিপ্রেস/জিএম