BDpress

ফের বরখাস্ত নন্দীগ্রাম উপজেলা চেয়ারম্যান

জেলা প্রতিবেদক

অ+ অ-
ফের বরখাস্ত নন্দীগ্রাম উপজেলা চেয়ারম্যান
বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এবং উপজেলা জামায়াতের আমির নূরুল ইসলাম মন্ডলকে ফের সাময়িক বরখাস্ত করেছে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়।

৪ এপ্রিল স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব ড. জুলিয়া মঈন স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে এ আদেশ জারি করেছেন।

প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়, মন্ত্রণালয় কর্তৃক বরখাস্তের প্রদত্ত আদেশে নন্দীগ্রাম থানা, বগুড়া সদর ও শাজাহাপুর থানায় দায়েরকৃত মামলার অভিযোগপত্র আদালতে গৃহীত হওয়ায় উপজেলা পরিষদ আইন, ১৯৯৮ উপজেলা পরিষদ (সংশোধন) আইন, ২০১১ দ্বারা সংশোধিত- এর ধারা ১৩খ(১) অনুসারে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নূরুল ইসলামকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়।

নন্দীগ্রাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শারমিন আক্তার উপজেলা চেয়ারম্যান আমির নূরুল ইসলাম মন্ডলের সাময়িক বরখাস্তের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, রোববার এ সংক্রান্ত সরকারি আদেশের চিঠি হাতে পেয়েছি।

নন্দীগ্রাম থানা পুলিশের ওসি নাসির উদ্দিন জানান, চাঁদে সাঈদীকে দেখার গুজব ছড়িয়ে ৩ মার্চ উপজেলা পরিষদে হামলা চালিয়ে গান পাউডার ঢেলে সরকারি বিভিন্ন দপ্তর পুড়িয়ে দেয়া হয়। এছাড়া থানায় হামলা চালানো হয়। আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়া হয় তৎকালীন উপজেলা চেয়ারম্যান রেজাউল আশরাফ জিন্নাহ’র বাড়ি। এসব ঘটনায় নূরুল ইসলাম মন্ডলকে প্রধান আসামি করে পাঁচটি মামলা করা হয়েছে। সেসব মামলায় তার বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়েছে এবং মামলাগুলো বিচারাধীন। এছাড়া তার বিরুদ্ধে বগুড়া সদর ও শাজাহানপুর থানায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা রয়েছে।

উল্লেখ্য, এর আগে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এবং উপজেলা জামায়াতের আমির নূরুল ইসলাম মন্ডল একবার বরখাস্ত ও চারবার জেলহাজতে ছিলেন। ওই সময়ে উপজেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান-১ একে আজাদ দায়িত্ব পালন করেছেন।

বিডিপ্রেস/আরজে

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

ফের বরখাস্ত নন্দীগ্রাম উপজেলা চেয়ারম্যান


ফের বরখাস্ত নন্দীগ্রাম উপজেলা চেয়ারম্যান

৪ এপ্রিল স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব ড. জুলিয়া মঈন স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে এ আদেশ জারি করেছেন।

প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়, মন্ত্রণালয় কর্তৃক বরখাস্তের প্রদত্ত আদেশে নন্দীগ্রাম থানা, বগুড়া সদর ও শাজাহাপুর থানায় দায়েরকৃত মামলার অভিযোগপত্র আদালতে গৃহীত হওয়ায় উপজেলা পরিষদ আইন, ১৯৯৮ উপজেলা পরিষদ (সংশোধন) আইন, ২০১১ দ্বারা সংশোধিত- এর ধারা ১৩খ(১) অনুসারে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নূরুল ইসলামকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়।

নন্দীগ্রাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শারমিন আক্তার উপজেলা চেয়ারম্যান আমির নূরুল ইসলাম মন্ডলের সাময়িক বরখাস্তের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, রোববার এ সংক্রান্ত সরকারি আদেশের চিঠি হাতে পেয়েছি।

নন্দীগ্রাম থানা পুলিশের ওসি নাসির উদ্দিন জানান, চাঁদে সাঈদীকে দেখার গুজব ছড়িয়ে ৩ মার্চ উপজেলা পরিষদে হামলা চালিয়ে গান পাউডার ঢেলে সরকারি বিভিন্ন দপ্তর পুড়িয়ে দেয়া হয়। এছাড়া থানায় হামলা চালানো হয়। আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়া হয় তৎকালীন উপজেলা চেয়ারম্যান রেজাউল আশরাফ জিন্নাহ’র বাড়ি। এসব ঘটনায় নূরুল ইসলাম মন্ডলকে প্রধান আসামি করে পাঁচটি মামলা করা হয়েছে। সেসব মামলায় তার বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়েছে এবং মামলাগুলো বিচারাধীন। এছাড়া তার বিরুদ্ধে বগুড়া সদর ও শাজাহানপুর থানায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা রয়েছে।

উল্লেখ্য, এর আগে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এবং উপজেলা জামায়াতের আমির নূরুল ইসলাম মন্ডল একবার বরখাস্ত ও চারবার জেলহাজতে ছিলেন। ওই সময়ে উপজেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান-১ একে আজাদ দায়িত্ব পালন করেছেন।

বিডিপ্রেস/আরজে

স্পটলাইট