BDpress

নিচু এলাকায় ভাসমান সবজি চাষ

জেলা প্রতিবেদক

অ+ অ-
নিচু এলাকায় ভাসমান সবজি চাষ
বাংলাদেশের জলাবদ্ধ অঞ্চলের জন্য কার্যকরী পদ্ধতি হচ্ছে ভাসমান সবজি চাষ। এ পদ্ধতিকে স্থানীয় ভাষায় ধাপ পদ্ধতি বা বেড় পদ্ধতি বলে। পানিতে ভাসমান বলে এটা ভাসমান পদ্ধতি। আর কচুরিপানা দিয়ে ধাপে ধাপে সাজানো হয় বলে ধাপ পদ্ধতি।

এটি জোয়ারের পানিতে ভাসে, আর ভাটায় জেগে ওঠে। ভাসমান ধাপের উপরে বিভিন্ন রকম সবজি চাষ করা যায়। যেমন পেঁপে, লাউ, কুমড়া, শিম, বরবটি, টমেটো, বেগুন, করলা, চিচিঙ্গা, ঝিঙ্গা, বাঁধাকপি, ফুলকপি, সবুজ ফুলকপি, শসা, লাউশাক, লালশাক, পালংশাক, ডাঁটাশাক বা সাদা শাক চাষ করা যায়।

ভাসমান বীজতলাগুলো যাতে ভেসে না যায়, সেজন্য শক্ত বাঁশের খুঁটির সঙ্গে বেঁধে রাখা হয়। শুকনো মৌসুমে পানি সরে গেলে কচুরিপানার ধাপ জমিতে মিশে জৈব পদার্থের অতিরিক্ত জোগান দেয়। শুকনো মৌসুমে এখানে চাষ করা যায় বোরো ফসল।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের পরামর্শে অল্প পরিমাণ ইউরিয়া সার ব্যবহার করে ভালো ফল পাচ্ছেন কৃষকরা। এখন আধুনিক ব্যবস্থা আর মানসম্মত বীজের কারণে সুফল পাচ্ছেন তারা।

বিডিপ্রেস/আরজে

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

নিচু এলাকায় ভাসমান সবজি চাষ


নিচু এলাকায় ভাসমান সবজি চাষ

এটি জোয়ারের পানিতে ভাসে, আর ভাটায় জেগে ওঠে। ভাসমান ধাপের উপরে বিভিন্ন রকম সবজি চাষ করা যায়। যেমন পেঁপে, লাউ, কুমড়া, শিম, বরবটি, টমেটো, বেগুন, করলা, চিচিঙ্গা, ঝিঙ্গা, বাঁধাকপি, ফুলকপি, সবুজ ফুলকপি, শসা, লাউশাক, লালশাক, পালংশাক, ডাঁটাশাক বা সাদা শাক চাষ করা যায়।

ভাসমান বীজতলাগুলো যাতে ভেসে না যায়, সেজন্য শক্ত বাঁশের খুঁটির সঙ্গে বেঁধে রাখা হয়। শুকনো মৌসুমে পানি সরে গেলে কচুরিপানার ধাপ জমিতে মিশে জৈব পদার্থের অতিরিক্ত জোগান দেয়। শুকনো মৌসুমে এখানে চাষ করা যায় বোরো ফসল।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের পরামর্শে অল্প পরিমাণ ইউরিয়া সার ব্যবহার করে ভালো ফল পাচ্ছেন কৃষকরা। এখন আধুনিক ব্যবস্থা আর মানসম্মত বীজের কারণে সুফল পাচ্ছেন তারা।

বিডিপ্রেস/আরজে