BDpress

দুই সাংবাদিককে হেনস্থা : জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি ডিইউজে

নিজস্ব প্রতিবেদক

অ+ অ-
দুই সাংবাদিককে হেনস্থা : জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি ডিইউজে
ডিবিসি নিউজের সিনিয়র রিপোর্টার আদিত্য আরাফাত ও কালের কণ্ঠের সিনিয়র রিপোর্টার সারোয়ার আলমকে কতিপয় পুলিশ সদস্যের দুর্ব্যবহার ও হয়রানির নিন্দা জানিয়েছে ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে)। গত বৃহস্পতিবার রাজধানীর মহাখালী ও উত্তরায় পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে পুলিশের হেনস্থার শিকার হন এই দুই সাংবাদিক।

ডিইউজে সভাপতি আবু জাফর সূর্য ও সাধারণ সম্পাদক সোহেল হায়দার চৌধুরী আজ (শনিবার) এক বিবৃতিতে পৃথক দু’টি ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও দায়ীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করে বলেন, গত কিছুদিন যাবত সাংবাদিকদের সঙ্গে পুলিশের যে আচরণ লক্ষ্য করা যাচ্ছে তার পেছনে বিশেষ কোনো উদ্দেশ্য আছে কিনা তা পর্যালোচনার দাবি রাখে।

বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় বলেন, পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে মহাখালীতে ট্রাফিক পুলিশের সহকারী কমিশনার (এসি) আশরাফ উল্লাহ, সার্জেন্ট মানসুরসহ অন্যরা আদিত্য আরাফাতকে তুই-তোকারি করে হুমকি দিয়ে এবং ক্যামেরায় পানি ঢেলে দিয়ে চরম ধৃষ্টতার পরিচয় দিয়েছে। শুধু তাই নয়, একজন পেশাদার সাংবাদিকের কাছ থেকে ধারণকৃত চিত্র কেড়ে নেয়ার অপচেষ্টা করে পুলিশ নিজেকে অপরাধীর পর্যায়ে নিয়ে গেছে।

অন্যদিকে উত্তরা ১নং সেক্টরে পরিচয় দেয়ার পরও সারোয়ার আলমের সঙ্গে পুলিশের সংশ্লিষ্ট এসি ও সার্জেন্টরা যে দুর্ব্যবহার করেছে তা শিষ্টাচার বহির্ভূত। বিনা কারণে তাকে হয়রানি করে পুলিশের ওই সদস্যরা কী উদ্দেশ্য হাসিল করতে চেয়েছেন তা শুধু তারাই বলতে পারবেন।

বিডিপ্রেস/আরজে

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

দুই সাংবাদিককে হেনস্থা : জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি ডিইউজে


দুই সাংবাদিককে হেনস্থা : জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি ডিইউজে

ডিইউজে সভাপতি আবু জাফর সূর্য ও সাধারণ সম্পাদক সোহেল হায়দার চৌধুরী আজ (শনিবার) এক বিবৃতিতে পৃথক দু’টি ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত ও দায়ীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করে বলেন, গত কিছুদিন যাবত সাংবাদিকদের সঙ্গে পুলিশের যে আচরণ লক্ষ্য করা যাচ্ছে তার পেছনে বিশেষ কোনো উদ্দেশ্য আছে কিনা তা পর্যালোচনার দাবি রাখে।

বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় বলেন, পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে মহাখালীতে ট্রাফিক পুলিশের সহকারী কমিশনার (এসি) আশরাফ উল্লাহ, সার্জেন্ট মানসুরসহ অন্যরা আদিত্য আরাফাতকে তুই-তোকারি করে হুমকি দিয়ে এবং ক্যামেরায় পানি ঢেলে দিয়ে চরম ধৃষ্টতার পরিচয় দিয়েছে। শুধু তাই নয়, একজন পেশাদার সাংবাদিকের কাছ থেকে ধারণকৃত চিত্র কেড়ে নেয়ার অপচেষ্টা করে পুলিশ নিজেকে অপরাধীর পর্যায়ে নিয়ে গেছে।

অন্যদিকে উত্তরা ১নং সেক্টরে পরিচয় দেয়ার পরও সারোয়ার আলমের সঙ্গে পুলিশের সংশ্লিষ্ট এসি ও সার্জেন্টরা যে দুর্ব্যবহার করেছে তা শিষ্টাচার বহির্ভূত। বিনা কারণে তাকে হয়রানি করে পুলিশের ওই সদস্যরা কী উদ্দেশ্য হাসিল করতে চেয়েছেন তা শুধু তারাই বলতে পারবেন।

বিডিপ্রেস/আরজে