BDpress

অনলাইন কেনাকাটায় ৫ শতাংশ ভ্যাটের প্রস্তাব

নিজস্ব প্রতিবেদক

অ+ অ-
অনলাইন কেনাকাটায় ৫ শতাংশ ভ্যাটের প্রস্তাব
অনলাইনে পণ্য সামগ্রী কেনাকাটায় (ই-কমার্স/এফ-কমার্স) ৫ শতাংশ হারে ভ্যাট (মূসক) দিতে হবে। বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে ২০১৮-১৯ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে এ প্রস্তাব করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

অর্থমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে ইন্টারনেট বা সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করে পণ্য বা সেবার ক্রয়-বিক্রয় যথেষ্ট বৃদ্ধি পেয়েছে। এ পণ্য বা সেবার পরিসরকে আরও বৃদ্ধির লক্ষ্যে ভার্চুয়াল বিজনেস নামে একটি সেবার সংজ্ঞা সৃষ্টি করা হয়েছে। এর ফলে অনলাইনভিত্তিক যেকোনো পণ্য বা সেবার ক্রয়-বিক্রয় বা হস্তান্তরকে এ সেবার আওতাভুক্ত করা সম্ভব হবে। তাই ভার্চুয়াল বিজনেস (ই-কমার্স/এফ-কমার্স) সেবার উপর ৫ শতাংশ হারে ভ্যাট (মূসক) আরোপ করার প্রস্তাব করছি।

২০১৫-১৬ সালের বাজেট ঘোষণায় ই-কমার্সে ভ্যাটের হার ৪ শতাংশ করার প্রস্তাব রাখা হয়েছিল। কিন্তু পরে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের ব্যবসায়ী সংগঠনগুলোর দাবির প্রেক্ষিতে তা প্রত্যাহার করা হয়।

জাতীয় সংসদে স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে আজ (বৃহস্পতিবার) ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেট প্রস্তাব উপস্থাপন করছেন অর্থমন্ত্রী। তার আগে মন্ত্রিসভার অনুমোদনের পর ওই প্রস্তাবে সই করেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

‘সমৃদ্ধ আগামীর পথযাত্রায় বাংলাদেশ’ নামে ২০১৮-১৯ অর্থবছরের জন্য ৪ লাখ ৬৪ হাজার ৫৭৩ কোটি টাকার প্রস্তাবিত বাজেট পেশ করছেন অর্থমন্ত্রী মুহিত।

বিডিপ্রেস/আরজে

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

অনলাইন কেনাকাটায় ৫ শতাংশ ভ্যাটের প্রস্তাব


অনলাইন কেনাকাটায় ৫ শতাংশ ভ্যাটের প্রস্তাব

অর্থমন্ত্রী বলেন, বর্তমানে ইন্টারনেট বা সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করে পণ্য বা সেবার ক্রয়-বিক্রয় যথেষ্ট বৃদ্ধি পেয়েছে। এ পণ্য বা সেবার পরিসরকে আরও বৃদ্ধির লক্ষ্যে ভার্চুয়াল বিজনেস নামে একটি সেবার সংজ্ঞা সৃষ্টি করা হয়েছে। এর ফলে অনলাইনভিত্তিক যেকোনো পণ্য বা সেবার ক্রয়-বিক্রয় বা হস্তান্তরকে এ সেবার আওতাভুক্ত করা সম্ভব হবে। তাই ভার্চুয়াল বিজনেস (ই-কমার্স/এফ-কমার্স) সেবার উপর ৫ শতাংশ হারে ভ্যাট (মূসক) আরোপ করার প্রস্তাব করছি।

২০১৫-১৬ সালের বাজেট ঘোষণায় ই-কমার্সে ভ্যাটের হার ৪ শতাংশ করার প্রস্তাব রাখা হয়েছিল। কিন্তু পরে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের ব্যবসায়ী সংগঠনগুলোর দাবির প্রেক্ষিতে তা প্রত্যাহার করা হয়।

জাতীয় সংসদে স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে আজ (বৃহস্পতিবার) ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেট প্রস্তাব উপস্থাপন করছেন অর্থমন্ত্রী। তার আগে মন্ত্রিসভার অনুমোদনের পর ওই প্রস্তাবে সই করেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

‘সমৃদ্ধ আগামীর পথযাত্রায় বাংলাদেশ’ নামে ২০১৮-১৯ অর্থবছরের জন্য ৪ লাখ ৬৪ হাজার ৫৭৩ কোটি টাকার প্রস্তাবিত বাজেট পেশ করছেন অর্থমন্ত্রী মুহিত।

বিডিপ্রেস/আরজে