BDpress

যশোরে ‘হাতুড়ি বাহিনীর’ হামলায় সাংবাদিক আহত

জেলা প্রতিবেদক

অ+ অ-
যশোরে ‘হাতুড়ি বাহিনীর’ হামলায় সাংবাদিক আহত
যশোরের কেশবপুরে হাতুড়ি বাহিনীর হামলায় গুরুতর আহত হয়েছেন ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সদস্য ও দি নিউজলাইন পত্রিকার সাংবাদিক হাবীবুর রহমান হাবীব (৪৫)। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

হাবীব কেশবপুর উপজেলার বালিয়াডাঙ্গা এলাকার নওশের আলীর ছেলে।

আহতের স্ত্রী জান্নাতুন নাহার সালমা জানান, হাবীব মঙ্গলবার যশোরের কেশবপুরে গ্রামের বাড়ি আসেন। বুধবার বেলা ১১টায় একটি মোবাইল মেরামত করতে তিনি শহরের পুরনো গরু হাটের দিকে আসলে সন্ত্রাসীদের নিয়ে গঠিত হাতুড়ি বাহিনী প্রধান খন্দকার আজিজের নেতৃত্বে মধ্যকুল গ্রামের গণি শেখের ছেলে জামাল ও ভবানীপুর এলাকার আকবার গাজীর ছেলে লিটনসহ ১২/১৪ জন তাকে হাতুড়ি ও লোহার রড দিয়ে বেধড়ক পেটায়।

সালমা আরও জানান, যুবলীগের আহ্বায়ক আলতাফ বিশ্বাসের ছেলে শহীদুজ্জামানের মাদক সেবনের একটি ভিডিও প্রচার করায় হাতুড়ি বাহিনীকে লেলিয়ে দিয়ে এই হামলা করানো হয়েছে।

তবে হামলার নির্দেশদাতা অভিযুক্ত শহীদুজ্জামান বলেন, তার সঙ্গে হাবীবের ভালো সম্পর্ক। তিনি কোনো নির্দেশ দেননি। ঘটনাস্থলেও ছিলেন না।

কেশবপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ আব্দুল্লাহ জানান, হামলাকারীদের আটকের চেষ্টা চলছে।

বিডিপ্রেস/আরজে

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

যশোরে ‘হাতুড়ি বাহিনীর’ হামলায় সাংবাদিক আহত


যশোরে ‘হাতুড়ি বাহিনীর’ হামলায় সাংবাদিক আহত

হাবীব কেশবপুর উপজেলার বালিয়াডাঙ্গা এলাকার নওশের আলীর ছেলে।

আহতের স্ত্রী জান্নাতুন নাহার সালমা জানান, হাবীব মঙ্গলবার যশোরের কেশবপুরে গ্রামের বাড়ি আসেন। বুধবার বেলা ১১টায় একটি মোবাইল মেরামত করতে তিনি শহরের পুরনো গরু হাটের দিকে আসলে সন্ত্রাসীদের নিয়ে গঠিত হাতুড়ি বাহিনী প্রধান খন্দকার আজিজের নেতৃত্বে মধ্যকুল গ্রামের গণি শেখের ছেলে জামাল ও ভবানীপুর এলাকার আকবার গাজীর ছেলে লিটনসহ ১২/১৪ জন তাকে হাতুড়ি ও লোহার রড দিয়ে বেধড়ক পেটায়।

সালমা আরও জানান, যুবলীগের আহ্বায়ক আলতাফ বিশ্বাসের ছেলে শহীদুজ্জামানের মাদক সেবনের একটি ভিডিও প্রচার করায় হাতুড়ি বাহিনীকে লেলিয়ে দিয়ে এই হামলা করানো হয়েছে।

তবে হামলার নির্দেশদাতা অভিযুক্ত শহীদুজ্জামান বলেন, তার সঙ্গে হাবীবের ভালো সম্পর্ক। তিনি কোনো নির্দেশ দেননি। ঘটনাস্থলেও ছিলেন না।

কেশবপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ আব্দুল্লাহ জানান, হামলাকারীদের আটকের চেষ্টা চলছে।

বিডিপ্রেস/আরজে