BDpress

পর্তুগালে বাংলাদেশিদের ঈদ পুনর্মিলনী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

অ+ অ-
পর্তুগালে বাংলাদেশিদের ঈদ পুনর্মিলনী
পর্তুগালে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশিদের নিয়ে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত রবিবার রাতের ওই অনুষ্ঠানে ঐতিহ্যবাহী মেজবান আয়োজন করে চট্টগ্রামবাসী। প্রবাসে থেকেও চট্টগ্রামের আঞ্চলিক ঐতিহ্য লালনের প্রয়াসে এ আয়োজন করা হয়। সবার স্বতঃস্ফূর্ত উপস্থিতিতে লিসবনের বাংলাদেশি অধ্যুষিত এলাকা মার্তৃম-মুনিজ এলাকা যেন চট্টগ্রামের ক্ষুদ্র অংশে পরিণত হয়।

ঐতিহ্যবাহী মেজবান আয়োজনের চট্টগ্রামবাসীর পক্ষে পরিকল্পনায় ও পরিচালনায় ছিলেন চট্টগ্রাম প্রবাসী মো. ইকবাল চৌধুরী, আবু হেনা চৌধুরী, মো. শাহাদাত হোসেন, মেজবাহ উল আলম রিগান। তাদের এই পরিকল্পনাতে পরবর্তীতে পর্তুগালে বসবাসরত চট্টগ্রামবাসী অন্যান্যরাও সহযোগিতায় এগিয়ে আসেন। মেজবানকে চট্টগ্রামের পরিপূর্ণ স্বাদ দিতে লিসবনের ফুড গার্ডেন, রাঁধুনি ও বেঙ্গল রেস্টুরেন্টে মেজবানের খাবারের রেসিপি অনুযায়ী রান্না ও পরিবেশন করেন।

পর্তুগালের রাজধানী লিসবন ও আশপাশের শহরে বসবাসরত চট্টগ্রাম প্রবাসীসহ প্রায় ১৫০০ প্রবাসী বাংলাদেশি প্রবাসী এতে অংশ নেন।প্রবাসী বাংলাদেশিরা মেজবানে অংশ নিয়ে চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী খাবারের স্বাদ নেন।

মেজবান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূত জনাব মো. রুহুল আলম সিদ্দিকী। তিনি বলেন, ঈদ পুনর্মিলনী ও চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী মেজবান আয়োজনে বিপুল সংখ্যক বাংলাদেশিদের একসঙ্গে দেখে ভালো লাগছে। এধরণের আয়োজন কমিউনিটিতে একের প্রতি অন্যের সম্প্রীতি এবং সৌহার্দ্য আরও বৃদ্ধি পাবে।

চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী মেজবানকে সুদূর পর্তুগালে ধারাবাহিকভাবে নিয়ে আসতে পারাটা একটি বড় ব্যাপার। আয়োজকরা বলেন, কমিউনিটির মধ্যে সম্প্রীতি এবং সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্কের কারণেই আমাদের এই ধরনের আয়োজন সফল করা সম্ভব হয়েছে।
বিডিপ্রেস/আলী


এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

পর্তুগালে বাংলাদেশিদের ঈদ পুনর্মিলনী


পর্তুগালে বাংলাদেশিদের ঈদ পুনর্মিলনী

ঐতিহ্যবাহী মেজবান আয়োজনের চট্টগ্রামবাসীর পক্ষে পরিকল্পনায় ও পরিচালনায় ছিলেন চট্টগ্রাম প্রবাসী মো. ইকবাল চৌধুরী, আবু হেনা চৌধুরী, মো. শাহাদাত হোসেন, মেজবাহ উল আলম রিগান। তাদের এই পরিকল্পনাতে পরবর্তীতে পর্তুগালে বসবাসরত চট্টগ্রামবাসী অন্যান্যরাও সহযোগিতায় এগিয়ে আসেন। মেজবানকে চট্টগ্রামের পরিপূর্ণ স্বাদ দিতে লিসবনের ফুড গার্ডেন, রাঁধুনি ও বেঙ্গল রেস্টুরেন্টে মেজবানের খাবারের রেসিপি অনুযায়ী রান্না ও পরিবেশন করেন।

পর্তুগালের রাজধানী লিসবন ও আশপাশের শহরে বসবাসরত চট্টগ্রাম প্রবাসীসহ প্রায় ১৫০০ প্রবাসী বাংলাদেশি প্রবাসী এতে অংশ নেন।প্রবাসী বাংলাদেশিরা মেজবানে অংশ নিয়ে চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী খাবারের স্বাদ নেন।

মেজবান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূত জনাব মো. রুহুল আলম সিদ্দিকী। তিনি বলেন, ঈদ পুনর্মিলনী ও চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী মেজবান আয়োজনে বিপুল সংখ্যক বাংলাদেশিদের একসঙ্গে দেখে ভালো লাগছে। এধরণের আয়োজন কমিউনিটিতে একের প্রতি অন্যের সম্প্রীতি এবং সৌহার্দ্য আরও বৃদ্ধি পাবে।

চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী মেজবানকে সুদূর পর্তুগালে ধারাবাহিকভাবে নিয়ে আসতে পারাটা একটি বড় ব্যাপার। আয়োজকরা বলেন, কমিউনিটির মধ্যে সম্প্রীতি এবং সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্কের কারণেই আমাদের এই ধরনের আয়োজন সফল করা সম্ভব হয়েছে।
বিডিপ্রেস/আলী