BDpress

বিসিআইএমভুক্ত দেশগুলোর বিনিয়োগ চায় এফবিসিসিআই

নিজস্ব প্রতিবেদক

অ+ অ-
বিসিআইএমভুক্ত দেশগুলোর বিনিয়োগ চায় এফবিসিসিআই
এফবিসিসিআই বাংলাদেশের বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলোতে তেল পরিশোধন, ওষুধখাত, পর্যটন এবং কৃষিভিত্তিক শিল্পে বিনিয়োগের জন্য বিসিআইএম সদস্যভুক্ত দেশগুলোকে আহ্বান জানিয়েছে। বাংলাদেশ ছাড়া এই সংগঠনের সদস্য হচ্ছে চীন, ভারত ও মিয়ানমার।

চীনের কুনমিং-এ সম্প্রতি অনুষ্ঠিত ১৩তম চায়না-সাউথ এশিয়া বিজনেস ফোরামে অংশ নিয়ে এ আহ্বান জানান এফবিসিসিআই সিনিয়র সহ-সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম।

চায়না কাউন্সিল ফর দ্য প্রমোশন অব ইন্টারন্যাশনাল ট্রেড (সিসিপিআইটি), সার্ক চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (এসসিসিআই) এবং ইউনান প্রাদেশিক সরকার যৌথভাবে এ ফোরামের আয়োজন করে।

এবারের ফোরামের থিম ছিল ‘আন্ত:যোগাযোগ, অংশীদারিত্ব এবং পারস্পরিক লাভের লক্ষ্যে সহযোগিতা’।

এফবিসিসিআই সিনিয়র সহ-সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম বিসিআইএম বিজনেস ফোরাম এবং বিজনেস ম্যাচিং সেশনে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন।

ফাহিম তার প্রবন্ধে বলেন, এফবিসিসিআই সিল্ক রোড চেম্বার অব ইন্টারন্যাশনাল কমার্স (এসআরসিআইসি)-এর উল্লেখযোগ্য সদস্য হিসেবে দক্ষিণ এশীয় অঞ্চলে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ উন্নয়নে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করে চলেছে। প্রবন্ধে চীন এবং দক্ষিণ এশীয় দেশগুলোর মধ্যে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সহযোগিতা সম্প্রসারণের উপায় তুলে ধরেন।

তিনি বাংলাদেশের বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলোতে বা অন্য এলাকায় তেল পরিশোধন, ওষুধ খাত, পর্যটন এবং কৃষিভিত্তিক শিল্পে বিনিয়োগের জন্য বিসিআইএম সদস্য দেশগুলোকে আমন্ত্রণ জানান।

এছাড়াও এফবিসিসিআই নেতা বিসিআইএম সদস্য দেশগুলোকে বাংলাদেশের তৈরি পোশাক, ঔষধ, পাটপণ্য, চামড়াজাত পণ্য, আসবাব সামগ্রী, প্লাস্টিক সামগ্রী ও সিরামিক পণ্য আমদানির আহ্বান জানান।

ফোরামে এফবিসিসিআই এবং সিসিপিআইটি-এর মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। মূলত দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সহযোগিতা শক্তিশালী করা এবং তথ্য বিনিময় আরও উন্নত করার লক্ষ্যে এ স্মারক স্বাক্ষর করা হয়।

এফবিসিসিআই সিনিয়র সহ-সভাপতি ফোরামের বাইরেও সিসিপিআইটি নেতারা এবং সদস্য দেশগুলোর প্রতিনিধিদের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করেন।

বিডিপ্রেস/আরজে

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

বিসিআইএমভুক্ত দেশগুলোর বিনিয়োগ চায় এফবিসিসিআই


বিসিআইএমভুক্ত দেশগুলোর বিনিয়োগ চায় এফবিসিসিআই

চীনের কুনমিং-এ সম্প্রতি অনুষ্ঠিত ১৩তম চায়না-সাউথ এশিয়া বিজনেস ফোরামে অংশ নিয়ে এ আহ্বান জানান এফবিসিসিআই সিনিয়র সহ-সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম।

চায়না কাউন্সিল ফর দ্য প্রমোশন অব ইন্টারন্যাশনাল ট্রেড (সিসিপিআইটি), সার্ক চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (এসসিসিআই) এবং ইউনান প্রাদেশিক সরকার যৌথভাবে এ ফোরামের আয়োজন করে।

এবারের ফোরামের থিম ছিল ‘আন্ত:যোগাযোগ, অংশীদারিত্ব এবং পারস্পরিক লাভের লক্ষ্যে সহযোগিতা’।

এফবিসিসিআই সিনিয়র সহ-সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম বিসিআইএম বিজনেস ফোরাম এবং বিজনেস ম্যাচিং সেশনে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন।

ফাহিম তার প্রবন্ধে বলেন, এফবিসিসিআই সিল্ক রোড চেম্বার অব ইন্টারন্যাশনাল কমার্স (এসআরসিআইসি)-এর উল্লেখযোগ্য সদস্য হিসেবে দক্ষিণ এশীয় অঞ্চলে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ উন্নয়নে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করে চলেছে। প্রবন্ধে চীন এবং দক্ষিণ এশীয় দেশগুলোর মধ্যে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সহযোগিতা সম্প্রসারণের উপায় তুলে ধরেন।

তিনি বাংলাদেশের বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলোতে বা অন্য এলাকায় তেল পরিশোধন, ওষুধ খাত, পর্যটন এবং কৃষিভিত্তিক শিল্পে বিনিয়োগের জন্য বিসিআইএম সদস্য দেশগুলোকে আমন্ত্রণ জানান।

এছাড়াও এফবিসিসিআই নেতা বিসিআইএম সদস্য দেশগুলোকে বাংলাদেশের তৈরি পোশাক, ঔষধ, পাটপণ্য, চামড়াজাত পণ্য, আসবাব সামগ্রী, প্লাস্টিক সামগ্রী ও সিরামিক পণ্য আমদানির আহ্বান জানান।

ফোরামে এফবিসিসিআই এবং সিসিপিআইটি-এর মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। মূলত দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সহযোগিতা শক্তিশালী করা এবং তথ্য বিনিময় আরও উন্নত করার লক্ষ্যে এ স্মারক স্বাক্ষর করা হয়।

এফবিসিসিআই সিনিয়র সহ-সভাপতি ফোরামের বাইরেও সিসিপিআইটি নেতারা এবং সদস্য দেশগুলোর প্রতিনিধিদের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করেন।

বিডিপ্রেস/আরজে

স্পটলাইট