BDpress

কোন পেশাজীবীর ক্যান্সারের ঝুঁকি বেশি

বিডিপ্রেস ডেস্ক

অ+ অ-
কোন পেশাজীবীর ক্যান্সারের ঝুঁকি বেশি
যারা বেশিক্ষণ বিমানে সময় কাটান, তাদের মধ্যে ক্যান্সার হওয়ার সম্ভাবনা বেশি? অবাক হওয়ার মতো হলেও এমনই তথ্য উঠে এসেছে এক সমীক্ষায়। সমীক্ষাটি করেছে হাভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়। সেখানে বলা হয়েছে, অন্যান্য পেশার তুলনায় বিমান ক্রুদের ক্যান্সার হওয়ার প্রবণতা বেশি।

কোয়ার্টজের প্রতিবেদন অনুযায়ী, বিমান সেবিকাদের মুখ, স্তন, ইউটেরাস ও ত্বকে ক্যান্সার হওয়ার ঝুঁকি বেশি। হাভার্ডের বিজ্ঞানীরা মার্কিন বিমান সংস্থায় কর্মরত ৫ হাজার ৩০০ বিমান সেবিকার ওপর এ সমীক্ষা চালায়। পাশাপাশি অন্যান্য পেশায় কর্মরত ২ হাজার ৭০০ আমেরিকানের ওপরও সমীক্ষা চালানো হয়। বিজ্ঞানীরা বিভিন্ন পেশার মানুষের সঙ্গে বিমান সেবিকাদের সঙ্গে অদ্ভুত বৈসাদৃশ্য খুঁজে পান।

দেখা গেছে, একই শিক্ষাগত যোগ্যতা ও একই বেতন হওয়া সত্ত্বেও অন্যান্য পেশার মানুষের সঙ্গে বিমান সেবিকাদের স্বাস্থ্যজনিত একটি পার্থক্য তৈরি হয়েছে। তারা যতই স্বাস্থ্য সচেতন বা ডায়েট মেনে সুষম খাবার গ্রহণ করুক না কেন, তাদের মধ্যে ক্যান্সারের প্রবণতা বেশি।

কারণ হিসেবে আরও দেখা গেছে যে, কেবিন ক্রুদের বেশিরভাগই নারী। অন্যান্য পেশাজীবী নারীর তুলনায় তাদের মধ্যে স্তন ক্যান্সার হওয়ার সম্ভাবনা ৫০ শতাংশ বেশি। ৩০ শতাংশের মধ্যে স্কিন ক্যান্সার হওয়ার ঝুঁকি রয়েছে। যেহেতু বিমান সেবিকারা অনেক সময় বায়ুস্তরে কাটান। সূর্যের ক্ষতিকারক রশ্মি বায়ুস্তর ভেদ করে পৃথিবীতে আসে। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে বায়ুস্তরের যত উপরে ওঠা যায়, এই ক্ষতিকারক রশ্মির প্রভাব ততই বাড়তে থাকে। ফলে এ সমস্যা দেখা দেয়। এমনকি জেট ল্যাগকে ক্যান্সারের অন্যতম কারণ বলা হয়েছে।

বিডিপ্রেস/আরজে

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

কোন পেশাজীবীর ক্যান্সারের ঝুঁকি বেশি


কোন পেশাজীবীর ক্যান্সারের ঝুঁকি বেশি

কোয়ার্টজের প্রতিবেদন অনুযায়ী, বিমান সেবিকাদের মুখ, স্তন, ইউটেরাস ও ত্বকে ক্যান্সার হওয়ার ঝুঁকি বেশি। হাভার্ডের বিজ্ঞানীরা মার্কিন বিমান সংস্থায় কর্মরত ৫ হাজার ৩০০ বিমান সেবিকার ওপর এ সমীক্ষা চালায়। পাশাপাশি অন্যান্য পেশায় কর্মরত ২ হাজার ৭০০ আমেরিকানের ওপরও সমীক্ষা চালানো হয়। বিজ্ঞানীরা বিভিন্ন পেশার মানুষের সঙ্গে বিমান সেবিকাদের সঙ্গে অদ্ভুত বৈসাদৃশ্য খুঁজে পান।

দেখা গেছে, একই শিক্ষাগত যোগ্যতা ও একই বেতন হওয়া সত্ত্বেও অন্যান্য পেশার মানুষের সঙ্গে বিমান সেবিকাদের স্বাস্থ্যজনিত একটি পার্থক্য তৈরি হয়েছে। তারা যতই স্বাস্থ্য সচেতন বা ডায়েট মেনে সুষম খাবার গ্রহণ করুক না কেন, তাদের মধ্যে ক্যান্সারের প্রবণতা বেশি।

কারণ হিসেবে আরও দেখা গেছে যে, কেবিন ক্রুদের বেশিরভাগই নারী। অন্যান্য পেশাজীবী নারীর তুলনায় তাদের মধ্যে স্তন ক্যান্সার হওয়ার সম্ভাবনা ৫০ শতাংশ বেশি। ৩০ শতাংশের মধ্যে স্কিন ক্যান্সার হওয়ার ঝুঁকি রয়েছে। যেহেতু বিমান সেবিকারা অনেক সময় বায়ুস্তরে কাটান। সূর্যের ক্ষতিকারক রশ্মি বায়ুস্তর ভেদ করে পৃথিবীতে আসে। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে বায়ুস্তরের যত উপরে ওঠা যায়, এই ক্ষতিকারক রশ্মির প্রভাব ততই বাড়তে থাকে। ফলে এ সমস্যা দেখা দেয়। এমনকি জেট ল্যাগকে ক্যান্সারের অন্যতম কারণ বলা হয়েছে।

বিডিপ্রেস/আরজে

স্পটলাইট