BDpress

গরিবের হক নষ্ট করলে কঠোর ব্যবস্থা: পলক

জেলা প্রতিবেদক

অ+ অ-
গরিবের হক নষ্ট করলে কঠোর ব্যবস্থা: পলক
কেউ গরিবের হক নষ্ট করলে তার বিরুদ্ধে কঠোর থেকে কঠোরতম ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে হুশিয়ারি দিয়েছেন তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

বুধবার দুপুরে সিংড়া উপজেলা মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে বন্যা ও অন্যান্য প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত ১০২টি দুস্থ পরিবারের মাঝে ১০২ বান্ডিল ঢেউটিন ও নগদ তিন লাখ ছয় হাজার টাকা বিতরণ উপলক্ষে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে ৪৭ বছর। আর আমরা সিংড়ায় নৌকা মার্কা বিজয়ী করে চলনবিলের দুঃখী মানুষের সেবা করার সুযোগ পেয়েছি মাত্র ৯ বছর। এই ৯ বছরে স্বচ্ছতার সঙ্গে কাজ করেছি।

তিনি বলেন, ২০০৭ সালে বিএনপির বড় বড় নেতারা সাধারণ দরিদ্র মানুষের অধিকার হরণ করে তারা ত্রাণের টিন দিয়ে খামারবাড়িতে খামার করেছে। কিন্তু বিগত ৯ বছর আমি চ্যালেঞ্জ করে বলতে পারি, আমার সিংড়ার মাটিতে কেউ গরিবের হক নষ্ট করেনি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমার নির্দেশ দেয়া আছে, কেউ যদি গরিবের হক নষ্ট করে তার বিরুদ্ধে আমি কঠোর থেকে কঠোরতম ব্যবস্থা নেব। যদি সে আমার দলীয় কেহ হয়, তবুও তাকে ছাড় দেয়া হবে না।

তিনি আরও বলেন, আগামী ২০২১ সাল নাগাদ দেশের কোনো ভূমিহীন গৃহহীন পরিবার থাকবে না। সব ভূমিহীনদের গৃহ নির্মাণ করে দেয়া হবে। তাদের থাকা ও খাওয়ার ব্যবস্থা করবে সরকার।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) বিপুল কুমারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সিংড়া পৌরসভার মেয়র জান্নাতুল ফেরদৌস, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা সৈয়দ আরিফুল হক, ডাহিয়া ইউপি চেয়ারম্যান এমএম আবুল কালাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বিডিপ্রেস/আরজে

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

গরিবের হক নষ্ট করলে কঠোর ব্যবস্থা: পলক


গরিবের হক নষ্ট করলে কঠোর ব্যবস্থা: পলক

বুধবার দুপুরে সিংড়া উপজেলা মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে বন্যা ও অন্যান্য প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত ১০২টি দুস্থ পরিবারের মাঝে ১০২ বান্ডিল ঢেউটিন ও নগদ তিন লাখ ছয় হাজার টাকা বিতরণ উপলক্ষে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে ৪৭ বছর। আর আমরা সিংড়ায় নৌকা মার্কা বিজয়ী করে চলনবিলের দুঃখী মানুষের সেবা করার সুযোগ পেয়েছি মাত্র ৯ বছর। এই ৯ বছরে স্বচ্ছতার সঙ্গে কাজ করেছি।

তিনি বলেন, ২০০৭ সালে বিএনপির বড় বড় নেতারা সাধারণ দরিদ্র মানুষের অধিকার হরণ করে তারা ত্রাণের টিন দিয়ে খামারবাড়িতে খামার করেছে। কিন্তু বিগত ৯ বছর আমি চ্যালেঞ্জ করে বলতে পারি, আমার সিংড়ার মাটিতে কেউ গরিবের হক নষ্ট করেনি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, আমার নির্দেশ দেয়া আছে, কেউ যদি গরিবের হক নষ্ট করে তার বিরুদ্ধে আমি কঠোর থেকে কঠোরতম ব্যবস্থা নেব। যদি সে আমার দলীয় কেহ হয়, তবুও তাকে ছাড় দেয়া হবে না।

তিনি আরও বলেন, আগামী ২০২১ সাল নাগাদ দেশের কোনো ভূমিহীন গৃহহীন পরিবার থাকবে না। সব ভূমিহীনদের গৃহ নির্মাণ করে দেয়া হবে। তাদের থাকা ও খাওয়ার ব্যবস্থা করবে সরকার।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) বিপুল কুমারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সিংড়া পৌরসভার মেয়র জান্নাতুল ফেরদৌস, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা সৈয়দ আরিফুল হক, ডাহিয়া ইউপি চেয়ারম্যান এমএম আবুল কালাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বিডিপ্রেস/আরজে

স্পটলাইট