BDpress

ভিডিও চুরি ঠেকাতে ইউটিউবের নতুন ফিচার

বিডিপ্রেস ডেস্ক

অ+ অ-
ভিডিও চুরি ঠেকাতে ইউটিউবের নতুন ফিচার
‘কপিরাইট ম্যাচ টুল’ নামের একটি নতুন ফিচার আনছে ইউটিউব। এতে ইউটিউবের ভিডিও নির্মাতারা তাঁদের ভিডিও চুরি ঠেকাতে পারবেন। অর্থাৎ, তাঁর আপলোড করা ভিডিও অবৈধভাবে আর কেউ আপলোড করতে পারবে না। ইউটিউবের এক ব্লগ পোস্টে এ তথ্য জানানো হয়। খবর গ্যাজেটস নাউ।

নতুন এই টুলের মাধ্যমে নতুন ভিডিও আপলোড হলে তা স্ক্যান করে দেখবে ইউটিউব। এতে আপলোড করা ভিডিওর সঙ্গে ইউটিউব প্ল্যাটফর্মে আপলোড করা কোনো ভিডিওর সামঞ্জস্য আছে কি না, তা দেখা হবে। যদি ওই ভিডিও মিলে যায়, তবে ‘ম্যাচেস’ নামের একটি ট্যাব হাজির হবে।

ইউটিউব কর্তৃপক্ষ বলেছে, অবৈধভাবে কনটেন্ট পুনরায় আপলোড ঠেকাতে এক বছর ধরেই কপিরাইট ম্যাচ টুলটি নিয়ে পরীক্ষা চালানো হচ্ছে। টুলটি নিরাপদ, কার্যকর ও পুরো কমিউনিটির উপযোগী করে তুলতে দীর্ঘদিন ধরে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালানো হয়েছে।

যদি আগে আপলোড করা কোনও কনটেন্টের সঙ্গে নতুন কনটেন্ট মিলে যায়, তখন প্রকৃত আপলোডকারী নতুন আপলোডকারীর সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারবেন বা ইউটিউবকে ওই ভিডিও সরিয়ে ফেলার অনুরোধ করতে পারবেন।

ইউটিউবে যাঁদের এক লাখের বেশি সাবস্ক্রাইবার আছে, তাঁরা আগামী সপ্তাহ থেকে নতুন ফিচারটি ব্যবহার করতে পারবেন। ইউটিউবের ব্লগ পোস্টে বলা হয়েছে, এটি শক্তিশালী ফিচার। এর ব্যবহার গভীরভাবে পর্যালোচনা করা হবে এবং পরবর্তী সময়ে সব ব্যবহারকারীর জন্য উন্মুক্ত করা হতে পারে।

বিডিপ্রেস/আরজে

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

ভিডিও চুরি ঠেকাতে ইউটিউবের নতুন ফিচার


ভিডিও চুরি ঠেকাতে ইউটিউবের নতুন ফিচার

নতুন এই টুলের মাধ্যমে নতুন ভিডিও আপলোড হলে তা স্ক্যান করে দেখবে ইউটিউব। এতে আপলোড করা ভিডিওর সঙ্গে ইউটিউব প্ল্যাটফর্মে আপলোড করা কোনো ভিডিওর সামঞ্জস্য আছে কি না, তা দেখা হবে। যদি ওই ভিডিও মিলে যায়, তবে ‘ম্যাচেস’ নামের একটি ট্যাব হাজির হবে।

ইউটিউব কর্তৃপক্ষ বলেছে, অবৈধভাবে কনটেন্ট পুনরায় আপলোড ঠেকাতে এক বছর ধরেই কপিরাইট ম্যাচ টুলটি নিয়ে পরীক্ষা চালানো হচ্ছে। টুলটি নিরাপদ, কার্যকর ও পুরো কমিউনিটির উপযোগী করে তুলতে দীর্ঘদিন ধরে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালানো হয়েছে।

যদি আগে আপলোড করা কোনও কনটেন্টের সঙ্গে নতুন কনটেন্ট মিলে যায়, তখন প্রকৃত আপলোডকারী নতুন আপলোডকারীর সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারবেন বা ইউটিউবকে ওই ভিডিও সরিয়ে ফেলার অনুরোধ করতে পারবেন।

ইউটিউবে যাঁদের এক লাখের বেশি সাবস্ক্রাইবার আছে, তাঁরা আগামী সপ্তাহ থেকে নতুন ফিচারটি ব্যবহার করতে পারবেন। ইউটিউবের ব্লগ পোস্টে বলা হয়েছে, এটি শক্তিশালী ফিচার। এর ব্যবহার গভীরভাবে পর্যালোচনা করা হবে এবং পরবর্তী সময়ে সব ব্যবহারকারীর জন্য উন্মুক্ত করা হতে পারে।

বিডিপ্রেস/আরজে