BDpress

ভাইরাল হওয়া সেই ছবির ফটো সাংবাদিককে মারধর, সাংবাদিকতা ছাড়ার ঘোষণা

নিজস্ব প্রতিবেদক

অ+ অ-
ভাইরাল হওয়া সেই ছবির ফটো সাংবাদিককে মারধর, সাংবাদিকতা ছাড়ার ঘোষণা
টিএসসিতে বৃষ্টির মধ্যে তরুণ-তরুণীর ছবি তুলে সেটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দিয়ে আলোচিত-সমালোচিত সেই ফটো সাংবাদিক জীবন আহমেদ মারধরের শিকার হয়েছেন।মারধরের ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়ে তিনি সাংবাদিকতা ছেড়ে দিচ্ছেন বলে নিজের ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছেন। তিনি একটি অনলাইন পোর্টালে কর্মরত ছিলেন।

বুধবার জীবন আহমেদ তার নিজের ফেসবুক স্ট্যাটাসে এ কথা জানান।

চাকরি ছাড়ার কারণ হিসেবে জানা যায়, সেই ভাইরাল হওয়া ছবি তোলার অপরাধে নিজের পেশার লোকদের হাতেই মারধরের শিকার হন তিনি।

জানা গেছে, টিএসসির যে স্থানে ছবিটি তোলা হয়েছে সেখানেই তাকে প্রকাশ্যে মারধর করা হয়। মারধরকারীরা সবাই আলোকচিত্রশিল্পী বলে জানা গেছে। একটি ইংরেজি দৈনিকের এক আলোকচিত্র সাংবাদিকেরও নাম যুক্ত রয়েছে এই ঘটনায়।

এ বিষয়ে জীবন আহমেদ বলেন, আমি কার বিরুদ্ধে কথা বলব? আমার পেশার লোকেরাই আমাকে মেরেছে। আমি কিছু বলতাম না তারা যদি আমাকে আড়ালে নিয়ে গিয়ে মারধর করত। কিন্তু তারা আমাকে মেরেছে প্রকাশ্যে টিএসসিতে।

জীবন আহমেদ বলেন, আমাকে মারার সময় তারা আমাকে বলছিল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরের নির্দেশে মারছে। আমি নাকি কলঙ্কিত করেছি আলোকচিত্রশিল্পী সমাজকে। কিন্তু প্রক্টর স্যার একটু আগে ফোন দিয়ে বললেন, এ রকম নির্দেশনা তিনি দেননি দিতে পারেন না। আমিও জানি তারা গায়ের ঝাল মিটিয়েছে।

উল্লেখ্য, সোমবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকায় বৃষ্টিভেজা একটি যুগল ছবি তুলে রাতারাতি আলোচনায় চলে আসেন আলোকচিত্রশিল্পী জীবন আহমেদ। সোমবার দিনব্যাপী ছবিটি সোশ্যাল মিডিয়ায় আলোচনায় ছিল।

সাম্প্রতিককালের মধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় সবচেয়ে ভাইরাল ছিল ছবিটি। এমনকি মঙ্গলবারও সেই আলোচনায় ভাটা পড়েনি।

বিডিপ্রেস/আরজে

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

ভাইরাল হওয়া সেই ছবির ফটো সাংবাদিককে মারধর, সাংবাদিকতা ছাড়ার ঘোষণা


ভাইরাল হওয়া সেই ছবির ফটো সাংবাদিককে মারধর, সাংবাদিকতা ছাড়ার ঘোষণা

বুধবার জীবন আহমেদ তার নিজের ফেসবুক স্ট্যাটাসে এ কথা জানান।

চাকরি ছাড়ার কারণ হিসেবে জানা যায়, সেই ভাইরাল হওয়া ছবি তোলার অপরাধে নিজের পেশার লোকদের হাতেই মারধরের শিকার হন তিনি।

জানা গেছে, টিএসসির যে স্থানে ছবিটি তোলা হয়েছে সেখানেই তাকে প্রকাশ্যে মারধর করা হয়। মারধরকারীরা সবাই আলোকচিত্রশিল্পী বলে জানা গেছে। একটি ইংরেজি দৈনিকের এক আলোকচিত্র সাংবাদিকেরও নাম যুক্ত রয়েছে এই ঘটনায়।

এ বিষয়ে জীবন আহমেদ বলেন, আমি কার বিরুদ্ধে কথা বলব? আমার পেশার লোকেরাই আমাকে মেরেছে। আমি কিছু বলতাম না তারা যদি আমাকে আড়ালে নিয়ে গিয়ে মারধর করত। কিন্তু তারা আমাকে মেরেছে প্রকাশ্যে টিএসসিতে।

জীবন আহমেদ বলেন, আমাকে মারার সময় তারা আমাকে বলছিল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরের নির্দেশে মারছে। আমি নাকি কলঙ্কিত করেছি আলোকচিত্রশিল্পী সমাজকে। কিন্তু প্রক্টর স্যার একটু আগে ফোন দিয়ে বললেন, এ রকম নির্দেশনা তিনি দেননি দিতে পারেন না। আমিও জানি তারা গায়ের ঝাল মিটিয়েছে।

উল্লেখ্য, সোমবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকায় বৃষ্টিভেজা একটি যুগল ছবি তুলে রাতারাতি আলোচনায় চলে আসেন আলোকচিত্রশিল্পী জীবন আহমেদ। সোমবার দিনব্যাপী ছবিটি সোশ্যাল মিডিয়ায় আলোচনায় ছিল।

সাম্প্রতিককালের মধ্যে সোশ্যাল মিডিয়ায় সবচেয়ে ভাইরাল ছিল ছবিটি। এমনকি মঙ্গলবারও সেই আলোচনায় ভাটা পড়েনি।

বিডিপ্রেস/আরজে