BDpress

আবার ক্ষমতায় আসলে ‘ফাইভ জি’ : জয়

বিডিপ্রেস ডেস্ক

অ+ অ-
আবার ক্ষমতায় আসলে ‘ফাইভ জি’ : জয়
তথ্যপ্রযুক্তিতে বহুলাংশে এগিয়ে আছে বাংলাদেশ। এই ধারাবাহিকতা অব্যাহত থাকবে। ফের ক্ষমতায় আসলে ‘ফাইভ জি’ প্রযু্ক্তি চালু করা হবে।বুধবার রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে এক আড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠানে ফাইভ-জি সামিটের উদ্বোধন ও পরীক্ষামূলক কার্যক্রম প্রদর্শনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, প্রযুক্তিতে এগিয়ে যাওয়া বিশ্বের অন্য দেশের সঙ্গে তাল মিলিয়ে এগিয়ে যেতে চাই। এই জন্য তিনি বিটিআরসির পাশাপাশি রবি এবং হুয়াওয়েকে ধন্যবাদ জানান।

পৃথিবীর অন্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশে ইন্টারনেটের দাম কম বলে মন্তব্য করে তিনি বলেন, বর্তমান সরকার ১০ বছর আগে নির্বাচনী ইশতেহারে জনগণকে ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখিয়েছিল। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে বাস্তবে রূপ নিয়েছে সেই কর্মসূচি।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- ডাক টেলিযোগাযোগ ও তথ্য-প্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার, আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক, বিটিআরসির সচিব শ্যাম সুন্দর শিকদার, রবির এমডি ও সিইও মাহতাব উদ্দিন, হুয়াওয়ে বাংলাদেশের সিইও ঝ্যাং জেনজুন।

ফাইভ-জির পরীক্ষা চালাতে হুয়াওয়েকে এক সপ্তাহের জন্য স্পেকট্রাম বরাদ্দ দিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন-বিটিআরসি। সরকারের সহযোগিতায় মোবাইল অপারেটর রবিকে সঙ্গে নিয়ে এই ফাইভ-জি সামিটের আয়োজন করে প্রযুক্তি পণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ে।

উল্লেখ্য, গত ফেব্রুয়ারিতে আনুষ্ঠানিকভাবে দেশে ফোর-জি সেবা চালু হয়। চারটি মোবাইল ফোন অপারেটরকে ফোর-জি সেবার লাইসেন্স দেয়ার মাধ্যমে দেশে এ সেবার যাত্রা শুরু হয়।

বিডিপ্রেস/আরজে

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

আবার ক্ষমতায় আসলে ‘ফাইভ জি’ : জয়


আবার ক্ষমতায় আসলে ‘ফাইভ জি’ : জয়

তিনি বলেন, প্রযুক্তিতে এগিয়ে যাওয়া বিশ্বের অন্য দেশের সঙ্গে তাল মিলিয়ে এগিয়ে যেতে চাই। এই জন্য তিনি বিটিআরসির পাশাপাশি রবি এবং হুয়াওয়েকে ধন্যবাদ জানান।

পৃথিবীর অন্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশে ইন্টারনেটের দাম কম বলে মন্তব্য করে তিনি বলেন, বর্তমান সরকার ১০ বছর আগে নির্বাচনী ইশতেহারে জনগণকে ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখিয়েছিল। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে বাস্তবে রূপ নিয়েছে সেই কর্মসূচি।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- ডাক টেলিযোগাযোগ ও তথ্য-প্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার, আইসিটি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক, বিটিআরসির সচিব শ্যাম সুন্দর শিকদার, রবির এমডি ও সিইও মাহতাব উদ্দিন, হুয়াওয়ে বাংলাদেশের সিইও ঝ্যাং জেনজুন।

ফাইভ-জির পরীক্ষা চালাতে হুয়াওয়েকে এক সপ্তাহের জন্য স্পেকট্রাম বরাদ্দ দিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন-বিটিআরসি। সরকারের সহযোগিতায় মোবাইল অপারেটর রবিকে সঙ্গে নিয়ে এই ফাইভ-জি সামিটের আয়োজন করে প্রযুক্তি পণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ে।

উল্লেখ্য, গত ফেব্রুয়ারিতে আনুষ্ঠানিকভাবে দেশে ফোর-জি সেবা চালু হয়। চারটি মোবাইল ফোন অপারেটরকে ফোর-জি সেবার লাইসেন্স দেয়ার মাধ্যমে দেশে এ সেবার যাত্রা শুরু হয়।

বিডিপ্রেস/আরজে