BDpress

মালয়েশিয়ার পেনাংয়ে মোবাইল ক্যাম্পেইন

নিজস্ব প্রতিবেদক

অ+ অ-
মালয়েশিয়ার পেনাংয়ে মোবাইল ক্যাম্পেইন
মালয়েশিয়ায় অবৈধ বিদেশি শ্রমিকদের বৈধকরণ প্রক্রিয়া শেষ হলেও প্রদেশে প্রদেশে চলছে বাংলাদেশ দূতাবাসের মোবাইল ক্যাম্পেইন। এতে ভিড় করছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা। এরমধ্যে কেউ কেউ আসছেন পাসপোর্ট নিতে, আবার অনেকেই আসছেন নতুন পাসপোর্টের আবেদন করতে।

আজ (২৮ জুলাই) মালয়েশিয়ার পেনাং রাজ্যের জর্জ টাউনে শুরু হওয়া দুই দিনব্যাপী দূতাবাসের মোবাইল ক্যাম্পেইনে প্রবাসীদের পাসপোর্ট সেবা দেয়া হচ্ছে।

ডেপুটি হাই কমিশনার ওয়াহিদা আহমেদের নেতৃত্বে পেনাং ক্যাম্পিংয়ে প্রবাসীদের পাসপোর্ট বিতরণ করছেন পাসপোর্ট বিভাগের সহকারি সুশান্ত সরকার, দিলারা বেগম, সাজ্জাদ হোসাইন ও কিবরীয়া। এ সময় উপস্থিত ছিলেন দূতাবাসের কন্স্যুলার দাতু ইসমাইল।

এদিকে অনেকেই অভিযোগ করেছেন সময়মত তারা পাসপোর্ট হাতে পাননি। কিন্তু দূতাবাসের সংশ্লিষ্টরা বলছেন তাদের সর্বাত্মক প্রচেষ্টায় প্রবাসীদের হাতে পাসপোর্ট বিতরণ করা হয়েছে।

ডেপুটি হাইকমিশনার ওয়াহিদা আহমেদ বলেন, দুই বছর ধরে মালয়েশিয়ার প্রত্যেকটি প্রদেশে সরকারি ছুটির দিনেও পাসপোর্ট বিতরণসহ কন্স্যুলার সেবা দেয়া হচ্ছে এবং ‘আমরা প্রবাসী ভাইদের সেবা প্রদানে অত্যন্ত তৎপর। আর এ সেবা প্রদানের ক্যাম্পেইন অব্যাহত থাকবে।

তিনি বলেন, ‘পাসপোর্ট আবেদনে যদি কোনো ত্রুটি না থাকে নির্ধারিত সময়ের আগে ১৫ দিনের মধ্যেও পাসপোর্ট বিতরণ করা হয়েছে। আমরা শনি ও রোববার পেনাংয়ে পাসপোর্ট বিতরণ করছি।’

মো. সিদ্দীকুর রহমান নামে একজন জানান, তিনি আজ (২৮ জুলাই) নির্ধারিত সময়ে পাসপোর্ট হাতে পেয়েছেন। সময়মত পাসপোর্ট পাওয়াতে খুবই খুশি। এখন পারমিট পাবার পালা। দ্রুত পাসপোর্ট পাওয়ায় হাইকমিশনের সংশ্লিষ্টদের ধন্যবাদ জানান মো. সিদ্দীকুর রহমান ও কাজল।

অপরদিকে মো. আশরাফুল ইসলাম ও এনায়েত এসেছেন নতুন পাসপোর্টের আবেদন করতে। তারা জানান, দালাল ছাড়াই দূতাবাসের ক্যাম্পেইনে কর্মকর্তাদের সহযোগিতায় ১১৬ রিঙ্গিত ব্যাংক ড্রাফটের মাধ্যমে ফরম পূরণ করে জমা দিয়েছেন এবং আশা করছেন নির্ধারিত সময়ে তারা পাসপোর্ট হাতে পাবেন।

এদিকে মোবাইল ক্যাম্পিংয়ের পাশাপাশি শ্রম বিভাগের কর্মকর্তারা বন্ধের দিনেও দেশটির বিভিন্ন ক্যাম্প পরিদর্শন করছেন। তারা সেখানে থাকা বাংলাদেশিদের মাঝে শুকনো খাবার বিতরণ করছেন। এছাড়া যাদের সাজার মেয়াদ শেষ হয়েছে তাদের দ্রুত দেশে পাঠাতে ক্যাম্প কমান্ডারদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

বিডিপ্রেস/আরজে

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

মালয়েশিয়ার পেনাংয়ে মোবাইল ক্যাম্পেইন


মালয়েশিয়ার পেনাংয়ে মোবাইল ক্যাম্পেইন

আজ (২৮ জুলাই) মালয়েশিয়ার পেনাং রাজ্যের জর্জ টাউনে শুরু হওয়া দুই দিনব্যাপী দূতাবাসের মোবাইল ক্যাম্পেইনে প্রবাসীদের পাসপোর্ট সেবা দেয়া হচ্ছে।

ডেপুটি হাই কমিশনার ওয়াহিদা আহমেদের নেতৃত্বে পেনাং ক্যাম্পিংয়ে প্রবাসীদের পাসপোর্ট বিতরণ করছেন পাসপোর্ট বিভাগের সহকারি সুশান্ত সরকার, দিলারা বেগম, সাজ্জাদ হোসাইন ও কিবরীয়া। এ সময় উপস্থিত ছিলেন দূতাবাসের কন্স্যুলার দাতু ইসমাইল।

এদিকে অনেকেই অভিযোগ করেছেন সময়মত তারা পাসপোর্ট হাতে পাননি। কিন্তু দূতাবাসের সংশ্লিষ্টরা বলছেন তাদের সর্বাত্মক প্রচেষ্টায় প্রবাসীদের হাতে পাসপোর্ট বিতরণ করা হয়েছে।

ডেপুটি হাইকমিশনার ওয়াহিদা আহমেদ বলেন, দুই বছর ধরে মালয়েশিয়ার প্রত্যেকটি প্রদেশে সরকারি ছুটির দিনেও পাসপোর্ট বিতরণসহ কন্স্যুলার সেবা দেয়া হচ্ছে এবং ‘আমরা প্রবাসী ভাইদের সেবা প্রদানে অত্যন্ত তৎপর। আর এ সেবা প্রদানের ক্যাম্পেইন অব্যাহত থাকবে।

তিনি বলেন, ‘পাসপোর্ট আবেদনে যদি কোনো ত্রুটি না থাকে নির্ধারিত সময়ের আগে ১৫ দিনের মধ্যেও পাসপোর্ট বিতরণ করা হয়েছে। আমরা শনি ও রোববার পেনাংয়ে পাসপোর্ট বিতরণ করছি।’

মো. সিদ্দীকুর রহমান নামে একজন জানান, তিনি আজ (২৮ জুলাই) নির্ধারিত সময়ে পাসপোর্ট হাতে পেয়েছেন। সময়মত পাসপোর্ট পাওয়াতে খুবই খুশি। এখন পারমিট পাবার পালা। দ্রুত পাসপোর্ট পাওয়ায় হাইকমিশনের সংশ্লিষ্টদের ধন্যবাদ জানান মো. সিদ্দীকুর রহমান ও কাজল।

অপরদিকে মো. আশরাফুল ইসলাম ও এনায়েত এসেছেন নতুন পাসপোর্টের আবেদন করতে। তারা জানান, দালাল ছাড়াই দূতাবাসের ক্যাম্পেইনে কর্মকর্তাদের সহযোগিতায় ১১৬ রিঙ্গিত ব্যাংক ড্রাফটের মাধ্যমে ফরম পূরণ করে জমা দিয়েছেন এবং আশা করছেন নির্ধারিত সময়ে তারা পাসপোর্ট হাতে পাবেন।

এদিকে মোবাইল ক্যাম্পিংয়ের পাশাপাশি শ্রম বিভাগের কর্মকর্তারা বন্ধের দিনেও দেশটির বিভিন্ন ক্যাম্প পরিদর্শন করছেন। তারা সেখানে থাকা বাংলাদেশিদের মাঝে শুকনো খাবার বিতরণ করছেন। এছাড়া যাদের সাজার মেয়াদ শেষ হয়েছে তাদের দ্রুত দেশে পাঠাতে ক্যাম্প কমান্ডারদের নির্দেশ দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

বিডিপ্রেস/আরজে