BDpress

পছন্দের গয়নার যত্নে সহজ উপায়

বিডিপ্রেস ডেস্ক

অ+ অ-
পছন্দের গয়নার যত্নে সহজ উপায়
গহনার প্রতি আমাদের আলাদা একধরনের দুর্বলতা সবসময় কাজ করে আর তাইতো যেকোনো অনুষ্ঠান কিংবা উৎসবে আমরা আর যাই কিনিনা কেন আমাদের কেনাকাটার লিস্টে একটা গয়নার নাম থাকবেই। কিন্তু কেনার পর ব্যবহার করেই তা আবার রেখে দিই আবার এমনও গয়না থাকে যা বছরে একবারও পরা হয়না আর তাই অযত্নে থেকে যায়। অযত্নে থাকা এসব গয়না আস্তে আস্তে তার উজ্জ্বলতা হারিয়ে ফেলে।

চলুন জেনে নেওয়া যাক কিছু সহজ টিপস যেগুলো ব্যবহার করেই আপনার পছন্দের গয়নাগুলোর যত্ন নিতে পারেন-

১। হীরার গয়না
হীরার গয়না পরিষ্কার করতে হলে একটু টুথপেস্ট ব্রাশে নিয়ে ঘষে, পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। তারপর পরিষ্কার করে টিস্যু দিয়ে মুড়িয়ে রাখতে হবে। সবসময় হীরার গয়নার যত্ন নিলে নতুনের মতো দেখায়। এছাড়াও স্বর্ণ, রুপা, হীরা ও মেটালের গহনা একই বাক্সে রাখা উচিত না এগুলো টিস্যু দিয়ে মুড়িয়ে আলাদা আলাদা বক্সে রাখা উচিত।

২। সোনার গয়না
আমরা সবাই জানি যে, সোনা অনেক দিন পুরোনো হয়ে গেলে এর উজ্জ্বলতা কমে যায় আর তাতে একটু আঘাতে বেঁকে যায়। আবার অনেক সময় বারবার পলিশের ফলে সোনার স্বাভাবিক উজ্জ্বলতা হারিয়ে যায়। উজ্জ্বলতা বাড়াতে একটি পাত্রে পানির মধ্যে একটু ডিটারজেন্ট পাউডার মিশিয়ে তার মধ্যে সোনার অলংকার একটু টুথপেস্ট লাগিয়ে কিছুক্ষণ রেখে, টুথব্রাশ দিয়ে সাবধানে হালকাভাবে ঘষে নিন। দেখবেন আপনার অলংকার আবার নতুনভাবে উজ্জ্বলতা ফিরে পেয়েছে। এরপরও যদি কালচে ভাব থেকে যায়, তাহলে সোনার দোকানে নিয়ে পলিশ করাতে পারেন।

৩। মুক্তার গয়না
মুক্তার গয়না ব্যবহার শেষে নরম, ভেজা কাপড় দিয়ে মুছে ফেলতে হবে। তবে খুব বেশি ময়লা হলে পানিতে সামান্য সাবান মিশিয়ে নিয়ে ব্রাশ দিয়ে ঘষে পরিষ্কার করতে হবে।এছাড়াও প্লাস্টিকের ব্যাগে কখনো মুক্তার গয়না রাখা উচিত নয়।

৪। রুপার গয়না
রুপার গয়না সুন্দর রাখতে প্রথমে অলংকার ভালোভাবে মুছে তার উপর ট্যালকম পাউডার লাগান। এরপর শুকনা সুতি কাপড় দিয়ে ঘষে পরিষ্কার করে নিন।

৫। গোল্ড প্লেট গয়না
বর্তমানে গোল্ড প্লেটের অলংকার ব্যবহারও বাড়ছে দিন দিন। এই অলংকার ব্যবহার শেষে টিস্যু দিয়ে মুড়িয়ে যত্ন করে রাখতে হবে। গোল্ডপ্লেটের অলংকার ব্যবহারের সুবিধা হচ্ছে কালো হয়ে গেলে সোনার দোকানে নিয়ে গেলে আবার রং করিয়ে নেওয়া যায় আবার রং করার পর নতুনের মতো দেখাবে।

৬। কুন্দন, পাথর ও অ্যান্টিক গয়না
ভারী কুন্দন, পাথর বসানো অলংকার গরম পানিতে নরম কাপড় ভিজিয়ে ঘষে পরিষ্কার করলে গয়না ঝকঝকে হয়ে উঠবে। দামি পাথর বসানো অলংকার পড়ে খেলাধুলা বা ভারী কাজ করা ঠিক না। এছাড়াও অ্যান্টিকের অলংকার ব্যবহার না করলে বর্ণহীন দেখায়, তবে একফালি লেবু নিয়ে অলংকার ঘষে পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেললে অলংকার ঝকঝক করবে।



 

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

পছন্দের গয়নার যত্নে সহজ উপায়


পছন্দের গয়নার যত্নে সহজ উপায়

চলুন জেনে নেওয়া যাক কিছু সহজ টিপস যেগুলো ব্যবহার করেই আপনার পছন্দের গয়নাগুলোর যত্ন নিতে পারেন-

১। হীরার গয়না
হীরার গয়না পরিষ্কার করতে হলে একটু টুথপেস্ট ব্রাশে নিয়ে ঘষে, পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। তারপর পরিষ্কার করে টিস্যু দিয়ে মুড়িয়ে রাখতে হবে। সবসময় হীরার গয়নার যত্ন নিলে নতুনের মতো দেখায়। এছাড়াও স্বর্ণ, রুপা, হীরা ও মেটালের গহনা একই বাক্সে রাখা উচিত না এগুলো টিস্যু দিয়ে মুড়িয়ে আলাদা আলাদা বক্সে রাখা উচিত।

২। সোনার গয়না
আমরা সবাই জানি যে, সোনা অনেক দিন পুরোনো হয়ে গেলে এর উজ্জ্বলতা কমে যায় আর তাতে একটু আঘাতে বেঁকে যায়। আবার অনেক সময় বারবার পলিশের ফলে সোনার স্বাভাবিক উজ্জ্বলতা হারিয়ে যায়। উজ্জ্বলতা বাড়াতে একটি পাত্রে পানির মধ্যে একটু ডিটারজেন্ট পাউডার মিশিয়ে তার মধ্যে সোনার অলংকার একটু টুথপেস্ট লাগিয়ে কিছুক্ষণ রেখে, টুথব্রাশ দিয়ে সাবধানে হালকাভাবে ঘষে নিন। দেখবেন আপনার অলংকার আবার নতুনভাবে উজ্জ্বলতা ফিরে পেয়েছে। এরপরও যদি কালচে ভাব থেকে যায়, তাহলে সোনার দোকানে নিয়ে পলিশ করাতে পারেন।

৩। মুক্তার গয়না
মুক্তার গয়না ব্যবহার শেষে নরম, ভেজা কাপড় দিয়ে মুছে ফেলতে হবে। তবে খুব বেশি ময়লা হলে পানিতে সামান্য সাবান মিশিয়ে নিয়ে ব্রাশ দিয়ে ঘষে পরিষ্কার করতে হবে।এছাড়াও প্লাস্টিকের ব্যাগে কখনো মুক্তার গয়না রাখা উচিত নয়।

৪। রুপার গয়না
রুপার গয়না সুন্দর রাখতে প্রথমে অলংকার ভালোভাবে মুছে তার উপর ট্যালকম পাউডার লাগান। এরপর শুকনা সুতি কাপড় দিয়ে ঘষে পরিষ্কার করে নিন।

৫। গোল্ড প্লেট গয়না
বর্তমানে গোল্ড প্লেটের অলংকার ব্যবহারও বাড়ছে দিন দিন। এই অলংকার ব্যবহার শেষে টিস্যু দিয়ে মুড়িয়ে যত্ন করে রাখতে হবে। গোল্ডপ্লেটের অলংকার ব্যবহারের সুবিধা হচ্ছে কালো হয়ে গেলে সোনার দোকানে নিয়ে গেলে আবার রং করিয়ে নেওয়া যায় আবার রং করার পর নতুনের মতো দেখাবে।

৬। কুন্দন, পাথর ও অ্যান্টিক গয়না
ভারী কুন্দন, পাথর বসানো অলংকার গরম পানিতে নরম কাপড় ভিজিয়ে ঘষে পরিষ্কার করলে গয়না ঝকঝকে হয়ে উঠবে। দামি পাথর বসানো অলংকার পড়ে খেলাধুলা বা ভারী কাজ করা ঠিক না। এছাড়াও অ্যান্টিকের অলংকার ব্যবহার না করলে বর্ণহীন দেখায়, তবে একফালি লেবু নিয়ে অলংকার ঘষে পরিষ্কার পানি দিয়ে ধুয়ে ফেললে অলংকার ঝকঝক করবে।