BDpress

রাজউক চেয়ারম্যানসহ দু’জনকে তলব

নিজস্ব প্রতিবেদক

অ+ অ-
রাজউক চেয়ারম্যানসহ দু’জনকে তলব
আদালত অবমাননার অভিযোগে রাজউকের চেয়ারম্যানসহ দু’জনকে তলব করেছেন হাইকোর্ট। আগামী ১২ আগস্ট রাজউক চেয়ারম্যান ও রাজউকের উত্তরা এপার্টমেন্ট প্রকল্পের পরিচালককে আদালতে হাজির হতে বলা হয়েছে। মঙ্গলবার হাইকোর্টের বিচারপতি তারিক উল হাকিম এবং বিচারপতি মো. সোহরাওয়ার্দীর সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এই আদেশ দেন।

আবেদনের পক্ষে আজ শুনানি করেন আইনজীবী মো. সালাহ উদ্দিন দোলন। তিনি জানান, বিবাদীপক্ষ কয়েকবার সময় নিয়েও আদালতের আদেশ বাস্তবায়ন করেননি। এ কারণে রাজউক চেয়ারম্যান ও প্রকল্প পরিচালককে আদালতে হাজির হতে বলা হয়েছে।

জানা গেছে, রাজউকের উত্তরা এপার্টমেন্ট প্রকল্পে ৭৫ জনকে প্রকল্পকালীন চুক্তিভিত্তিক বিভিন্ন পদে নিয়োগ দেওয়া হয়। গত ৩০ জুন মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা থাকলেও এর আগে ২৩ জুন একনেকে প্রকল্পের মেয়াদ ২০২০ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত বাড়ানো হয়। এদিকে ৩০ জুন ওই ৭৫ জনকে চাকুরি থেকে অব্যাহতি দেওয়া হবে বলে ৩ জুন এক নোটিশে জানানো হয়। এর বিরুদ্ধে করা একটি রিটের পরিপ্রেক্ষিতে ২৪ জুন ওই নোটিশের কার্যকারিতা স্থগিত করে রিটকারী ৭৩ জনকে প্রকল্প চলাকালীন সময় পর্যন্ত চাকরিতে বহালের নির্দেশ দেয় হাইকোর্ট।

আদালতের এই আদেশের পরও ২৭ জুন প্রকল্প পরিচালকের এক নোটিশে ৭৫ জনকে চাকরি থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। পরে আদালত অবমাননার অভিযোগে রিটকারী পক্ষ আবেদন করে। এর পরিপ্রেক্ষিতে প্রকল্প পরিচালক আদালতে হাজির হয়ে ওই ৭৩ জনকে প্রকল্পে ফেরানোর কথা বললেও তা বাস্তবায়িত হয়নি।

বিডিপ্রেস/আরজে

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

রাজউক চেয়ারম্যানসহ দু’জনকে তলব


রাজউক চেয়ারম্যানসহ দু’জনকে তলব

আবেদনের পক্ষে আজ শুনানি করেন আইনজীবী মো. সালাহ উদ্দিন দোলন। তিনি জানান, বিবাদীপক্ষ কয়েকবার সময় নিয়েও আদালতের আদেশ বাস্তবায়ন করেননি। এ কারণে রাজউক চেয়ারম্যান ও প্রকল্প পরিচালককে আদালতে হাজির হতে বলা হয়েছে।

জানা গেছে, রাজউকের উত্তরা এপার্টমেন্ট প্রকল্পে ৭৫ জনকে প্রকল্পকালীন চুক্তিভিত্তিক বিভিন্ন পদে নিয়োগ দেওয়া হয়। গত ৩০ জুন মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা থাকলেও এর আগে ২৩ জুন একনেকে প্রকল্পের মেয়াদ ২০২০ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত বাড়ানো হয়। এদিকে ৩০ জুন ওই ৭৫ জনকে চাকুরি থেকে অব্যাহতি দেওয়া হবে বলে ৩ জুন এক নোটিশে জানানো হয়। এর বিরুদ্ধে করা একটি রিটের পরিপ্রেক্ষিতে ২৪ জুন ওই নোটিশের কার্যকারিতা স্থগিত করে রিটকারী ৭৩ জনকে প্রকল্প চলাকালীন সময় পর্যন্ত চাকরিতে বহালের নির্দেশ দেয় হাইকোর্ট।

আদালতের এই আদেশের পরও ২৭ জুন প্রকল্প পরিচালকের এক নোটিশে ৭৫ জনকে চাকরি থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। পরে আদালত অবমাননার অভিযোগে রিটকারী পক্ষ আবেদন করে। এর পরিপ্রেক্ষিতে প্রকল্প পরিচালক আদালতে হাজির হয়ে ওই ৭৩ জনকে প্রকল্পে ফেরানোর কথা বললেও তা বাস্তবায়িত হয়নি।

বিডিপ্রেস/আরজে