BDpress

পিতা-মাতাকে হত্যা মামলার নজির ঐশী : হাইকোর্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক

অ+ অ-
পিতা-মাতাকে হত্যা মামলার নজির ঐশী : হাইকোর্ট
ডেথ রেফারেন্সের এক মামলার শুনানিতে হাইকোর্ট বলেছেন, সম্পত্তির জন্য সন্তান বাবা ও খালা-খালুকে হত্যা করছে- এমন অনেক মামলার ডেথ রেফারেন্স আমরা শুনছি। এছাড়া কিশোরী ঐশীর মামলা তো আদালতের নজির হিসেবে রয়েছে। যেখানে সন্তান তার পিতা-মাতাকে হত্যা করেছে। সাংবাদিক ফরহাদ খাঁ দম্পতি হত্যা মামলার ডেথ রেফারেন্স ও আপিলের শুনানিতে এমন মন্তব্য করেছেন হাইকোর্ট। এ মামলার কার্যক্রম আজ বুধবার পর্যন্ত মুলতবি করা হয়েছে।

সাংবাদিক ফরহাদ খাঁ দম্পতি হত্যা মামলার ডেথ রেফারেন্স ও আপিলের ওপর হাইকোর্টে শুনানি মঙ্গলবার (৭ আগস্ট) শুরু হয়েছে। শুনানিতে পেপারবুক থেকে মামলার এজাহার, অভিযোগপত্র, আসামি ও সাক্ষীদের জবানবন্দি ও নিম্ন আদালতের রায় উপস্থাপন করেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা। আজ বুধবার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা মামলার যুক্তিতর্ক তুলে ধরবেন।

মঙ্গলবার হাইকোর্টের বিচারপতি মো. রুহুল কুদ্দুস ও বিচারপতি এ এস এম আবদুল মবিনের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চে এই শুনানি অনুষ্ঠিত হয়।

শুনানিতে আসামিপক্ষে ছিলেন আইনজীবী মনসুরুল হক চৌধুরী। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মনিরুজ্জামান রুবেল, সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল হাতেম আলী ও আবুল কালাম আজাদ খান।

এদিকে আসামিপক্ষের অন্যতম আইনজীবী মনসুরুল হক চৌধুরী অবকাশের পর মামলাটি শুনানির জন্য দিন ধার্যের আবেদন জানান। তিনি আদালতে বলেন, ‘মামা-মামীকে খুনের জন্য ভাগ্নের ফাঁসি হয়েছে। ভাগ্নে এদেরকে খুন করবে এটা কি বিশ্বাসযোগ্য? আমার কাছে এ ঘটনা অনেকটা ‘জজ মিয়া’ নাটকের মতো মনে হয়।’

এ পর্যায়ে আদালত বলেন, ‘সন্তান সম্পত্তির জন্য বাবা ও খালা-খালুকে হত্যা করছে- এমন অনেক মামলার ডেথ রেফারেন্স আমরা শুনছি। এছাড়া ঐশীর মামলা তো আদালতের নজির হিসেবে রয়েছে। যেখানে সন্তান তার পিতা-মাতাকে হত্যা করেছে।’

আদালত আরও বলেন, এই মামলায় ডিএনএ’র রিপোর্ট তো রয়েছেই। যেটা সায়েন্টিফিক এভিডেন্স হিসাবে বিবেচিত হবে।

২০১১ সালের ২৮ জানুয়ারি রাজধানীর নয়াপল্টনে ভাড়া বাসায় খুন হন দৈনিক জনতার তৎকালীন জ্যেষ্ঠ সহ-সম্পাদক ফরহাদ খাঁ ও তার স্ত্রী রহিমা খাতুন। এ ঘটনায় ২০১২ সালের ১০ অক্টোবর ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-৩ দম্পতির আপন ভাগ্নে নাজিমুজ্জামান ইয়ন ও তার বন্ধু রাজু আহমেদকে মৃত্যুদণ্ড দেন। পরে মামলাটি ডেথ রেফারেন্স ও আপিল আকারে হাইকোর্টে শুনানির জন্য আসে।

বিডিপ্রেস/আরজে

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

পিতা-মাতাকে হত্যা মামলার নজির ঐশী : হাইকোর্ট


পিতা-মাতাকে হত্যা মামলার নজির ঐশী : হাইকোর্ট

সাংবাদিক ফরহাদ খাঁ দম্পতি হত্যা মামলার ডেথ রেফারেন্স ও আপিলের ওপর হাইকোর্টে শুনানি মঙ্গলবার (৭ আগস্ট) শুরু হয়েছে। শুনানিতে পেপারবুক থেকে মামলার এজাহার, অভিযোগপত্র, আসামি ও সাক্ষীদের জবানবন্দি ও নিম্ন আদালতের রায় উপস্থাপন করেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা। আজ বুধবার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা মামলার যুক্তিতর্ক তুলে ধরবেন।

মঙ্গলবার হাইকোর্টের বিচারপতি মো. রুহুল কুদ্দুস ও বিচারপতি এ এস এম আবদুল মবিনের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চে এই শুনানি অনুষ্ঠিত হয়।

শুনানিতে আসামিপক্ষে ছিলেন আইনজীবী মনসুরুল হক চৌধুরী। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মনিরুজ্জামান রুবেল, সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল হাতেম আলী ও আবুল কালাম আজাদ খান।

এদিকে আসামিপক্ষের অন্যতম আইনজীবী মনসুরুল হক চৌধুরী অবকাশের পর মামলাটি শুনানির জন্য দিন ধার্যের আবেদন জানান। তিনি আদালতে বলেন, ‘মামা-মামীকে খুনের জন্য ভাগ্নের ফাঁসি হয়েছে। ভাগ্নে এদেরকে খুন করবে এটা কি বিশ্বাসযোগ্য? আমার কাছে এ ঘটনা অনেকটা ‘জজ মিয়া’ নাটকের মতো মনে হয়।’

এ পর্যায়ে আদালত বলেন, ‘সন্তান সম্পত্তির জন্য বাবা ও খালা-খালুকে হত্যা করছে- এমন অনেক মামলার ডেথ রেফারেন্স আমরা শুনছি। এছাড়া ঐশীর মামলা তো আদালতের নজির হিসেবে রয়েছে। যেখানে সন্তান তার পিতা-মাতাকে হত্যা করেছে।’

আদালত আরও বলেন, এই মামলায় ডিএনএ’র রিপোর্ট তো রয়েছেই। যেটা সায়েন্টিফিক এভিডেন্স হিসাবে বিবেচিত হবে।

২০১১ সালের ২৮ জানুয়ারি রাজধানীর নয়াপল্টনে ভাড়া বাসায় খুন হন দৈনিক জনতার তৎকালীন জ্যেষ্ঠ সহ-সম্পাদক ফরহাদ খাঁ ও তার স্ত্রী রহিমা খাতুন। এ ঘটনায় ২০১২ সালের ১০ অক্টোবর ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-৩ দম্পতির আপন ভাগ্নে নাজিমুজ্জামান ইয়ন ও তার বন্ধু রাজু আহমেদকে মৃত্যুদণ্ড দেন। পরে মামলাটি ডেথ রেফারেন্স ও আপিল আকারে হাইকোর্টে শুনানির জন্য আসে।

বিডিপ্রেস/আরজে