BDpress

তিশাকে নিয়ে জম্মু-কাশ্মীরের লাদাখে ইমরান

বিনোদন ডেস্ক

অ+ অ-
তিশাকে নিয়ে জম্মু-কাশ্মীরের লাদাখে ইমরান
ঈদকে সামনে রেখে দেশের অন্যতম প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান গানচিল মিউজিকে ব্যানারে আসবে এই সময়ের জনপ্রিয় শিল্পী ইমরানের নতুন মিউজিক ভিডিও ‘আমার এ মন’। একক কণ্ঠে গাওয়া এ গানটির সুর-সঙ্গীতও করেছেন ইমরান নিজেই।

গানের কথা লিখেছেন রবিউল ইসলাম জীবন। গানটির দৃশ্যধারণ হয়েছে ভারতের জম্মু ও কাশ্মীর রাজ্যের অঞ্চল লাদাখে। এতে ইমরানের সঙ্গে মডেল হয়েছেন তার জনপ্রিয় গান ‘বলতে বলতে চলতে চলতে’ এবং ‘শেষ সূচনা’র মডেল তানজিন তিশা।

ভিডিও নির্মাণ করেছেন তানিম রহমান অংশু। গত ১, ২ ও ৩ আগস্ট তিন দিন ধরে লাদাখের বিভিন্ন লোকেশনে শুটিং হয়। ইমরান বলেন, গানটি ভালোবাসার কথামালায় সাজানো। গানের কথা-সুর-গায়কীর সঙ্গে লোকশনটাকে খুবই অসাধারণ লাগছিল।

শুটিং অভিজ্ঞতা বলতে গিয়ে এই গায়ক বলেন, প্রায় চার-পাঁচ ঘন্টা গাড়িতে জার্নি করে করে একটা লোকেশন থেকে আরেকটা লোকেশনে গিয়ে শুটিং করেছি। এতো উঁচু উঁচু জায়গায় আমাদের উঠেতে হয়েছে যে শ্বাস-প্রশ্বাস নিতে খুব কষ্ট হচ্ছিল। ফলে সারাক্ষণ সঙ্গে আলাদা অক্সিজেন রাখতে হয়েছে। দু’একবার অসুস্তবোধও করছিলাম।

তিনি আরও বলেন, ভিডিও ফুটেজ দেখার পর মনে হচ্ছে সব পরিশ্রম স্বার্থক। এটা আমার জীবনের অন্যতম একটি অভিজ্ঞতা। অংশু ভাইয়ের সঙ্গে এটি আমার প্রথম মিউজিক ভিডিও। আশাকরি গানটি দর্শক-শ্রোতারা খুব ভালোভাবে পছন্দ করবেন।

তানজিন তিশা বলেন, ‘শুটিংয়ের পুরোটা সময় একটা স্বপ্নের মধ্যে ছিলাম। অসাধারণ একটি কাজ হয়েছে। ইমরান আর আমার আগের দুটি ভিডিওর চেয়েও এটি শ্রোতাদের কাছে বেশি প্রশংসিত হবে বলে আশা করি।

ঈদের ঠিক আগে আগে গানচিল মিউজিকের ইউটিউব চ্যানেলে ভিডিওটি প্রকাশ করা হবে। দেখা যাবে বিভিন্ন টিভি চ্যানেলেও।

বিডিপ্রেস/আরজে

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

তিশাকে নিয়ে জম্মু-কাশ্মীরের লাদাখে ইমরান


তিশাকে নিয়ে জম্মু-কাশ্মীরের লাদাখে ইমরান

গানের কথা লিখেছেন রবিউল ইসলাম জীবন। গানটির দৃশ্যধারণ হয়েছে ভারতের জম্মু ও কাশ্মীর রাজ্যের অঞ্চল লাদাখে। এতে ইমরানের সঙ্গে মডেল হয়েছেন তার জনপ্রিয় গান ‘বলতে বলতে চলতে চলতে’ এবং ‘শেষ সূচনা’র মডেল তানজিন তিশা।

ভিডিও নির্মাণ করেছেন তানিম রহমান অংশু। গত ১, ২ ও ৩ আগস্ট তিন দিন ধরে লাদাখের বিভিন্ন লোকেশনে শুটিং হয়। ইমরান বলেন, গানটি ভালোবাসার কথামালায় সাজানো। গানের কথা-সুর-গায়কীর সঙ্গে লোকশনটাকে খুবই অসাধারণ লাগছিল।

শুটিং অভিজ্ঞতা বলতে গিয়ে এই গায়ক বলেন, প্রায় চার-পাঁচ ঘন্টা গাড়িতে জার্নি করে করে একটা লোকেশন থেকে আরেকটা লোকেশনে গিয়ে শুটিং করেছি। এতো উঁচু উঁচু জায়গায় আমাদের উঠেতে হয়েছে যে শ্বাস-প্রশ্বাস নিতে খুব কষ্ট হচ্ছিল। ফলে সারাক্ষণ সঙ্গে আলাদা অক্সিজেন রাখতে হয়েছে। দু’একবার অসুস্তবোধও করছিলাম।

তিনি আরও বলেন, ভিডিও ফুটেজ দেখার পর মনে হচ্ছে সব পরিশ্রম স্বার্থক। এটা আমার জীবনের অন্যতম একটি অভিজ্ঞতা। অংশু ভাইয়ের সঙ্গে এটি আমার প্রথম মিউজিক ভিডিও। আশাকরি গানটি দর্শক-শ্রোতারা খুব ভালোভাবে পছন্দ করবেন।

তানজিন তিশা বলেন, ‘শুটিংয়ের পুরোটা সময় একটা স্বপ্নের মধ্যে ছিলাম। অসাধারণ একটি কাজ হয়েছে। ইমরান আর আমার আগের দুটি ভিডিওর চেয়েও এটি শ্রোতাদের কাছে বেশি প্রশংসিত হবে বলে আশা করি।

ঈদের ঠিক আগে আগে গানচিল মিউজিকের ইউটিউব চ্যানেলে ভিডিওটি প্রকাশ করা হবে। দেখা যাবে বিভিন্ন টিভি চ্যানেলেও।

বিডিপ্রেস/আরজে