BDpress

মালয়েশিয়ায় সিন্ডিকেট অফিস থেকে ৬৫ বাংলাদেশিকে উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক

অ+ অ-
মালয়েশিয়ায় সিন্ডিকেট অফিস থেকে ৬৫ বাংলাদেশিকে উদ্ধার
মালয়েশিয়ার নাগরিক কর্তৃক পরিচালিত একটি অফিস থেকে ৩৭৭টি পাসপোর্টসহ ৬৫ জন বাংলাদেশিকে উদ্ধার করেছে ইমিগ্রেশন পুলিশ।

মঙ্গলবার মালয়েশিয়ার বান্ডার বারু নিলাই শহরের একটি অফিস থেকে মোট ৩৭৭টি পাসপোর্ট উদ্ধার করে অভিবাসন বিভাগ। যার মধ্যে ৩৬১ বাংলাদেশি পাসপোর্টসহ উদ্ধার করা হয় অসহায় ৬৫ জন বাংলাদেশিকে। গ্রেফতার করা হয়েছে একজন কোম্পানির মালিককে।

বুধবার অভিবাসন বিভাগের মহাপরিচালক দাতুক সেরি মোস্তফা আলী সাংবাদিকদের জানান, দীর্ঘদিন ধরে অবৈধদের বৈধ করার নামে প্রতারণাসহ জাল ভিসা করার অভিযোগের কারণে তদন্তে দেখা গেছে কোম্পানিটি দীর্ঘদিন ধরে অভিবাসী শ্রমিকদের জিম্মি করে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।

উদ্ধারকৃত বাংলাদেশিরা জানান, দীর্ঘ পাঁচ মাস ধরে বেতন না দিয়ে রুমের ভেতর তাদের আটকে রাখা হয়েছিল। এভাবে দীর্ঘদিন বিভিন্ন শ্রমিকদের কাছ থেকে হাতিয়ে নিয়েছে কোটি কোটি টাকা। এছাড়াও বিভিন্ন কোম্পানির কাছে বাংলাদেশি শ্রমিকদের ১ হাজার ৮০০ থেকে ২০০০ মালয় রিংগিতের বিনিময়ে বিক্রি করত।

ইমিগ্রেশন বিভাগের মহাপরিচালক আরও জানান, অবৈধ অভিবাসীদের বিরুদ্ধে যেমন কঠোর তার থেকেও বেশি কঠোর যারা সিন্ডিকেটের মাধ্যমে অভিবাসীদের ঠকিয়ে কোটি কোটি টাকা কামিয়েছে। অবৈধ অভিবাসী এবং সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে আমাদের যুদ্ধ শুরু হয়েছে।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি আরও একটি সিন্ডিকেটকে নিলাই থেকে গ্রেফতার করে অভিবাসন বিভাগ।

বিডিপ্রেস/আরজে

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

মালয়েশিয়ায় সিন্ডিকেট অফিস থেকে ৬৫ বাংলাদেশিকে উদ্ধার


মালয়েশিয়ায় সিন্ডিকেট অফিস থেকে ৬৫ বাংলাদেশিকে উদ্ধার

মঙ্গলবার মালয়েশিয়ার বান্ডার বারু নিলাই শহরের একটি অফিস থেকে মোট ৩৭৭টি পাসপোর্ট উদ্ধার করে অভিবাসন বিভাগ। যার মধ্যে ৩৬১ বাংলাদেশি পাসপোর্টসহ উদ্ধার করা হয় অসহায় ৬৫ জন বাংলাদেশিকে। গ্রেফতার করা হয়েছে একজন কোম্পানির মালিককে।

বুধবার অভিবাসন বিভাগের মহাপরিচালক দাতুক সেরি মোস্তফা আলী সাংবাদিকদের জানান, দীর্ঘদিন ধরে অবৈধদের বৈধ করার নামে প্রতারণাসহ জাল ভিসা করার অভিযোগের কারণে তদন্তে দেখা গেছে কোম্পানিটি দীর্ঘদিন ধরে অভিবাসী শ্রমিকদের জিম্মি করে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে।

উদ্ধারকৃত বাংলাদেশিরা জানান, দীর্ঘ পাঁচ মাস ধরে বেতন না দিয়ে রুমের ভেতর তাদের আটকে রাখা হয়েছিল। এভাবে দীর্ঘদিন বিভিন্ন শ্রমিকদের কাছ থেকে হাতিয়ে নিয়েছে কোটি কোটি টাকা। এছাড়াও বিভিন্ন কোম্পানির কাছে বাংলাদেশি শ্রমিকদের ১ হাজার ৮০০ থেকে ২০০০ মালয় রিংগিতের বিনিময়ে বিক্রি করত।

ইমিগ্রেশন বিভাগের মহাপরিচালক আরও জানান, অবৈধ অভিবাসীদের বিরুদ্ধে যেমন কঠোর তার থেকেও বেশি কঠোর যারা সিন্ডিকেটের মাধ্যমে অভিবাসীদের ঠকিয়ে কোটি কোটি টাকা কামিয়েছে। অবৈধ অভিবাসী এবং সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে আমাদের যুদ্ধ শুরু হয়েছে।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি আরও একটি সিন্ডিকেটকে নিলাই থেকে গ্রেফতার করে অভিবাসন বিভাগ।

বিডিপ্রেস/আরজে