BDpress

আকাশবীণা উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

অ+ অ-
আকাশবীণা উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী
বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বহরে যুক্ত হওয়া বোয়িং ৭৮৭-৮ ড্রিমলাইনার উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বুধবার দুপুর সাড়ে ১২টায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ভিভিআইপি টার্মিনালে এক অনুষ্ঠানে অত্যাধুনিক এ উড়োজাহাজ আকাশবীণার উদ্বোধন করেন তিনি।

এ উদ্বোধনের মাধ্যমে মূলত আজ (বুধবার) থেকে ড্রিমলাইনারের বাণিজ্যিক যাত্রা শুরু হলো। আজ সন্ধ্যায় ঢাকা থেকে ড্রিমলাইনারের প্রথম বাণিজ্যিক ফ্লাইট মালয়েশিয়ার উদ্দেশে ছেড়ে যাবে।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ২০০৮ সালে মার্কিন বিমান নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বোয়িং কোম্পানির সঙ্গে ১০টি নতুন বিমান ক্রয়ের জন্য ২ দশমিক ১ বিলিয়ন ইউএস ডলারের চুক্তি করে। সেই চুক্তির আওতায় ইতোমধ্যে বহরে যুক্ত হয়েছে ছয়টি বিমান। বাকি চারটির প্রথমটি বহরে যুক্ত হলো।

তিনি বলেন, বাকি তিনটি বিমানের একটি এ বছর নভেম্বরে এবং সর্বশেষ দুটি আসবে আগামী বছর সেপ্টেম্বর মাসে। এছাড়া ২০২০ সালে বোম্বাডিয়ার তৈরি ৩টি নতুন ড্যাশ ৮ কিউ ৪০০ উড়োজাহাজ বিমান বহরে যুক্ত হবে। বিমানের আধুনিকায়নে সরকারের সব ধরনের পদক্ষেপ অব্যাহত থাকবে।

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী এ কে এম শাজাহান কামাল, বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্সিয়া বার্নিকাট, বিমান পরিচালনা পর্যদের চেয়ারম্যান সাবেক এয়ার মার্শাল ইনামুল বারী, বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও এ এম মোসাদ্দিক আহমেদ, বেবিচক চেয়ারম্যান এয়ার ভািস মার্শাল নাঈম হাসান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, অত্যাধুনিক বোয়িং ৭৮৭-৮ ড্রিমলাইনারে যাত্রীদের ইন্টারনেট ব্যবহারের ওয়াইফাই সুবিধা জন্য রয়েছে। এছাড়া আকাশে উড্ডয়নের সময় ফোন কল করতে পারবেন যাত্রীরা।

বিডিপ্রেস/আরজে

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

আকাশবীণা উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী


আকাশবীণা উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

এ উদ্বোধনের মাধ্যমে মূলত আজ (বুধবার) থেকে ড্রিমলাইনারের বাণিজ্যিক যাত্রা শুরু হলো। আজ সন্ধ্যায় ঢাকা থেকে ড্রিমলাইনারের প্রথম বাণিজ্যিক ফ্লাইট মালয়েশিয়ার উদ্দেশে ছেড়ে যাবে।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ২০০৮ সালে মার্কিন বিমান নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বোয়িং কোম্পানির সঙ্গে ১০টি নতুন বিমান ক্রয়ের জন্য ২ দশমিক ১ বিলিয়ন ইউএস ডলারের চুক্তি করে। সেই চুক্তির আওতায় ইতোমধ্যে বহরে যুক্ত হয়েছে ছয়টি বিমান। বাকি চারটির প্রথমটি বহরে যুক্ত হলো।

তিনি বলেন, বাকি তিনটি বিমানের একটি এ বছর নভেম্বরে এবং সর্বশেষ দুটি আসবে আগামী বছর সেপ্টেম্বর মাসে। এছাড়া ২০২০ সালে বোম্বাডিয়ার তৈরি ৩টি নতুন ড্যাশ ৮ কিউ ৪০০ উড়োজাহাজ বিমান বহরে যুক্ত হবে। বিমানের আধুনিকায়নে সরকারের সব ধরনের পদক্ষেপ অব্যাহত থাকবে।

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী এ কে এম শাজাহান কামাল, বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্সিয়া বার্নিকাট, বিমান পরিচালনা পর্যদের চেয়ারম্যান সাবেক এয়ার মার্শাল ইনামুল বারী, বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও এ এম মোসাদ্দিক আহমেদ, বেবিচক চেয়ারম্যান এয়ার ভািস মার্শাল নাঈম হাসান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, অত্যাধুনিক বোয়িং ৭৮৭-৮ ড্রিমলাইনারে যাত্রীদের ইন্টারনেট ব্যবহারের ওয়াইফাই সুবিধা জন্য রয়েছে। এছাড়া আকাশে উড্ডয়নের সময় ফোন কল করতে পারবেন যাত্রীরা।

বিডিপ্রেস/আরজে