BDpress

মুজিব-ইন্দিরার মতোই অটুট হাসিনা-মোদির সম্পর্ক : শ্রিংলা

নিজস্ব প্রতিবেদক

অ+ অ-
মুজিব-ইন্দিরার মতোই অটুট হাসিনা-মোদির সম্পর্ক : শ্রিংলা
বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা বলেছেন, ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতাযুদ্ধের সময় ভারত-বাংলাদেশের জনগণের মধ্যে যে সম্পর্ক ছিল তা এখনো অটুট আছে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে।

তিনি বলেন, ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় মুুক্তিযোদ্ধাদের সঙ্গে ভারতীয় সৈনিকরা একত্রিত হয়ে যুদ্ধ করে অনেকে প্রাণ দিয়েছেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও ইন্দিরা গান্ধী সুসম্পর্কের যে বীজ বপন করেছিলেন বর্তমানে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মধ্যে সেই সম্পর্ক অটুট রয়েছে। ফলে সুসময়ে-দুঃসময়ে বাংলাদেশের জনগণের পাশে থাকবে ভারত।

রোববার সকালে পিরোজপুরের স্বরূপকাঠির কুড়িয়ানায় কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ কলেজে এক সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। স্থানীয় বক্তাদের মুখে কুড়িয়ানায় পাকবাহিনীর রোমহর্ষক অত্যাচার-নির্যাতনের বর্ণনা শুনে ব্যথিত হয়ে নিজের অভিব্যক্তি প্রকাশ করেন হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা।

কলেজ কমিটির সভাপতি অ্যাডভোকেট কানাই লাল বিশ্বাসের সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য রাখেন- অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. মোস্তাফিজুর রহমান, শের-ই-বাংলা ফাউন্ডেশনের সভাপতি ফাইয়াজুল হক রাজু, হিন্দু কল্যাণ ট্রাস্টের ট্রাস্টি অধ্যক্ষ বিপুল বিহারী হালদার, ইউপি চেয়ারম্যান শেখর কুমার সিকদার ও উপাধ্যক্ষ সঞ্জিব কুমার হালদার প্রমুখ।

বিডিপ্রেস/আরজে

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

মুজিব-ইন্দিরার মতোই অটুট হাসিনা-মোদির সম্পর্ক : শ্রিংলা


মুজিব-ইন্দিরার মতোই অটুট হাসিনা-মোদির সম্পর্ক : শ্রিংলা

তিনি বলেন, ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় মুুক্তিযোদ্ধাদের সঙ্গে ভারতীয় সৈনিকরা একত্রিত হয়ে যুদ্ধ করে অনেকে প্রাণ দিয়েছেন। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও ইন্দিরা গান্ধী সুসম্পর্কের যে বীজ বপন করেছিলেন বর্তমানে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির মধ্যে সেই সম্পর্ক অটুট রয়েছে। ফলে সুসময়ে-দুঃসময়ে বাংলাদেশের জনগণের পাশে থাকবে ভারত।

রোববার সকালে পিরোজপুরের স্বরূপকাঠির কুড়িয়ানায় কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ কলেজে এক সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। স্থানীয় বক্তাদের মুখে কুড়িয়ানায় পাকবাহিনীর রোমহর্ষক অত্যাচার-নির্যাতনের বর্ণনা শুনে ব্যথিত হয়ে নিজের অভিব্যক্তি প্রকাশ করেন হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা।

কলেজ কমিটির সভাপতি অ্যাডভোকেট কানাই লাল বিশ্বাসের সভাপতিত্বে এতে বক্তব্য রাখেন- অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. মোস্তাফিজুর রহমান, শের-ই-বাংলা ফাউন্ডেশনের সভাপতি ফাইয়াজুল হক রাজু, হিন্দু কল্যাণ ট্রাস্টের ট্রাস্টি অধ্যক্ষ বিপুল বিহারী হালদার, ইউপি চেয়ারম্যান শেখর কুমার সিকদার ও উপাধ্যক্ষ সঞ্জিব কুমার হালদার প্রমুখ।

বিডিপ্রেস/আরজে