BDpress

প্রথমবারের মতো দিল্লিতে বাংলা ভাষা শেখানো হবে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

অ+ অ-
প্রথমবারের মতো দিল্লিতে বাংলা ভাষা শেখানো হবে
কাজের সূত্রে অনেক বাঙালিকেই ভারতের দিল্লি যেতে হয়। সেখানকার অনেকেই কিছুটা হিন্দি মেশানো বাংলায় কথা বলতে পারলেও বাংলা পড়তে বা লিখতে পারে না। তাই এবার পশ্চিমবঙ্গ সরকার দিল্লিতে বাংলা ভাষা শেখানোর পরিকল্পনা নিচ্ছে বলে জানিয়েছে আনন্দবাজার।

প্রাথমিকভাবে দিল্লির বঙ্গভবন বা তথ্য-সংস্কৃতি দপ্তরের ‘মুক্তধারা’ ভবনে এই বাংলা ভাষা শেখানোর কেন্দ্র খোলা হবে। দুটি ভবনই দিল্লির প্রাণকেন্দ্র কনট প্লেসের খুব কাছে। তাই দিল্লির যেকোনো প্রান্ত থেকেই উৎসাহীরা আসতে পারবেন।

দিল্লিতে নিযুক্ত রাজ্যের প্রিন্সিপাল রেসিডেন্ট কমিশনার কৃষ্ণ গুপ্ত এটির প্রস্তাব করেন। শিশুদের পাশাপাশি তাদের মা-বাবার জন্য বাংলা সাহিত্য ও বাংলা সিনেমার ‘অ্যাপ্রিসিয়েশন কোর্স’ চালু করা বিষয়টিও ভাবা হচ্ছে।

পশ্চিমবঙ্গ সরকার এতদিন মূলত দিল্লিতে বাংলার সংস্কৃতি, হস্তশিল্প ও রাজ্যের পণ্য তুলে ধরতে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। ভাষা শিক্ষার উদ্যোগ এই প্রথম। পশ্চিমবঙ্গ সরকার সূত্রের মতে, তথ্য-সংস্কৃতি দপ্তর এবং স্কুল-শিক্ষা দপ্তরের সঙ্গে আলোচনা করে বাংলা শেখানোর পাঠ্যক্রম ও কোর্সের সময়সীমা ঠিক করা হবে।

দিল্লিতে সব রাজ্য সরকারেরই একটি করে রেসিডেন্ট কমিশনারের অফিস আছে। সব কমিশনারই নিজের রাজ্যের ভাষা শেখানোর ক্ষেত্রে উৎসাহ দেয়, তা নয়। তবে ব্যতিক্রম কেরালা। বিভিন্ন মালয়ালি সংগঠন কেরালা সরকারের মালয়ালম মিশনের সহযোগিতায় প্রায় দেড়শ’ মালয়ালম শিক্ষা কেন্দ্র চালায়।

প্রতি বছর প্রবাসী মালয়ালিদের পরীক্ষাও হয়। গুজরাট সরকার গুজরাটি শেখানোর ক্লাস চালায়। সেখানে অন্য ভাষার মানুষেরা চাইলে গুজরাটি শিখতে পারে।

বিডিপ্রেস/আরজে

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

প্রথমবারের মতো দিল্লিতে বাংলা ভাষা শেখানো হবে


প্রথমবারের মতো দিল্লিতে বাংলা ভাষা শেখানো হবে

প্রাথমিকভাবে দিল্লির বঙ্গভবন বা তথ্য-সংস্কৃতি দপ্তরের ‘মুক্তধারা’ ভবনে এই বাংলা ভাষা শেখানোর কেন্দ্র খোলা হবে। দুটি ভবনই দিল্লির প্রাণকেন্দ্র কনট প্লেসের খুব কাছে। তাই দিল্লির যেকোনো প্রান্ত থেকেই উৎসাহীরা আসতে পারবেন।

দিল্লিতে নিযুক্ত রাজ্যের প্রিন্সিপাল রেসিডেন্ট কমিশনার কৃষ্ণ গুপ্ত এটির প্রস্তাব করেন। শিশুদের পাশাপাশি তাদের মা-বাবার জন্য বাংলা সাহিত্য ও বাংলা সিনেমার ‘অ্যাপ্রিসিয়েশন কোর্স’ চালু করা বিষয়টিও ভাবা হচ্ছে।

পশ্চিমবঙ্গ সরকার এতদিন মূলত দিল্লিতে বাংলার সংস্কৃতি, হস্তশিল্প ও রাজ্যের পণ্য তুলে ধরতে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। ভাষা শিক্ষার উদ্যোগ এই প্রথম। পশ্চিমবঙ্গ সরকার সূত্রের মতে, তথ্য-সংস্কৃতি দপ্তর এবং স্কুল-শিক্ষা দপ্তরের সঙ্গে আলোচনা করে বাংলা শেখানোর পাঠ্যক্রম ও কোর্সের সময়সীমা ঠিক করা হবে।

দিল্লিতে সব রাজ্য সরকারেরই একটি করে রেসিডেন্ট কমিশনারের অফিস আছে। সব কমিশনারই নিজের রাজ্যের ভাষা শেখানোর ক্ষেত্রে উৎসাহ দেয়, তা নয়। তবে ব্যতিক্রম কেরালা। বিভিন্ন মালয়ালি সংগঠন কেরালা সরকারের মালয়ালম মিশনের সহযোগিতায় প্রায় দেড়শ’ মালয়ালম শিক্ষা কেন্দ্র চালায়।

প্রতি বছর প্রবাসী মালয়ালিদের পরীক্ষাও হয়। গুজরাট সরকার গুজরাটি শেখানোর ক্লাস চালায়। সেখানে অন্য ভাষার মানুষেরা চাইলে গুজরাটি শিখতে পারে।

বিডিপ্রেস/আরজে