BDpress

দেশে ঝুঁকিপূর্ণ কারখানা ১৬৩টি: বাণিজ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক

অ+ অ-
দেশে ঝুঁকিপূর্ণ কারখানা ১৬৩টি: বাণিজ্যমন্ত্রী
বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ জানিয়েছেন, দেশে সরকারিভাবে চিহ্নিত ঝুঁকিপূর্ণ কারখানার সংখ্যা ১৬৩টি। সোমববার বিকেলে জাতীয় সংসদে মো. মামুনুর রশিদ কিরণের (নোয়াখালি-৩) এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান। এরআগে বিকাল ৫টায় স্পিকার ড. শিরীন শারমীন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের বৈঠক শুরু হয়।

মন্ত্রী বলেন, রানা প্লাজা দুর্ঘটনার পর শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় ২০১৩ সালের ২৪ নভেম্বর ইউরোপীয় ক্রেতা সংগঠন একর্ড, উত্তর আমেরিকার ক্রেতা সংগঠন এলায়েন্স ও জাতীয় উদ্যোগের আওতায় তিন হাজার ৭৮০টি কারখানার এসেসমেন্ট সম্পন্ন করেছে। কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শক, রাজউক/সিডিএ/কেডিএ এর সদস্য ও বুয়েট এর সদস্যদের সমন্বয়ে গঠিত রিভিউ প্যানেল ১৬৩টি কারখানাকে ঝুঁকিপূর্ণ হিসাবে চিহ্নিত করেছে।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, চিহ্নিত ১৬৩টি কারখানার মধ্যে ইতোমধ্যে ৩৯টি কারখানা বন্ধ ও ৪৭টি কারখানাকে আংশিক বন্ধ করা হয়েছে। বাকি কারখানাগুলোর সংস্কার কাজ চলছে। বর্তমানে একর্ড এর সংস্কার কার্যক্রমের অগ্রগতির হার ৮৬ শতাংশ এবং এলায়েন্সের হার ৯০ শতাংশ বলে জানান তিনি।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, জাতীয় উদ্যোগের আওতায় রিমেডিয়েশন কো-অর্ডিনেশন সেল গঠন করা হয়েছে, যা কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের আওতায় স্বতন্ত্র ভবনে পরিচালিত হচ্ছে। এ কার্যক্রমের অগ্রগতি ত্বরান্বিত করতে কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর প্রকল্পের মাধ্যমে ৬০ জন প্রকৌশলী নিয়োগ করা হয়েছে। আইএলও'র সহযোগিতায় আরও ৪৭ জন প্রকৌশলী নিয়োগ করা হবে।

আরসিসিতে ১০৭ জন প্রকৌশলী চলতি বছরের জুলাই থেকে কাজ শুরু করেছে বলেও জানান মন্ত্রী।

বিডিপ্রেস/আরজে

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

দেশে ঝুঁকিপূর্ণ কারখানা ১৬৩টি: বাণিজ্যমন্ত্রী


দেশে ঝুঁকিপূর্ণ কারখানা ১৬৩টি: বাণিজ্যমন্ত্রী

মন্ত্রী বলেন, রানা প্লাজা দুর্ঘটনার পর শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় ২০১৩ সালের ২৪ নভেম্বর ইউরোপীয় ক্রেতা সংগঠন একর্ড, উত্তর আমেরিকার ক্রেতা সংগঠন এলায়েন্স ও জাতীয় উদ্যোগের আওতায় তিন হাজার ৭৮০টি কারখানার এসেসমেন্ট সম্পন্ন করেছে। কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শক, রাজউক/সিডিএ/কেডিএ এর সদস্য ও বুয়েট এর সদস্যদের সমন্বয়ে গঠিত রিভিউ প্যানেল ১৬৩টি কারখানাকে ঝুঁকিপূর্ণ হিসাবে চিহ্নিত করেছে।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, চিহ্নিত ১৬৩টি কারখানার মধ্যে ইতোমধ্যে ৩৯টি কারখানা বন্ধ ও ৪৭টি কারখানাকে আংশিক বন্ধ করা হয়েছে। বাকি কারখানাগুলোর সংস্কার কাজ চলছে। বর্তমানে একর্ড এর সংস্কার কার্যক্রমের অগ্রগতির হার ৮৬ শতাংশ এবং এলায়েন্সের হার ৯০ শতাংশ বলে জানান তিনি।

তোফায়েল আহমেদ বলেন, জাতীয় উদ্যোগের আওতায় রিমেডিয়েশন কো-অর্ডিনেশন সেল গঠন করা হয়েছে, যা কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের আওতায় স্বতন্ত্র ভবনে পরিচালিত হচ্ছে। এ কার্যক্রমের অগ্রগতি ত্বরান্বিত করতে কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর প্রকল্পের মাধ্যমে ৬০ জন প্রকৌশলী নিয়োগ করা হয়েছে। আইএলও'র সহযোগিতায় আরও ৪৭ জন প্রকৌশলী নিয়োগ করা হবে।

আরসিসিতে ১০৭ জন প্রকৌশলী চলতি বছরের জুলাই থেকে কাজ শুরু করেছে বলেও জানান মন্ত্রী।

বিডিপ্রেস/আরজে