BDpress

এবার ভারতে ধর্মগুরুর বিরুদ্ধে মা ও মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

অ+ অ-
এবার ভারতে ধর্মগুরুর বিরুদ্ধে মা ও মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ
ভারতে আবারও ধর্মগুরুর ‘বাবা’ বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। দিল্লির ‘বাবা আশু মহারাজ’ ওরফে আসিফ খানের বিরুদ্ধে এক মহিলা ও তার নাবালিকা মেয়েকে কয়েকবার ধর্ষণের অভিযোগ করা হয়েছে। এই অভিযোগে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে জেলা হাজতে পাঠিয়েছে।

ধর্ষণের শিকার মহিলা পুলিশকে জানিয়েছেন, বাবা আশু মহারাজ, তার কয়েকজন বন্ধু এবং ছেলে তাকে ও তার নাবালিকা মেয়েকে কয়েকবার ধর্ষণ করেছেন।

২০০৮ থেকে ২০১৩, এই পাঁচ বছর ধরে নিয়মিত শারীরিক অত্যাচারও চালানো হত তার ওপর। শুধু তাই নয়, আশু মহারাজ অভিযোগকারীর মেয়েকেও আশ্রমে নিয়ে আনতে আদেশ দিয়েছিলেন। পরে তার নাবালিকা কন্যাকে আশ্রমে নিয়ে এলে তাকেও ধর্ষণ করে আশু মহারাজ। কোথাও কোনও অভিযোগ জানানো হলে ফল ভাল হবে না বলে হুমকিও দেওয়া হয়েছিল বলে পুলিশকে জানিয়েছেন নির্যাতিতা মহিলা।

গত সপ্তাহে নয়াদিল্লির হউজ খাস থানায় অভিযোগ দায়ের করেন নির্যাতিতা। প্রাথমিক তদন্তের পর অভিযানে নামে দিল্লি পুলিশের ক্রাইম ব্রাঞ্চ।

বৃহস্পতিবার রাতেই অভিযান চালানো হয় নয়াদিল্লিতে এই ‘বাবা’র আশ্রমে। আশু মহারাজের সাথে প্রেপ্তার করা হয় তার ছেলে সময় খানকেও। আশ্রমের ‘কাজকর্ম’ বাবা-ছেলে মিলেই সামলাতেন বলে জানিয়েছে দিল্লি পুলিশের ক্রাইম ব্রাঞ্চ। তাদের জেরা করলে আরও কুকীর্তির সন্ধান মিলতে পারে এমনটাই অনুমান পুলিশের।

বিডিপ্রেস/আরজে

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

এবার ভারতে ধর্মগুরুর বিরুদ্ধে মা ও মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ


এবার ভারতে ধর্মগুরুর বিরুদ্ধে মা ও মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ

ধর্ষণের শিকার মহিলা পুলিশকে জানিয়েছেন, বাবা আশু মহারাজ, তার কয়েকজন বন্ধু এবং ছেলে তাকে ও তার নাবালিকা মেয়েকে কয়েকবার ধর্ষণ করেছেন।

২০০৮ থেকে ২০১৩, এই পাঁচ বছর ধরে নিয়মিত শারীরিক অত্যাচারও চালানো হত তার ওপর। শুধু তাই নয়, আশু মহারাজ অভিযোগকারীর মেয়েকেও আশ্রমে নিয়ে আনতে আদেশ দিয়েছিলেন। পরে তার নাবালিকা কন্যাকে আশ্রমে নিয়ে এলে তাকেও ধর্ষণ করে আশু মহারাজ। কোথাও কোনও অভিযোগ জানানো হলে ফল ভাল হবে না বলে হুমকিও দেওয়া হয়েছিল বলে পুলিশকে জানিয়েছেন নির্যাতিতা মহিলা।

গত সপ্তাহে নয়াদিল্লির হউজ খাস থানায় অভিযোগ দায়ের করেন নির্যাতিতা। প্রাথমিক তদন্তের পর অভিযানে নামে দিল্লি পুলিশের ক্রাইম ব্রাঞ্চ।

বৃহস্পতিবার রাতেই অভিযান চালানো হয় নয়াদিল্লিতে এই ‘বাবা’র আশ্রমে। আশু মহারাজের সাথে প্রেপ্তার করা হয় তার ছেলে সময় খানকেও। আশ্রমের ‘কাজকর্ম’ বাবা-ছেলে মিলেই সামলাতেন বলে জানিয়েছে দিল্লি পুলিশের ক্রাইম ব্রাঞ্চ। তাদের জেরা করলে আরও কুকীর্তির সন্ধান মিলতে পারে এমনটাই অনুমান পুলিশের।

বিডিপ্রেস/আরজে