BDpress

কৃতি শিক্ষার্থীরা পেল ডিআরইউর সংবর্ধনা ও বৃত্তি

নিজস্ব প্রতিবেদক

অ+ অ-
কৃতি শিক্ষার্থীরা পেল ডিআরইউর সংবর্ধনা ও বৃত্তি
এ বছর মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও উচ্চ মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এইচএসসি) পরীক্ষায় উত্তীর্ণ কৃতী শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা ও বৃত্তি প্রদান করেছে পেশাজীবী সাংবাদিকদের সংগঠন ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি। সংগঠনটির সদস্যদের সন্তানরা এই সংবর্ধনা ও বৃত্তি পেয়েছে।

শুক্রবার সংগঠনের গোলটেবিল মিলনায়তনে ডিআরইউ সভাপতি সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে সংবর্ধনায় প্রধান অতিথি ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার অ্যান্ড কমার্স ব্যাংক লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. গোলাম ফারুক। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা উপ-কমিটির আহ্বায়ক ও ডিআরইউর যুগ্ম সম্পাদক মো. মঈন উদ্দিন খান। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন উপ-কমিটির সদস্য সচিব ও সংগঠনের কল্যাণবিষয়ক সম্পাদক কাওসার আজম। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন ডিআরইউর সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ শুকুর আলী শুভ।

২০১৮ সালে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ প্রাপ্ত ২৩ জন কৃতী শিক্ষার্থীকে এ বছর এই সংবর্ধনা দিয়েছে করলো ডিআরইউ। অতিথিরা কৃতী শিক্ষার্থীদের হাতে সম্মাননাপত্র, ক্রেস্ট ও বৃত্তি হিসেবে নগদ অর্থ তুলে দেন।

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ কৃতী শিক্ষার্থীদের অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, তোমাদের এ সাফল্য অব্যাহত রাখতে হবে। তোমরা এ দেশের সম্ভাবনা, আগামী দিনের যোগ্য নেতৃত্ব গড়ে উঠবে তোমাদের মধ্য থেকেই।

প্রশ্নপত্র ফাঁস প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, সরকারের কঠোর পদক্ষেপে প্রশ্নপত্র ফাঁস বন্ধ হয়েছে। একটি মহল প্রশ্নপত্র ফাঁসের গুজব ছড়িয়ে সমাজে বিশৃঙ্খলা ও উদ্বেগ ছড়ানোর অপচেষ্টা চালায়। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তাদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নিয়েছে।

বিশেষ অতিথির বক্তেব্যে সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার অ্যান্ড কমার্স ব্যাংক লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. গোলাম ফারুক ডিআরইউ’র এ ধরনের কর্মসূচিতে সব সময় পাশে থাকার আশ্বাস দেন।

এসএসসি পরীক্ষায় কৃতিত্বের জন্য সংবর্ধনা ও বৃত্তিপ্রাপ্তরা হলো :

শাহেদ চৌধুরীর কন্যা আতিয়া ফাইরোজ চৌধুরী, মাহমুদুল হাসান শামীমের কন্যা মেহজাবিন হাসান ঐশী, দৌলত আক্তার মালার কন্যা মাশিয়াত খালিদ প্রাপ্তি, জামাল উদ্দিনের পুত্র আহমেদ রবিউল, রফিকুল ইসলামের কন্যা লামিয়া ইসলাম মিম, এম. ওমর ফারুকের কন্যা ফারিহা ওমর ইরা, এএফএম হুমায়ূন কবির ভূঁইয়ার পুত্র সিয়াম তাহসিন ভূঁইয়া, তিমির লাল দত্তের পুত্র যুবরাজ দত্ত, সাব্বির মাহমুদের পুত্র সিফাত মাহমুদ, এ. এম. শহিদুল আজমের পুত্র আশরাফুল আজম, শরিফুল ইসলামের পুত্র রাহাঙ্গীর সাদমান ইসলাম, এসএম কাওসার রহমানের পুত্র এসএম আকিব রহমান, ফজলুল হকের পুত্র ফয়সাল আহমেদ, কানাই চক্রবর্তীর পুত্র দেবাঞ্জন চক্রবর্তী, মোস্তফা কামালের পুত্র ইরফান সাদিক কাফি, আমানুর রহমানের কন্যা ফারহান আক্তার হাফসা ও আমিনুল হক মল্লিকের কন্যা আদিবা হক মল্লিক।

এইচএসসি পরীক্ষায় কৃতিত্বের জন্য সংবর্ধনা ও বৃত্তিপ্রাপ্তরা হলো :

মাহমুদুল হাসান শামীমের কন্যা মাহবুবা হাসান হৃদি, মোস্তফা কামালের কন্যা তাসনিম জান্নাত রিফা, মোরশেদ নোমানের কন্যা তাসনুহা মাহনুর মোরশেদ প্রমী, এমএম কায়সারের কন্যা তাসফি কায়সার, আবুল কাশেমের পুত্র মুজাহিদুল ইসলাম শাহীন ও সুরাইয়া আক্তার মুন্নীর কন্যা তাবাসসুম মোস্তফা অথৈ।

বিডিপ্রেস/আরজে

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

কৃতি শিক্ষার্থীরা পেল ডিআরইউর সংবর্ধনা ও বৃত্তি


কৃতি শিক্ষার্থীরা পেল ডিআরইউর সংবর্ধনা ও বৃত্তি

শুক্রবার সংগঠনের গোলটেবিল মিলনায়তনে ডিআরইউ সভাপতি সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে সংবর্ধনায় প্রধান অতিথি ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার অ্যান্ড কমার্স ব্যাংক লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. গোলাম ফারুক। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা উপ-কমিটির আহ্বায়ক ও ডিআরইউর যুগ্ম সম্পাদক মো. মঈন উদ্দিন খান। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন উপ-কমিটির সদস্য সচিব ও সংগঠনের কল্যাণবিষয়ক সম্পাদক কাওসার আজম। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন ডিআরইউর সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ শুকুর আলী শুভ।

২০১৮ সালে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ প্রাপ্ত ২৩ জন কৃতী শিক্ষার্থীকে এ বছর এই সংবর্ধনা দিয়েছে করলো ডিআরইউ। অতিথিরা কৃতী শিক্ষার্থীদের হাতে সম্মাননাপত্র, ক্রেস্ট ও বৃত্তি হিসেবে নগদ অর্থ তুলে দেন।

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ কৃতী শিক্ষার্থীদের অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, তোমাদের এ সাফল্য অব্যাহত রাখতে হবে। তোমরা এ দেশের সম্ভাবনা, আগামী দিনের যোগ্য নেতৃত্ব গড়ে উঠবে তোমাদের মধ্য থেকেই।

প্রশ্নপত্র ফাঁস প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, সরকারের কঠোর পদক্ষেপে প্রশ্নপত্র ফাঁস বন্ধ হয়েছে। একটি মহল প্রশ্নপত্র ফাঁসের গুজব ছড়িয়ে সমাজে বিশৃঙ্খলা ও উদ্বেগ ছড়ানোর অপচেষ্টা চালায়। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তাদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নিয়েছে।

বিশেষ অতিথির বক্তেব্যে সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার অ্যান্ড কমার্স ব্যাংক লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. গোলাম ফারুক ডিআরইউ’র এ ধরনের কর্মসূচিতে সব সময় পাশে থাকার আশ্বাস দেন।

এসএসসি পরীক্ষায় কৃতিত্বের জন্য সংবর্ধনা ও বৃত্তিপ্রাপ্তরা হলো :

শাহেদ চৌধুরীর কন্যা আতিয়া ফাইরোজ চৌধুরী, মাহমুদুল হাসান শামীমের কন্যা মেহজাবিন হাসান ঐশী, দৌলত আক্তার মালার কন্যা মাশিয়াত খালিদ প্রাপ্তি, জামাল উদ্দিনের পুত্র আহমেদ রবিউল, রফিকুল ইসলামের কন্যা লামিয়া ইসলাম মিম, এম. ওমর ফারুকের কন্যা ফারিহা ওমর ইরা, এএফএম হুমায়ূন কবির ভূঁইয়ার পুত্র সিয়াম তাহসিন ভূঁইয়া, তিমির লাল দত্তের পুত্র যুবরাজ দত্ত, সাব্বির মাহমুদের পুত্র সিফাত মাহমুদ, এ. এম. শহিদুল আজমের পুত্র আশরাফুল আজম, শরিফুল ইসলামের পুত্র রাহাঙ্গীর সাদমান ইসলাম, এসএম কাওসার রহমানের পুত্র এসএম আকিব রহমান, ফজলুল হকের পুত্র ফয়সাল আহমেদ, কানাই চক্রবর্তীর পুত্র দেবাঞ্জন চক্রবর্তী, মোস্তফা কামালের পুত্র ইরফান সাদিক কাফি, আমানুর রহমানের কন্যা ফারহান আক্তার হাফসা ও আমিনুল হক মল্লিকের কন্যা আদিবা হক মল্লিক।

এইচএসসি পরীক্ষায় কৃতিত্বের জন্য সংবর্ধনা ও বৃত্তিপ্রাপ্তরা হলো :

মাহমুদুল হাসান শামীমের কন্যা মাহবুবা হাসান হৃদি, মোস্তফা কামালের কন্যা তাসনিম জান্নাত রিফা, মোরশেদ নোমানের কন্যা তাসনুহা মাহনুর মোরশেদ প্রমী, এমএম কায়সারের কন্যা তাসফি কায়সার, আবুল কাশেমের পুত্র মুজাহিদুল ইসলাম শাহীন ও সুরাইয়া আক্তার মুন্নীর কন্যা তাবাসসুম মোস্তফা অথৈ।

বিডিপ্রেস/আরজে