BDpress

খাশোগিকে হত্যা করে কাটা আঙুল যুবরাজকে দেখানো হয়েছিল

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

অ+ অ-
খাশোগিকে হত্যা করে কাটা আঙুল যুবরাজকে দেখানো হয়েছিল
হত্যার প্রমাণ হিসেবে সাংবাদিক জামাল খাশোগি কাটা আঙুল যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের জন্য সৌদি আরব নিয়ে গিয়েছিল ঘাতকরা। হত্যা মিশন সফল প্রমাণ করতে সৌদি যুবরাজ এ নির্দেশ দিয়েছিলেন।

সৌদি রাজপরিবারের ঘনিষ্ঠ সূত্রের বরাত দিয়ে যুক্তরাজ্য ভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম মিররে এমন দাবি করা হয়েছে।

ইরানের তেহরান টাইমসও তাদের প্রতিবেদনেও এমনটি দাবি করেছে।

মিররের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ঘাতক দল রিয়াদে ফিরে গিয়ে সৌদি সিংহাসনের উত্তরাধিকার (ক্রাউন প্রিন্স) সালমানের কাছে জামাল খাশোগি হত্যার প্রমাণ হিসেবে তার কাটা আঙুল উপস্থাপন করে।

হত্যার আগে খাশোগি যখন জীবিত ছিলেন তখনই ঘাতকরা তার আঙুলগুলো কেটে নেয় এবং হত্যা মিশন সফলের প্রমাণ হিসেবে কাটা আঙুল একটি প্রাইভেট বিমানে সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদ নেওয়া হয়।

সূত্রের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘যুবরাজ সালমান সব সময়ই বলে থাকেন, যেসব লেখক তার সমালোচনা করবেন, তাদের আঙুল তিনি কেটে ফেলবেন।’

এর আগে গত ২ অক্টোবর তুরস্কের ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেটে ব্যক্তিগত কাগজপত্র আনার প্রয়োজনে প্রবেশের পর থেকে নিখোঁজ ছিলেন সাংবাদিক জামাল খাশোগি। শুরু থেকে তুরস্ক দাবি করে আসছিলো সৌদি কনস্যুলেটের ভেতরই জামাল খাশোগিকে হত্যা করা হয়েছে।

প্রথম দিকে অস্বীকার করে নানান রকম কথা বললেও ঘটনার ১৭দিন পর কনস্যুলেটের ভবনের ভেতর খাশোগি নিহত হওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে নেয় সৌদি কর্তৃপক্ষ। সৌদি ক্রাউন প্রিন্স সালমানের নির্দেশে রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় এ হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

যুক্তরাষ্ট্রে স্বেচ্ছা-নির্বাসিত খাশোগি ছিলেন বাদশাহ-যুবরাজসহ সৌদি রাজপরিবারের কট্টর সমালোচক।
বিডিপ্রেস/আলী

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

খাশোগিকে হত্যা করে কাটা আঙুল যুবরাজকে দেখানো হয়েছিল


খাশোগিকে হত্যা করে কাটা আঙুল যুবরাজকে দেখানো হয়েছিল

সৌদি রাজপরিবারের ঘনিষ্ঠ সূত্রের বরাত দিয়ে যুক্তরাজ্য ভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম মিররে এমন দাবি করা হয়েছে।

ইরানের তেহরান টাইমসও তাদের প্রতিবেদনেও এমনটি দাবি করেছে।

মিররের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ঘাতক দল রিয়াদে ফিরে গিয়ে সৌদি সিংহাসনের উত্তরাধিকার (ক্রাউন প্রিন্স) সালমানের কাছে জামাল খাশোগি হত্যার প্রমাণ হিসেবে তার কাটা আঙুল উপস্থাপন করে।

হত্যার আগে খাশোগি যখন জীবিত ছিলেন তখনই ঘাতকরা তার আঙুলগুলো কেটে নেয় এবং হত্যা মিশন সফলের প্রমাণ হিসেবে কাটা আঙুল একটি প্রাইভেট বিমানে সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদ নেওয়া হয়।

সূত্রের বরাত দিয়ে প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘যুবরাজ সালমান সব সময়ই বলে থাকেন, যেসব লেখক তার সমালোচনা করবেন, তাদের আঙুল তিনি কেটে ফেলবেন।’

এর আগে গত ২ অক্টোবর তুরস্কের ইস্তাম্বুলে সৌদি কনস্যুলেটে ব্যক্তিগত কাগজপত্র আনার প্রয়োজনে প্রবেশের পর থেকে নিখোঁজ ছিলেন সাংবাদিক জামাল খাশোগি। শুরু থেকে তুরস্ক দাবি করে আসছিলো সৌদি কনস্যুলেটের ভেতরই জামাল খাশোগিকে হত্যা করা হয়েছে।

প্রথম দিকে অস্বীকার করে নানান রকম কথা বললেও ঘটনার ১৭দিন পর কনস্যুলেটের ভবনের ভেতর খাশোগি নিহত হওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে নেয় সৌদি কর্তৃপক্ষ। সৌদি ক্রাউন প্রিন্স সালমানের নির্দেশে রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় এ হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

যুক্তরাষ্ট্রে স্বেচ্ছা-নির্বাসিত খাশোগি ছিলেন বাদশাহ-যুবরাজসহ সৌদি রাজপরিবারের কট্টর সমালোচক।
বিডিপ্রেস/আলী