BDpress

আদালত ভবনে আইনজীবীকে লাঞ্ছিত, সদস্য পদ বাতিল

জেলা প্রতিবেদক

অ+ অ-
আদালত ভবনে আইনজীবীকে লাঞ্ছিত, সদস্য পদ বাতিল
বাগেরহাটে আদালত ভবনে এক আইনজীবীকে শারীরিক ভাবে লাঞ্ছিত করাসহ পেশাগত অসদাচারণের অভিযোগে কাজী মো. শহিদুল্লাহ’র সদস্য পদ সাময়িক ভাবে বাতিল করেছে জেলা আইনজীবী সমিতি। বৃহস্পতিবার বাগেরহাট জেলা আইনজীবী সমিতি এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এতথ্য নিশ্চিত করেছে।

এ ঘটনায় জড়িত তার ভাই শিক্ষানবিশ আইনজীবী কাজী তারিক মুসাকেও জেলার সকল আদালতে প্রবেশ, মামলা পরিচালনাসহ আইনজীবী সমিতি ভবনে প্রবেশ নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

বাগেরহাট জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট মো. আলতাফ হোসেন জানান, গত ৪ নভেম্বর আদালত ভবনের এজলাশের বাইরে আইনজীবী কাজী মো. শহিদুল্লাহ ও তার ভাই কাজী তারিক মুসা জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্য আইনজীবী সুদেব কুমার মৃধাকে শারীরিক ভাবে লাঞ্ছিত করাসহ পেশাগত অসদাচারণ করেন।

এবিষয়ে প্রতিকার চেয়ে ওইদিনই সুদেব কুমার মৃধা জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি বরাবরে আবেদন করেন।  জেলা আইনজীবী সমিতি কাজী মো. শহিদুল্লাহ’র কাছে জবাব চেয়ে কারণ দর্শানোর নোটিশ পাঠায়।  কাজী মো. শহিদুল্লাহ’র পাঠানো কারণ দর্শানোর নোটিশের জবাব সন্তোজনক না হওয়ায় জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাহী কমিটির সভায় সর্বসম্মত ভাবে তার সদস্য পদ সাময়িক ভাবে বাতিল করা হয়।  এরপর জেলা আইনজীবী সমিতির জরুরি সাধারণ সভায়ও কাজী মো. শহিদুল্লাহ’র সদস্য পদ সাময়িক ভাবে বাতিলের সিদ্ধান্ত বহাল থাকে।
বিডিপ্রেস/আলী

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

আদালত ভবনে আইনজীবীকে লাঞ্ছিত, সদস্য পদ বাতিল


আদালত ভবনে আইনজীবীকে লাঞ্ছিত, সদস্য পদ বাতিল

এ ঘটনায় জড়িত তার ভাই শিক্ষানবিশ আইনজীবী কাজী তারিক মুসাকেও জেলার সকল আদালতে প্রবেশ, মামলা পরিচালনাসহ আইনজীবী সমিতি ভবনে প্রবেশ নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

বাগেরহাট জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট মো. আলতাফ হোসেন জানান, গত ৪ নভেম্বর আদালত ভবনের এজলাশের বাইরে আইনজীবী কাজী মো. শহিদুল্লাহ ও তার ভাই কাজী তারিক মুসা জেলা আইনজীবী সমিতির সদস্য আইনজীবী সুদেব কুমার মৃধাকে শারীরিক ভাবে লাঞ্ছিত করাসহ পেশাগত অসদাচারণ করেন।

এবিষয়ে প্রতিকার চেয়ে ওইদিনই সুদেব কুমার মৃধা জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি বরাবরে আবেদন করেন।  জেলা আইনজীবী সমিতি কাজী মো. শহিদুল্লাহ’র কাছে জবাব চেয়ে কারণ দর্শানোর নোটিশ পাঠায়।  কাজী মো. শহিদুল্লাহ’র পাঠানো কারণ দর্শানোর নোটিশের জবাব সন্তোজনক না হওয়ায় জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাহী কমিটির সভায় সর্বসম্মত ভাবে তার সদস্য পদ সাময়িক ভাবে বাতিল করা হয়।  এরপর জেলা আইনজীবী সমিতির জরুরি সাধারণ সভায়ও কাজী মো. শহিদুল্লাহ’র সদস্য পদ সাময়িক ভাবে বাতিলের সিদ্ধান্ত বহাল থাকে।
বিডিপ্রেস/আলী