BDpress

প্রধানমন্ত্রী ‘হংসবলাকা’ উদ্বোধন করবেন আজ

বিডিপ্রেস ডেস্ক

অ+ অ-
প্রধানমন্ত্রী ‘হংসবলাকা’ উদ্বোধন করবেন আজ
আজ আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন হতে যাচ্ছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের বহরে যুক্ত হওয়া বোয়িং ৭৮৭-৮ ড্রিমলাইনার ‘হংসবলাকা’।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, বুধবার দুপুরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে ‘হংসবলাকা’ উদ্বোধন করবেন এবং এরপর তিনি এই উড়োজাহাজের ভেতর ঘুরে দেখবেন।

এর আগে গত মাসের শেষের দিকে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, হংসবলাকা বিমানটি যুক্ত হলে দেশের বিমানবহরে উড়োজাহাজের সংখ্যা হবে ১৫টি। এর আগে গত ১৯ আগস্ট প্রথম ড্রিমলাইনার 'আকাশবীণা' ঢাকায় আসে।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, আগামী ১০ ডিসেম্বর থেকে ড্রিমলাইনার আকাশে উড়বে। ওই দিন থেকে ২৭১ আসনের ড্রিমলাইনারে ঢাকা-লন্ডন রুটে সপ্তাহে ৬টি, ঢাকা-দাম্মাম রুটে সপ্তাহে ৪টি এবং ঢাকা-ব্যাংকক রুটে সপ্তাহে ৩টি ফ্লাইট পরিচালনা করা হবে।

উল্লেখ্য, ড্রিমলাইনার ঘণ্টায় ৬৫০ কিলোমিটার বেগে উড়তে সক্ষম। উড়োজাহাজের শব্দ কমাতে ইঞ্জিনের সঙ্গে শেভরন প্রযুক্তি যুক্ত রয়েছে।

বিমানটি নিয়ন্ত্রিত হবে ইলেকট্রিক ফ্লাইট সিস্টেমে। কম্পোজিট ম্যাটেরিয়াল দিয়ে তৈরি হওয়ায় বিমান ওজনে হালকা।

ভূমি থেকে বিমানটির উচ্চতা ৫৬ ফুট। দুটি পাখার আয়তন ১৯৭ ফুট। এর মোট ওজন ১ লাখ ১৭ হাজার ৬১৭ কিলোগ্রাম, যা ২৯টি হাতির সমান! এর ককপিট থেকে টেল (লেজ) পর্যন্ত ২৩ লাখ যন্ত্রাংশ রয়েছে।

২৭১টি আসনের মধ্যে বিজনেস ক্লাস ২৪টি আর ২৪৭টি ইকোনমি ক্লাস। বিজনেস ক্লাসে ২৪টি আসন ১৮০ ডিগ্রি পর্যন্ত সম্পূর্ণ ফ্ল্যাটবেড সুবিধাযুক্ত।

এছাড়াও এতে যাত্রীদের জন্য রয়েছে ওয়াইফাই সুবিধা এবং আকাশে উড্ডয়নকালীন ফোন কল করা যাবে।

জানা গেছে, ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বর মাসে ‘গাঙচিল’ ও ‘রাজহংস’ নামের আরও দুটি বিমান ড্রিমলাইন বহরে যুক্ত হবে।
বিডিপ্রেস/আলী

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

প্রধানমন্ত্রী ‘হংসবলাকা’ উদ্বোধন করবেন আজ


প্রধানমন্ত্রী ‘হংসবলাকা’ উদ্বোধন করবেন আজ

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, বুধবার দুপুরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরে ‘হংসবলাকা’ উদ্বোধন করবেন এবং এরপর তিনি এই উড়োজাহাজের ভেতর ঘুরে দেখবেন।

এর আগে গত মাসের শেষের দিকে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, হংসবলাকা বিমানটি যুক্ত হলে দেশের বিমানবহরে উড়োজাহাজের সংখ্যা হবে ১৫টি। এর আগে গত ১৯ আগস্ট প্রথম ড্রিমলাইনার 'আকাশবীণা' ঢাকায় আসে।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, আগামী ১০ ডিসেম্বর থেকে ড্রিমলাইনার আকাশে উড়বে। ওই দিন থেকে ২৭১ আসনের ড্রিমলাইনারে ঢাকা-লন্ডন রুটে সপ্তাহে ৬টি, ঢাকা-দাম্মাম রুটে সপ্তাহে ৪টি এবং ঢাকা-ব্যাংকক রুটে সপ্তাহে ৩টি ফ্লাইট পরিচালনা করা হবে।

উল্লেখ্য, ড্রিমলাইনার ঘণ্টায় ৬৫০ কিলোমিটার বেগে উড়তে সক্ষম। উড়োজাহাজের শব্দ কমাতে ইঞ্জিনের সঙ্গে শেভরন প্রযুক্তি যুক্ত রয়েছে।

বিমানটি নিয়ন্ত্রিত হবে ইলেকট্রিক ফ্লাইট সিস্টেমে। কম্পোজিট ম্যাটেরিয়াল দিয়ে তৈরি হওয়ায় বিমান ওজনে হালকা।

ভূমি থেকে বিমানটির উচ্চতা ৫৬ ফুট। দুটি পাখার আয়তন ১৯৭ ফুট। এর মোট ওজন ১ লাখ ১৭ হাজার ৬১৭ কিলোগ্রাম, যা ২৯টি হাতির সমান! এর ককপিট থেকে টেল (লেজ) পর্যন্ত ২৩ লাখ যন্ত্রাংশ রয়েছে।

২৭১টি আসনের মধ্যে বিজনেস ক্লাস ২৪টি আর ২৪৭টি ইকোনমি ক্লাস। বিজনেস ক্লাসে ২৪টি আসন ১৮০ ডিগ্রি পর্যন্ত সম্পূর্ণ ফ্ল্যাটবেড সুবিধাযুক্ত।

এছাড়াও এতে যাত্রীদের জন্য রয়েছে ওয়াইফাই সুবিধা এবং আকাশে উড্ডয়নকালীন ফোন কল করা যাবে।

জানা গেছে, ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বর মাসে ‘গাঙচিল’ ও ‘রাজহংস’ নামের আরও দুটি বিমান ড্রিমলাইন বহরে যুক্ত হবে।
বিডিপ্রেস/আলী