BDpress

পিইসিতে শতভাগ নম্বর পেয়ে দেশসেরা জেরিন

বিডিপ্রেস ডেস্ক

অ+ অ-
পিইসিতে শতভাগ নম্বর পেয়ে দেশসেরা জেরিন
সম্প্রতি প্রকাশিত প্রাথমিক সমাপনী (পিইসি) পরীক্ষায় শতভাগ নম্বর পেয়ে দেশসেরা হয়েছেন নওগাঁর সারা জেরিন। সে জেলার মহাদেবপুর উপজেলার কলোনি পাড়ার বাসিন্দা।

জেরিনের বাবা সারোয়ার হোসেন পেশায় একজন সরকারি চাকরিজীবী এবং মা গৃহিনী। দু’ভাই-বোনের মধ্যে সারা ছোট।
এবারের প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনীতে ছয়টি পরীক্ষার প্রতিটিতে ১০০ নম্বর পেয়েছে সে। পরিবারের নজরদারি আর শিক্ষকদের অনুপ্রেরণা তার সাফল্যের অন্যতম কারণ। তার স্বপ্ন চিকিৎসক হয়ে মানুষের সেবা করা। তার এই অসাধারণ সাফল্যে গর্বিত পরিবারসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ।

এমন সাফল্যে সারা বলেছে, ‘৬০০তে ৬০০ পাওয়ায় সবচেয়ে বেশি যে অবদান রেখেছে সেটা আমার হাতের লেখা। আমার স্কুলের শিক্ষক, প্রাইভেট টিউটর, আমার বাবা-মা, ভাইয়া। সবাই আমাকে ভালোভাবে লেখাপড়া করতে বলতেন।’

জেরিনের বাবা বলেন, আমার মেয়ের সাফল্যের পেছনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অবদান রয়েছে, পাশাপাশি অভিভাবক হিসেবে যে সহযোগিতা দরকার আমরা তা করেছি। আমি নিজেও ব্যক্তিগতভাবে বাসায় পড়ালেখা করিয়েছি। জেরিনের সাফল্যে উচ্ছ্বসিত তার শিক্ষকসহ জেলার শিক্ষা কর্মকর্তাও।

নওগাঁর মহাদেবপুরের মালঞ্চ কিন্ডার গার্ডেনের অধ্যক্ষ তোফিকুল ইসলাম বলেন, সে শুধু সর্বোচ্চ নম্বর পাইনি সাফল্যের সাথে পূর্ণ নম্বর পেয়েছে।

নওগাঁ  জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আমিনুল ইসলাম বলেন, সারা জেরিন সমাপনী পরীক্ষায় ৬০০ নম্বরের মধ্যে ৬০০ পেয়েছে। এটা একটা আনন্দের বিষয় এবং আমাদের প্রাথমিক শিক্ষায় যে উন্নতি হচ্ছে তার একটা নিদর্শন জেরিন।
বিডিপ্রেস/আলী



এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

পিইসিতে শতভাগ নম্বর পেয়ে দেশসেরা জেরিন


পিইসিতে শতভাগ নম্বর পেয়ে দেশসেরা জেরিন

জেরিনের বাবা সারোয়ার হোসেন পেশায় একজন সরকারি চাকরিজীবী এবং মা গৃহিনী। দু’ভাই-বোনের মধ্যে সারা ছোট।
এবারের প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনীতে ছয়টি পরীক্ষার প্রতিটিতে ১০০ নম্বর পেয়েছে সে। পরিবারের নজরদারি আর শিক্ষকদের অনুপ্রেরণা তার সাফল্যের অন্যতম কারণ। তার স্বপ্ন চিকিৎসক হয়ে মানুষের সেবা করা। তার এই অসাধারণ সাফল্যে গর্বিত পরিবারসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ।

এমন সাফল্যে সারা বলেছে, ‘৬০০তে ৬০০ পাওয়ায় সবচেয়ে বেশি যে অবদান রেখেছে সেটা আমার হাতের লেখা। আমার স্কুলের শিক্ষক, প্রাইভেট টিউটর, আমার বাবা-মা, ভাইয়া। সবাই আমাকে ভালোভাবে লেখাপড়া করতে বলতেন।’

জেরিনের বাবা বলেন, আমার মেয়ের সাফল্যের পেছনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অবদান রয়েছে, পাশাপাশি অভিভাবক হিসেবে যে সহযোগিতা দরকার আমরা তা করেছি। আমি নিজেও ব্যক্তিগতভাবে বাসায় পড়ালেখা করিয়েছি। জেরিনের সাফল্যে উচ্ছ্বসিত তার শিক্ষকসহ জেলার শিক্ষা কর্মকর্তাও।

নওগাঁর মহাদেবপুরের মালঞ্চ কিন্ডার গার্ডেনের অধ্যক্ষ তোফিকুল ইসলাম বলেন, সে শুধু সর্বোচ্চ নম্বর পাইনি সাফল্যের সাথে পূর্ণ নম্বর পেয়েছে।

নওগাঁ  জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আমিনুল ইসলাম বলেন, সারা জেরিন সমাপনী পরীক্ষায় ৬০০ নম্বরের মধ্যে ৬০০ পেয়েছে। এটা একটা আনন্দের বিষয় এবং আমাদের প্রাথমিক শিক্ষায় যে উন্নতি হচ্ছে তার একটা নিদর্শন জেরিন।
বিডিপ্রেস/আলী