BDpress

যুক্তরাষ্ট্রে ইসলাম গ্রহণকারী নারী সাংবাদিক গ্রেফতার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

অ+ অ-
যুক্তরাষ্ট্রে ইসলাম গ্রহণকারী নারী সাংবাদিক গ্রেফতার
যুক্তরাষ্ট্রে ইসলাম গ্রহণকারী এক নারী সাংবাদিককে গ্রেফতার করা হয়েছে। শুক্রবার ইরানি টেলিভিশনের ওই নারী সাংবাদিককে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে দেশটির একটি আদালত। খবর সিএনএনের।

একটি মামলায় সাক্ষ্য প্রদানের জন্য তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে তিনি ওই অপরাধের সঙ্গে জড়িত নন বলে খবরে বলা হয়েছে।
 
ইরানি বংশোদ্ভুত সাংবাদিক মার্জিয়া হাশেমি যুক্তরাষ্ট্রে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ইরানের ইংলিশভাষী চ্যানেল প্রেস টিভির উপস্থাপিকা।
এছাড়া হাশেমি একজন ইরানিকে বিয়ে করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন। তিনি মধ্যপ্রাচ্যে মার্কিন নীতি এবং মুসলিম ও আফ্রিকান আমেরিকানদের প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের আচরণের সমালোচনা করে প্রামাণ্যচিত্র তৈরি করেছেন। তার এই গ্রেফতারকে কেন্দ্র করে দুদেশের মধ্যে চরম উত্তেজনা চলছে।

ওয়াশিংটনে এক শুনানিতে ইউএস ডিস্ট্রিক্ট কোর্ট ফর দ্য ডিস্ট্রিক্ট অব কলাম্বিয়ার প্রধান বিচারক বেরিল হোয়েল রায়ে বলেন, হাশেমিকে ওয়াশিংটনের একটি মামলার হুলিয়ায় গ্রেফতার করা হয়েছে।

রায়ে তার আগের নাম মেলানি ফ্রাঙ্কলিন উল্লেখ করা হয়। ‘যুক্তরাষ্ট্রের ফৌজদারী আইন লংঘনের’ একটি মামলায় গ্র্যান্ড জুরির সামনে সাক্ষ্য দেয়া শেষে তাকে ছেড়ে দেয়া হবে।
বিডিপ্রেস/আলী


এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

যুক্তরাষ্ট্রে ইসলাম গ্রহণকারী নারী সাংবাদিক গ্রেফতার


যুক্তরাষ্ট্রে ইসলাম গ্রহণকারী নারী সাংবাদিক গ্রেফতার

একটি মামলায় সাক্ষ্য প্রদানের জন্য তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে তিনি ওই অপরাধের সঙ্গে জড়িত নন বলে খবরে বলা হয়েছে।
 
ইরানি বংশোদ্ভুত সাংবাদিক মার্জিয়া হাশেমি যুক্তরাষ্ট্রে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ইরানের ইংলিশভাষী চ্যানেল প্রেস টিভির উপস্থাপিকা।
এছাড়া হাশেমি একজন ইরানিকে বিয়ে করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন। তিনি মধ্যপ্রাচ্যে মার্কিন নীতি এবং মুসলিম ও আফ্রিকান আমেরিকানদের প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের আচরণের সমালোচনা করে প্রামাণ্যচিত্র তৈরি করেছেন। তার এই গ্রেফতারকে কেন্দ্র করে দুদেশের মধ্যে চরম উত্তেজনা চলছে।

ওয়াশিংটনে এক শুনানিতে ইউএস ডিস্ট্রিক্ট কোর্ট ফর দ্য ডিস্ট্রিক্ট অব কলাম্বিয়ার প্রধান বিচারক বেরিল হোয়েল রায়ে বলেন, হাশেমিকে ওয়াশিংটনের একটি মামলার হুলিয়ায় গ্রেফতার করা হয়েছে।

রায়ে তার আগের নাম মেলানি ফ্রাঙ্কলিন উল্লেখ করা হয়। ‘যুক্তরাষ্ট্রের ফৌজদারী আইন লংঘনের’ একটি মামলায় গ্র্যান্ড জুরির সামনে সাক্ষ্য দেয়া শেষে তাকে ছেড়ে দেয়া হবে।
বিডিপ্রেস/আলী