BDpress

আত্মহত্যা করতে চেয়েছিলেন জয়া প্রদা!

বিনোদন ডেস্ক

অ+ অ-
আত্মহত্যা করতে চেয়েছিলেন জয়া প্রদা!
ভারতের প্রভাবশালী অভিনেত্রী ও রাজনীতিবিদ জয়াপ্রদা স্বীকার করেছেন, মিথ্যা গুজব, অসম্মান ও নিরাপত্তাহীনতায় কারণে তিনি বেশ কয়েকবার আত্মহত্যার কথা ভেবেছিলেন। পিটিআইকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এ তথ্য প্রকাশ করেন।

জয়া প্রদা বলেন, রাজনীতিতে তার ‘গড ফাদার’ অমর সিংয়ের সঙ্গে তার সম্পর্ক নিয়ে মিথ্যে গুজব ছড়িয়েছিল। তার ও অমর সিংয়ের ছবি সুপার ইম্পোজ করেও ভাইরাল করা হয়েছিল। বিকৃত করা তাদের সেই ঘনিষ্ঠ ছবি নিয়ে বলিউড থেকে সাধারণ দেশবাসীর মধ্যে আলোড়নও পড়ে যায়। তখন কেউ তার থেকে আসল সত্যিটা জানতে চাননি। এমনকী, পাশেও থাকেননি। বরং যে অমর সিংয়ের সঙ্গে তাঁর মিথ্যা সম্পর্কের গল্প সবাই বিশ্বাসও করেছিল।
তিনি বলেন, কেউ একবারও ভেবে দেখেননি যে প্রতি বছর অমর সিংয়ের হাতে আমি রাখি বাঁধি। সেই সময় প্রত্যেকটা মুহূর্ত তার কাছে দুর্বিষহ বলে মনে হত। এর ফলে মানসিক অবসাদ গ্রাস করেছিল।

সেই সময়ও তার পাশে ছিলেন স্বয়ং অমর সিং। জয়া প্রদা বলেন, ডায়ালিসিস থেকে বেরিয়ে এসেও আমার কথা শুনেছিলেন। ভরসা জুগিয়েছিলেন। বলেছিলেন, গুজবে কান না দিতে।

জয়া প্রদা আরও জানন, সমাজবাদী পার্টির নেতা আজম খান নানাভাবে হেনস্তা করার পাশাপাশি তার উপর অ্যাসিড হামলার চেষ্টাও করেছিলেন। পরিস্থিতি এমন হয়েছিল যে বেঁচে থাকাই তার কাছে চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়ায়। নিরাপদ আশ্রয়ের সন্ধানে নিজের বাড়ি ছেড়ে মায়ের বাড়িতেও আশ্রয় নিতে হয়েছিল তাকে।
বিডিপ্রেস/আলী


এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

আত্মহত্যা করতে চেয়েছিলেন জয়া প্রদা!


আত্মহত্যা করতে চেয়েছিলেন জয়া প্রদা!

জয়া প্রদা বলেন, রাজনীতিতে তার ‘গড ফাদার’ অমর সিংয়ের সঙ্গে তার সম্পর্ক নিয়ে মিথ্যে গুজব ছড়িয়েছিল। তার ও অমর সিংয়ের ছবি সুপার ইম্পোজ করেও ভাইরাল করা হয়েছিল। বিকৃত করা তাদের সেই ঘনিষ্ঠ ছবি নিয়ে বলিউড থেকে সাধারণ দেশবাসীর মধ্যে আলোড়নও পড়ে যায়। তখন কেউ তার থেকে আসল সত্যিটা জানতে চাননি। এমনকী, পাশেও থাকেননি। বরং যে অমর সিংয়ের সঙ্গে তাঁর মিথ্যা সম্পর্কের গল্প সবাই বিশ্বাসও করেছিল।
তিনি বলেন, কেউ একবারও ভেবে দেখেননি যে প্রতি বছর অমর সিংয়ের হাতে আমি রাখি বাঁধি। সেই সময় প্রত্যেকটা মুহূর্ত তার কাছে দুর্বিষহ বলে মনে হত। এর ফলে মানসিক অবসাদ গ্রাস করেছিল।

সেই সময়ও তার পাশে ছিলেন স্বয়ং অমর সিং। জয়া প্রদা বলেন, ডায়ালিসিস থেকে বেরিয়ে এসেও আমার কথা শুনেছিলেন। ভরসা জুগিয়েছিলেন। বলেছিলেন, গুজবে কান না দিতে।

জয়া প্রদা আরও জানন, সমাজবাদী পার্টির নেতা আজম খান নানাভাবে হেনস্তা করার পাশাপাশি তার উপর অ্যাসিড হামলার চেষ্টাও করেছিলেন। পরিস্থিতি এমন হয়েছিল যে বেঁচে থাকাই তার কাছে চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়ায়। নিরাপদ আশ্রয়ের সন্ধানে নিজের বাড়ি ছেড়ে মায়ের বাড়িতেও আশ্রয় নিতে হয়েছিল তাকে।
বিডিপ্রেস/আলী