BDpress

ব্যাংকের ১৩৫০০ কোটি রুপি লুটে লন্ডনে বিলাসী জীবন মোদির!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

অ+ অ-
ব্যাংকের ১৩৫০০ কোটি রুপি লুটে লন্ডনে বিলাসী জীবন মোদির!
ভারতে দাগি আসামির তালিকায় রয়েছেন বিলিয়নিয়ার ব্যবসায়ী নীরব মোদি। তিনি পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাংকের ১৩ হাজার ৫০০ কোটি রুপির দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত।

সম্প্রতি কর্তৃপক্ষ মহারাষ্ট্রে কিহিম সমুদ্র সৈকতে তার ৩০ হাজার বর্গফুটের বাসভবন বিস্ফোরক ব্যবহার করে ধ্বংস করে দেওয়ার পর থেকেই পলাতক ছিলেন এই বিলিয়নিয়ার। তবে শেষ পর্যন্ত তার খোঁজ মিলেছে। তিনি বসবাস করছেন পশ্চিম লন্ডনে। লন্ডনের দ্য টেলিগ্রাফের এক প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে এ খবর দিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ৪৮ বছর বয়সী নীরব মোদি ব্যবসা শুরু করেছিলেন ডায়মন্ড দিয়ে। বর্তমানে তিনি পশ্চিম লন্ডনের সেন্টার পয়েন্ট টাওয়ারের একটি ফ্লোরের অর্ধেকটা নিয়ে বসবাস করছেন।

এ ছাড়া নীরব মোদি লন্ডনের রাস্তায় হেঁটে বেড়াচ্ছেন এমন ভিডিও-ও প্রকাশিত হয়েছে। এতে তাকে প্রশ্ন করা হলে, নো কমেন্ট বলেই সরে যান। এখন তার রয়েছে দীর্ঘ গোঁফ।

তাকে ধরিয়ে দিতে ইন্টারপোলের মাধ্যমে রেড এলার্ট জারি করা হয়েছে। গত বছর সেপ্টেম্বর থেকে তাকে ভারতের হাতে তুলে দেওয়ার আবেদন রয়েছে বৃটিশ কর্তৃপক্ষের হাতে।

নীরব মোদি ও তার চাচা মেহুল ছোকসি পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাংকের ঋণ প্রতারণার দায়ে সিবিআই এবং ইডি স্ক্যানারের আওতায় রয়েছেন ভারতে। তাদের বিরুদ্ধে অর্থ পাচারের অভিযোগে মামলা করেছে ইডি।
বিডিপ্রেস/আলী

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

ব্যাংকের ১৩৫০০ কোটি রুপি লুটে লন্ডনে বিলাসী জীবন মোদির!


ব্যাংকের ১৩৫০০ কোটি রুপি লুটে লন্ডনে বিলাসী জীবন মোদির!

সম্প্রতি কর্তৃপক্ষ মহারাষ্ট্রে কিহিম সমুদ্র সৈকতে তার ৩০ হাজার বর্গফুটের বাসভবন বিস্ফোরক ব্যবহার করে ধ্বংস করে দেওয়ার পর থেকেই পলাতক ছিলেন এই বিলিয়নিয়ার। তবে শেষ পর্যন্ত তার খোঁজ মিলেছে। তিনি বসবাস করছেন পশ্চিম লন্ডনে। লন্ডনের দ্য টেলিগ্রাফের এক প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে এ খবর দিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ৪৮ বছর বয়সী নীরব মোদি ব্যবসা শুরু করেছিলেন ডায়মন্ড দিয়ে। বর্তমানে তিনি পশ্চিম লন্ডনের সেন্টার পয়েন্ট টাওয়ারের একটি ফ্লোরের অর্ধেকটা নিয়ে বসবাস করছেন।

এ ছাড়া নীরব মোদি লন্ডনের রাস্তায় হেঁটে বেড়াচ্ছেন এমন ভিডিও-ও প্রকাশিত হয়েছে। এতে তাকে প্রশ্ন করা হলে, নো কমেন্ট বলেই সরে যান। এখন তার রয়েছে দীর্ঘ গোঁফ।

তাকে ধরিয়ে দিতে ইন্টারপোলের মাধ্যমে রেড এলার্ট জারি করা হয়েছে। গত বছর সেপ্টেম্বর থেকে তাকে ভারতের হাতে তুলে দেওয়ার আবেদন রয়েছে বৃটিশ কর্তৃপক্ষের হাতে।

নীরব মোদি ও তার চাচা মেহুল ছোকসি পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাংকের ঋণ প্রতারণার দায়ে সিবিআই এবং ইডি স্ক্যানারের আওতায় রয়েছেন ভারতে। তাদের বিরুদ্ধে অর্থ পাচারের অভিযোগে মামলা করেছে ইডি।
বিডিপ্রেস/আলী