BDpress

বাগেরহাটে গ্রিল খুলে শিশু চুরি

জেলা প্রতিবেদক

অ+ অ-
বাগেরহাটে গ্রিল খুলে শিশু চুরি
বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে রাতে জানালার গ্রিল খুলে মা-বাবার কোলের মধ্য থেকে শিশু চুরির ঘটনায় আরো চারজনকে আটক করেছে পুলিশ। তবে চুরি চক্রের মূল হোতা হৃদয় চাপরাশী (১৯) ও শিশুটিকে এখনো পাওয়া যায়নি।

মঙ্গলবার রাত ১১টার দিকে থানা পুলিশ নিশানবাড়িয়া ইউনিয়নের গুলিশাখালী গ্রামে হৃদয় চাপরাশীর বাড়িতে অভিযান চালিয়ে শিশু আব্দুল্লাহ্’র সাথে চুরি করে নেওয়া মোবাইল ফোনটি পুলিশ উদ্ধার করেছে।

পুলিশের অভিযান বুঝতে পেরে মোয়াজ্জেম চাপরাশীর ছেলে হৃদয় চাপরাশী শিশুটিকে নিয়ে পালিয়ে যায়। পুলিশ তার মা নাছিমা বেগম (৫২) ও বোন আবির আক্তারকে (১৪) আটক করে।

হৃদয়ের মা চুরির ঘটনা স্বীকার করে বলেন, রবিবার ভোর রাতে হৃদয় ওই শিশুটিকে নিয়ে অজ্ঞান অবস্থায় তার কাছে দেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যা পর্যন্ত তার কাছেই অজ্ঞান অবস্থায় ছিল শিশুটি। পরে হৃদয় শিশুটিকে নিয়ে বাড়ি থেকে চলে যায়।

এ সময় পুলিশ হৃদয় চাপরাশীর সুসজ্জিত কক্ষের মাটি খুড়ে চেতনা নাশক স্প্রে, গ্রিল ও তালা কাটার জন্য গ্যাস কাটার, এ্যাসিডের বোতল, বিভিন্ন ধরনের ওষুধ, গ্যাস পাইপ, মিনি গ্যাস সিলিন্ডারসহ দুর্ধর্ষ চুরির কাজে ব্যবহৃত অনেক মালামাল উদ্ধার করে। পরে পুলিশ এ চক্রের সদস্য হৃদয়ের চাচাতো ভাই সোবাহান চাপরাশীর ছেলে মহিউদ্দিন চাপরাশী (৩৫) ও রশিদ চাপরাশীর ছেলে ফায়জুল চাপরাশীকে (২৫) একই এলাকা থেকে আটক করে।

এ বিষয়ে আজ বুধবার বেলা ১০টায় থানার ওসি কেএম আজিজুল ইসলাম বলেন, শিশু আব্দুল্লাহকে চুরির সাথে জড়িত কয়েকজন ধরা পড়েছে। মূল চক্র ও তাদের আখড়া আবিস্কার হয়েছে। তবে এ ঘটনার মূল নায়ক, মোবাইল ফোনে মুক্তিপণ দাবি করা হৃদয় চাপরাশী ও চুরি হওয়া শিশুটিকে এখনো পাওয়া যায়নি। পুলিশের জনবল বাড়িয়ে অভিযান অব্যাহত আছে। 

উল্লেখ্য, রবিবার দিবাগত রাত ৩ টার দিকে বিশারীঘাটা গ্রামের সোহাগ হাওলাদারের আড়াই মাস বয়সী ছেলে আব্দুল্লাহকে জানালার গ্রিল খুলে ঘুমন্ত মা-বাবার বিছানা থেকে চুরি করে নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। পরে মোবাইল ফোনে দশ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। সোমবার রাতে দুর্বৃত্তদের ব্যবহৃত মোটরসাইকেলটি পরিত্যাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে পুলিশ। মঙ্গলবার ওই মোটরসাইকেলের সূত্র ধরে পুলিশ কয়েকজনকে আটক ও আখড়া আবিস্কার করে।
বিডিপ্রেস/আলী

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

বাগেরহাটে গ্রিল খুলে শিশু চুরি


বাগেরহাটে গ্রিল খুলে শিশু চুরি

মঙ্গলবার রাত ১১টার দিকে থানা পুলিশ নিশানবাড়িয়া ইউনিয়নের গুলিশাখালী গ্রামে হৃদয় চাপরাশীর বাড়িতে অভিযান চালিয়ে শিশু আব্দুল্লাহ্’র সাথে চুরি করে নেওয়া মোবাইল ফোনটি পুলিশ উদ্ধার করেছে।

পুলিশের অভিযান বুঝতে পেরে মোয়াজ্জেম চাপরাশীর ছেলে হৃদয় চাপরাশী শিশুটিকে নিয়ে পালিয়ে যায়। পুলিশ তার মা নাছিমা বেগম (৫২) ও বোন আবির আক্তারকে (১৪) আটক করে।

হৃদয়ের মা চুরির ঘটনা স্বীকার করে বলেন, রবিবার ভোর রাতে হৃদয় ওই শিশুটিকে নিয়ে অজ্ঞান অবস্থায় তার কাছে দেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যা পর্যন্ত তার কাছেই অজ্ঞান অবস্থায় ছিল শিশুটি। পরে হৃদয় শিশুটিকে নিয়ে বাড়ি থেকে চলে যায়।

এ সময় পুলিশ হৃদয় চাপরাশীর সুসজ্জিত কক্ষের মাটি খুড়ে চেতনা নাশক স্প্রে, গ্রিল ও তালা কাটার জন্য গ্যাস কাটার, এ্যাসিডের বোতল, বিভিন্ন ধরনের ওষুধ, গ্যাস পাইপ, মিনি গ্যাস সিলিন্ডারসহ দুর্ধর্ষ চুরির কাজে ব্যবহৃত অনেক মালামাল উদ্ধার করে। পরে পুলিশ এ চক্রের সদস্য হৃদয়ের চাচাতো ভাই সোবাহান চাপরাশীর ছেলে মহিউদ্দিন চাপরাশী (৩৫) ও রশিদ চাপরাশীর ছেলে ফায়জুল চাপরাশীকে (২৫) একই এলাকা থেকে আটক করে।

এ বিষয়ে আজ বুধবার বেলা ১০টায় থানার ওসি কেএম আজিজুল ইসলাম বলেন, শিশু আব্দুল্লাহকে চুরির সাথে জড়িত কয়েকজন ধরা পড়েছে। মূল চক্র ও তাদের আখড়া আবিস্কার হয়েছে। তবে এ ঘটনার মূল নায়ক, মোবাইল ফোনে মুক্তিপণ দাবি করা হৃদয় চাপরাশী ও চুরি হওয়া শিশুটিকে এখনো পাওয়া যায়নি। পুলিশের জনবল বাড়িয়ে অভিযান অব্যাহত আছে। 

উল্লেখ্য, রবিবার দিবাগত রাত ৩ টার দিকে বিশারীঘাটা গ্রামের সোহাগ হাওলাদারের আড়াই মাস বয়সী ছেলে আব্দুল্লাহকে জানালার গ্রিল খুলে ঘুমন্ত মা-বাবার বিছানা থেকে চুরি করে নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। পরে মোবাইল ফোনে দশ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। সোমবার রাতে দুর্বৃত্তদের ব্যবহৃত মোটরসাইকেলটি পরিত্যাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে পুলিশ। মঙ্গলবার ওই মোটরসাইকেলের সূত্র ধরে পুলিশ কয়েকজনকে আটক ও আখড়া আবিস্কার করে।
বিডিপ্রেস/আলী