BDpress

নবীন সদস্যদের বরণ করলো ডিআরইউ

নিজস্ব প্রতিবেদক

অ+ অ-
নবীন সদস্যদের বরণ করলো ডিআরইউ
নতুন সদস্যদের আনুষ্ঠানিকভাবে বরণ করে নিয়েছে পেশাদার সাংবাদিকদের সংগঠন ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি (ডিআরইউ)। শনিবার বিকেলে ডিআরইউ’র সাগর-রুনি মিলনায়তনে ১৯২ সাংবাদিককে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন সংগঠনের বর্তমান- প্রাক্তন নেতাকর্মী ও সদস্যরা।

ডিআরইউর সাংগঠনিক সম্পাদক জিলানী মিলটনের সভাপতিত্বে নবীন-বরণ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন বাদশা, সাধারণ সম্পাদক মুসালিন নোমানী, দফতর সম্পাদক নয়ন মুরাদ, কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য নূরুল ইসলাম হাসিব প্রমুখ।

অনুষ্ঠানের সঞ্চালনা করেন কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য হাবীবুর রহমান।

অনুষ্ঠানে সাখাওয়াত হোসেন বাদশা বলেন, ২২ বছরের শ্রম ও মেধায় এ সংগঠন আজ এ পর্যায়ে এসেছে। এটি একটি সুশৃঙ্খল সংগঠন। এটি গঠনতন্ত্র মেনে চলে। তাই কোনো প্রকার বিশৃঙ্খলা নেই। আশা করি আপনারাও গঠনতন্ত্র অনুযায়ী চলবেন।

মুরসালিন নোমানী বলেন, ১৯৯৫ সালে ২৬ মে এ সংগঠন প্রতিষ্ঠা পায়। সে হিসেবে আমাদের প্রাণের এ সংগঠন পরিপূর্ণ যৌবনে পদার্পণ করেছে। প্রতিষ্ঠার পর থেকেই এটি অরাজনৈতিক সংগঠন হিসেবে এগিয়ে যাচ্ছে। একতা নিয়ে আমরা এগিয়ে যেতে চাই। সংগঠনের জ্যেষ্ঠ সদস্যরা যেন কোনো আচরণে কষ্ট না পায় সে বিষয়ে লক্ষ্য রেখে এগিয়ে চলার পরামর্শ দেন তিনি।

নূরুল ইসলাম হাসিব বলেন, আমাদের প্রথম পরিচয় আমরা কোনো প্রতিষ্ঠানে কাজ করি। পরের পরিচয় আমরা ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সদস্য। সে বিষয়টি মাথায় রেখেই পেশাগত দক্ষতা বাড়ানোর দিকে দৃষ্টি দিতে হবে।

জিলানী মিলটন বলেন, আমরা একটা পরিবার। সুখে দুঃখে আপনারা সবকিছু আমাদের সঙ্গে শেয়ার করবেন। সবাই মিলে একসঙ্গে চলব। 

বিডিপ্রেস/আরজে

এ সম্পর্কিত অন্যান্য খবর

BDpress

নবীন সদস্যদের বরণ করলো ডিআরইউ


নবীন সদস্যদের বরণ করলো ডিআরইউ

ডিআরইউর সাংগঠনিক সম্পাদক জিলানী মিলটনের সভাপতিত্বে নবীন-বরণ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন বাদশা, সাধারণ সম্পাদক মুসালিন নোমানী, দফতর সম্পাদক নয়ন মুরাদ, কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য নূরুল ইসলাম হাসিব প্রমুখ।

অনুষ্ঠানের সঞ্চালনা করেন কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য হাবীবুর রহমান।

অনুষ্ঠানে সাখাওয়াত হোসেন বাদশা বলেন, ২২ বছরের শ্রম ও মেধায় এ সংগঠন আজ এ পর্যায়ে এসেছে। এটি একটি সুশৃঙ্খল সংগঠন। এটি গঠনতন্ত্র মেনে চলে। তাই কোনো প্রকার বিশৃঙ্খলা নেই। আশা করি আপনারাও গঠনতন্ত্র অনুযায়ী চলবেন।

মুরসালিন নোমানী বলেন, ১৯৯৫ সালে ২৬ মে এ সংগঠন প্রতিষ্ঠা পায়। সে হিসেবে আমাদের প্রাণের এ সংগঠন পরিপূর্ণ যৌবনে পদার্পণ করেছে। প্রতিষ্ঠার পর থেকেই এটি অরাজনৈতিক সংগঠন হিসেবে এগিয়ে যাচ্ছে। একতা নিয়ে আমরা এগিয়ে যেতে চাই। সংগঠনের জ্যেষ্ঠ সদস্যরা যেন কোনো আচরণে কষ্ট না পায় সে বিষয়ে লক্ষ্য রেখে এগিয়ে চলার পরামর্শ দেন তিনি।

নূরুল ইসলাম হাসিব বলেন, আমাদের প্রথম পরিচয় আমরা কোনো প্রতিষ্ঠানে কাজ করি। পরের পরিচয় আমরা ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সদস্য। সে বিষয়টি মাথায় রেখেই পেশাগত দক্ষতা বাড়ানোর দিকে দৃষ্টি দিতে হবে।

জিলানী মিলটন বলেন, আমরা একটা পরিবার। সুখে দুঃখে আপনারা সবকিছু আমাদের সঙ্গে শেয়ার করবেন। সবাই মিলে একসঙ্গে চলব। 

বিডিপ্রেস/আরজে